১৪ নভেম্বর , বুধবার, ২০১৮

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

১ আগস্ট , বুধবার, ২০১৮ ২১:৩৬:৫৪

বিক্ষোভকারীদের প্রতি পুলিশি আচরণ নিয়ে প্রশ্ন


বিক্ষোভকারীদের প্রতি পুলিশি আচরণ নিয়ে প্রশ্ন

শিক্ষার্থীদের ঘিরে রেখেছে পুলিশ।


রাজধানীতে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় নয় দফা দাবিতে চারদিন ধরে রাজধানীতে বিক্ষোভ করে আসছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অবরোধ ও বিক্ষোভে কার্যত ঢাকা শহর অচল হয়ে পড়েছে।

এদিকে বিক্ষোভের প্রতি পুলিশি ব্যবস্থায় কয়েক জায়গায় আইনভঙ্গ হচ্ছে বলে মনে করছেন শিশু অধিকার আন্দোলনকারীরা।

পুলিশ প্রশাসন এসব অপ্রাপ্তবয়স্ক শিক্ষার্থীদের ‌‌‌‌‘পূর্ণ বয়স্ক মানুষ ও অপরাধী’ হিসেবে বিবেচনা করে তাদের প্রতি কঠোর আচরণ করছে বলে তারা বলছেন। খবর বিবিসির

আইন ও শালিস কেন্দ্রের শিশু অধিকার ইউনিটের টিম লিডার মো. মকসুদ মালেক বলছিলেন, বাংলাদেশে শিশু অধিকার আইন রয়েছে। সেই আইনের ধারায় অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোর-কিশোরীদের সুরক্ষাকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

কিন্তু পুলিশ শুরু থেকেই এদের আইনভঙ্গকারী হিসেবে বিবেচনা করে আসছে। এই দৃষ্টিভঙ্গির কারণে পুলিশ আক্রমণাত্মক ভূমিকা পালন করছে বলে তিনি বলেন।

গত রোববার ঢাকায় একই কোম্পানির দুটি বাসের মধ্যে প্রতিযোগিতার সময় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের ওপর বাস তুলে দেয় এক চালক।

ওই ঘটনায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মীম এবং দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আব্দুল করিম নিহত হয়। এতে আহত হয় অন্তত ১০ জন শিক্ষার্থী।

খবর পেয়ে ওই কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে।

এই বিক্ষোভের মুখে সোমবার বিকেলে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ওপর জল-কামান ব্যবহার করে এবং সাঁজোয়া গাড়ি ব্যবহার করে সড়ক অবরোধকারীদের ধাওয়া করে।

এছাড়াও শহরের বিভিন্ন জায়গায় পুলিশের সঙ্গে ছাত্রদের ধস্তাধস্তির দৃশ্য দেখা যায়। এক ঘটনায় এক পুলিশ কর্মকর্তাকে দেখা যায় এক ছাত্রের কলার ধরে আছে।

তবে বিবিসির একজন সংবাদদাতা, যিনি শহরের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখেছেন, তিনি বলেছেন, সোমবারের পুলিশকে বেশ মারমুখী দেখা গেলেও মঙ্গলবার ও বুধবার তাদের সংযত দেখা গেছে।

এসব ঘটনায় কিশোর-কিশোরীদের মনে যে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে সেটি বিবেচনার মধ্যে রাখতে হবে, বলছেন আইন ও শালিস কেন্দ্রের মো. মাকসুদ মালেক, এরা কোনো ভাবেই অপরাধ করেনি, সে কারণে তাদের প্রতি সাধারণ আইনের ধারাগুলো প্রয়োগ করা উচিত হবে না।

এদের বিচার করার প্রয়োজন হলেও সেটা প্রচলিত আদালতে করা যাবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

একটা কথা মনে রাখতে হবে এদের দুজন সহপাঠী বাসে চাপা পড়ে নিহত হয়েছে। ফুটপাথে দাঁড়িয়ে তারা যদি নিরাপদ বোধ না করেন, সেই কথাটি কী তারা বলতে পারবে না?

বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ব্যবহারের ক্ষেত্রে কী আদেশ দেওয়া হয়েছে সে সম্পর্কে পুলিশ বিভাগের কোনো মন্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

তবে এই প্রশ্নটি নিয়ে পুলিশ কর্মকর্তারাও নিশ্চয়ই ভাবছেন বলে মন্তব্য করেন পুলিশের সাবেক আইজি মো. নুরুল হুদা।

তিনি বলেন, রাস্তায় আইন প্রয়োগের দায়িত্বে থাকেন যেসব কর্মকর্তা তাকে একদিকে এসব বাচ্চাদের সঙ্গে কী আচরণ করতে হবে, সেটা নিয়ে ভাবতে হয়।

অন্যদিকে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য তার ওপর যে আদেশ সেটাও তাকে পালন করতে হয়।

৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস গরমে ওসব ভারী ভারী পোশাক পরে দায়িত্ব পালনের সময় অনেকেই মাথা ঠাণ্ডা রাখাতে পারেন না।

ওদিকে বাসচাপার ঘটনায় দায়ের করা হত্যা মামলাটি বুধবার তদন্তের জন্য গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এই মামলায় আদালত মূল অভিযুক্ত ড্রাইভার মাসুম বিল্লাহকে সাতদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে।

বাসের কর্মচারী অন্য চার ব্যক্তি এখন আটক রয়েছে।

পাশাপাশি, সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ অভিযুক্ত দুই বাসের নিবন্ধন ও ফিটনেস সনদ বাতিল করেছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)


'দাবিগুলো বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছে ইসি'
চট্টগ্রামে পুলিশ বক্স ভাংচুর, গাড়িতে আগুন
'নয়াপল্টনে হামলাকারীদের ভিডিও ফুটেজ দেখে ব্যবস্থা'
‘বিনা উসকানিতে’ এটা করল বিএনপি: কাদের
‘আমাদের নির্বাচনে যাওয়ার দরকার নেই’
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
ফকিরাপুল-কাকরাইল বিএনপির দখলে
ডেসটিনি চেয়ারম্যানের ৩ বছর কারাদণ্ড
নয়াপল্টনে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ
খালেদার মুক্তি নিয়ে প্রশ্নে জাতিসংঘ নিশ্চুপ
বিকেলে ঢাকায় আসছে উইন্ডিজ দল
‘থ্যাংক ইউ পিএম’ প্রচার আইনের লঙ্ঘন: রিজভী
ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে নিহত বেড়ে ৫০
নাটোরে নৈশকোচের চাপায় বৃদ্ধা নিহত
অতিরিক্ত ফি আদায়, এলাকাবাসীর প্রতিবাদ সভা
আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার আজ
বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার ১৮ নভেম্বর
আবারও ব্যর্থ ইমরুল-লিটন
চীন সফরে বিএনপির প্রতিনিধি দল
দেয়ালে মাথা আটকে পড়া শিশুকে উদ্ধার
বিএনপির মনোনয়ন কিনলেন নাজমুল হুদার মেয়ে
'দাবিগুলো বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছে ইসি'
চট্টগ্রামে পুলিশ বক্স ভাংচুর, গাড়িতে আগুন
'নয়াপল্টনে হামলাকারীদের ভিডিও ফুটেজ দেখে ব্যবস্থা'
পীরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
কালীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় অজ্ঞাত নারী নিহত 
ভুরুঙ্গামারীতে হানাদার মুক্ত দিবস পালন 
নোয়াখালীতে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত
‘বিনা উসকানিতে’ এটা করল বিএনপি: কাদের
‘আমাদের নির্বাচনে যাওয়ার দরকার নেই’
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
ফকিরাপুল-