১৫ নভেম্বর ,বৃহস্পতিবার, ২০১৮

> বাংলাদেশ

>> জাতীয়

 

কক্সবাজার প্রতিনিধি

১ আগস্ট , বুধবার, ২০১৮ ১২:০১:১৫

গডফাদার নির্মূলে কক্সবাজারে নতুন ১৫ প্লাটুন র‌্যাব


গডফাদার নির্মূলে কক্সবাজারে নতুন ১৫ প্লাটুন র‌্যাব


দেশের দক্ষিণ স্থলবন্দর ও জল সীমান্ত পেরিয়ে মিয়ানমার থেকে প্রতিদিন দেশে ঢুকছে ইয়াবাসহ নানা মাদক। বিভিন্ন উপায়ে সেগুলো দিনের পর দিন ছড়িয়ে পড়ছে দেশের নানা প্রান্তে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে ইয়াবা আসক্তের সংখ্যা। যার সিংহভাগই তরুণ-তরুণী, রয়েছে শিক্ষার্থীও।

তাই দেশের পরবর্তী প্রজন্মকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষায় শুরু হয়েছে মাদকবিরোধী যুদ্ধ। গেল ৪ মে থেকে ‘চলো যাই যুদ্ধে, মাদকের বিরুদ্ধে’ স্লোগানে সারাদেশে চলমান মাদকবিরোধী এ অভিযানে মঙ্গলবার পর্যন্ত প্রায় দু'শতাধিক মাদক সংশ্লিষ্ট লোকজন নিহত হয়েছেন।

কিন্তু এরপরও থামছে না ইয়াবার আগ্রাসন। দেশের কোথাও না কোথাও চুনোপুটি মাদক ব্যবসায়ী বা বাহক ধরা পড়ছে প্রতিদিন। কিন্তু মূল ব্যবসায়ী, ইয়াবা সম্রাট-সম্রাজ্ঞীরা ধরা না পড়ায় টেকনাফের নাফনদ, বঙ্গোপসাগর এবং স্থলভাগ পেরিয়ে প্রতিদিনই ঢুকছে ইয়াবা।

এবার মূল ব্যবসায়ী, গড়ফাদার-গড়মাদারকে কব্জায় নিয়ে সর্বনাশা ইয়াবা প্রবেশ রোধে টেকনাফে নতুন করে র‌্যাবের ৫টি অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। এতে কাজ করছে ১৫ প্লাটুন র‌্যাব সদস্য।

কক্সবাজার শহর ও টেকনাফের বরইতলীতে স্থান নেয়া আগের ২টি এবং নতুন ৫টি ক্যাম্পের পথযাত্রা হিসেবে কাল (৩১ জুলাই) কক্সবাজার শহর, রামু ও টেকনাফের মহাসড়কসহ মেরিন ড্রাইভে টহল দিয়েছে র‌্যাব সদস্যরা।

মঙ্গলবার বিকেলে শহরের কলাতলীর সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে শতাধিক গাড়িযোগে টহলটি শুরু হয়ে রামুর মহাসড়ক হয়ে মেরিনড্রাইভ সড়ক দিয়ে টেকনাফ গিয়ে শেষ হয়।

র‌্যাব জানায়, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নিয়ে মাঠে নেমেছে র‌্যাব। নানা কৌশলে তারা দেশ থেকে ইয়াবা নির্মূল করতে কাজ করছে। এজন্যই ইয়াবার ট্রানজিট শহর হিসেবে পরিচিত টেকনাফে র‌্যাবকে শক্তিশালি করতে নতুন ক্যাম্পগুলো স্থাপন করা হয়েছে। 

কক্সবাজার সদর উপজেলার বিসিক শিল্প নগরী ও টেকনাফের বরইতলী ক্যাম্পের পাশাপাশি টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপ, সাবরাং, টেকনাফ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড, বাহারছড়া ও হোয়াইক্যংয়ে নতুন ক্যাম্পগুলো স্থাপন করা হয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্র জানায়, টেকনাফের তালিকাভূক্ত শীর্ষ ২০ ইয়াবা ব্যবসায়ী সারাদেশের মোট ইয়াবা ব্যবসার ৮০ ভাগ নিয়ন্ত্রণ করে। এ কারণে ট্রানজিট পয়েন্টে নজরদারি বাড়ানো খুব জরুরি। ইয়াবা আগ্রাসন বন্ধ করতেই নতুন ক্যাম্পগুলো বসানো হয়েছে।

সূত্র মতে, জেলায় ১ হাজার ১৫১ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী আছেন, যাদের মধ্যে টেকনাফ সদরে তালিকাভুক্ত বড় ইয়াবা ব্যবসায়ীর সংখ্যা ১৯৩ জন। তালিকার সবাই ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে সরাসরি জড়িত বলে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শাহপরীর দ্বীপের ক্যাম্পটি হাজি বশির আহমদ উচ্চ বিদ্যালয়ে অবস্থান নিয়েছে। এখানে নাফ নদীর তীরসংলগ্ন এলাকায় বিজিবির একটি সীমান্ত চৌকি ও পুরান বাজার এলাকায় বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের একটি স্টেশন আছে।

সাবরাংয়ের ক্যাম্পটি বসানো হয়েছে সাবরাং ইউনিয়ন কমপ্লেক্সে। ওই ইউপির নাফ নদীর তীরে নয়াপাড়া এলাকা ও খুরেরমুখে বিজিবির দুটি সীমান্ত চৌকি রয়েছে।

টেকনাফ সদর ইউপি ভবনে র‌্যাবের ৩য় ক্যাম্পটির অবস্থান। এর একটু সামনে নাফ নদীর কিনারে টেকনাফ বনবিভাগের রেস্ট হাউসের সামনে বিজিবির একটি তল্লাশি চৌকি ও টেকনাফ ২নং ওয়ার্ডের নাফ নদীর পাশে বিজিবির অপর একটি ক্যাম্প রয়েছে।

এছাড়া বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে বসানো হয়েছে ৪র্থ ক্যাম্পটি এবং হোয়াইক্যংয়ের লম্বারবিল হাজী মোহাম্মদ হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ম ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বলেন, মাদক নিয়ন্ত্রণে এসব ক্যাম্পে ৩ প্লাটুন করে মোট ১৫ প্লাটুন সদস্য দায়িত্ব পালন করছে। পাশাপাশি রয়েছে ডগ স্কোয়াডও। জিরো টলারেন্সে থেকে আমরা সবার সহযোগিতায় কাজ করতে চাই। এতে বিশেষ সফলতা আসবে বলে আশা করেন র‌্যাবের এ কর্মকর্তা।



অরিন/নিউজ টোয়েন্টিফোর


মির্জা ফখরুলকে ক্ষমা চাইতে আল্টিমেটাম
দ্বিতীয় বিয়েতে দীপিকা-রণবীর
'বর্তমান পরিস্থিতিতে থাকলে নিরপেক্ষ নির্বাচন অসম্ভব'
কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য, তোপের মুখে আফ্রিদি
'নির্বাচন পেছালে আইনি জটিলতায় পড়বে'
‘ভোট, উইন্ডিজ সিরিজে নেই মাশরাফি’
ধানের শীষ নিয়ে লড়বে ঐক্যফ্রন্ট: মান্না
মনোনয়নপত্র কিনলেন বাবরের স্ত্রী শ্রাবণী
২১৮ রানের বিশাল জয় বাংলাদেশের
খাসোগি হত্যায় সালমান জড়িত: সিআইএ
পর নারীর সঙ্গে কথা বলায় স্বামীর গোপনাঙ্গ ছেদ
যশোরে বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত, আহত ১৫
নির্বাচন পেছানোর দাবি অবান্তর: কাদের
‘মুহাম্মদ আলী বক্সার না হলে ইমাম হতেন’
নির্বাচনের ২-১০ দিন আগে সেনা মোতায়েন: ইসি সচিব
পুরুষদের দুবার বিয়ে বাধ্যতামূলক যেখানে!
ফ্রান্স যুক্তরাষ্ট্রের খেলার পুতুল নয়: ম্যাকরন
ওবায়দুল কাদেরের সংবাদ সম্মেলন ১১ টায়
আদালতে অন্তর্বাস প্রদর্শন!
যেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছে জামায়াত
মির্জা ফখরুলকে ক্ষমা চাইতে আল্টিমেটাম
দ্বিতীয় বিয়েতে দীপিকা-রণবীর
নোবিপ্রবিতে কৃষি দিবস  পালিত
দিনাজপুরে তিনদিন ব্যাপী নবান্ন উৎসব শুরু
বিচার না হওয়া পর্যন্ত ফিরতে চায় না রোহিঙ্গারা
দীপন হত্যা মামলার অভিযোগপত্র দাখিল
'বর্তমান পরিস্থিতিতে থাকলে নিরপেক্ষ নির্বাচন অসম্ভব'
কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য, তোপের মুখে আফ্রিদি
শ্রীলঙ্কায় এখন কোনও প্রধানমন্ত্রী নেই
'নির্বাচন পেছালে আইনি জটিলতায় পড়বে'
পাকুন্দিয়ায় মা ও স্ত্রীকে হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড 
খুলনায় নবান্ন উৎসব উদযাপিত
ঝিনাইদহে নবান্ন উৎসব
কুড়িগ্রামে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সের বর্ণাঢ্য র‌্যালি
‘ভোট, উইন্ডিজ সিরিজে নেই মাশরাফি’
ধানের শীষ নিয়ে লড়বে ঐক্যফ্রন্ট: মান্না
মনোনয়নপত্র কিনলেন বাবরের স্ত্রী শ্রাবণী
২১৮ রানের বিশাল জয় বাংলাদেশের
খাসোগি হত্যায় সালমান জড়িত: সিআইএ
পর নারীর সঙ্গে কথা বলায় স্বামীর গোপনাঙ্গ ছেদ
নির্বাচন করবেন হিরো আলম!
৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’: রব
'পুলিশ রাষ্ট্রের কর্মচারী, প্রতিপক্ষ ভাববেন না'
বিএনপিকে চাঙ্গা করতে আসছেন জোবাইদা
চীন সফরে বিএনপির প্রতিনিধি দল
মাশরাফির নির্বাচন নিয়ে যা বললেন তার বাবা
ইসলাম গ্রহণকারী ভারতীয় সেই নারী খুন
হামাসের ক্ষেপণাস্ত্রে ইসরাইলের সেনাবাস ভস্মীভূত
বিএনপির কাছে ১০০ আসন চাচ্ছেন শরিকরা
মৃত্যুর আগে যে কথা বলেন খাসোগি
আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কিনবেন মাশরাফি
সংসদ নির্বাচনে যাচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
চাঁদা চাওয়া সেই এসআই বরখাস্ত
বয়স বাড়বে কিন্তু শক্তি কমবে না
‘বিনা উসকানিতে’ এটা করল বিএনপি: কাদের
ফকিরাপুল-কাকরাইল বিএনপির দখলে
২০ দল বেড়ে হলো ২৩ দলীয় জোট
‘আমাদের নির্বাচনে যাওয়ার দরকার নেই’
একসঙ্গে দুই বোনের আত্মহত্যা!
'মহাজোট থেকে জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ'

সব খবর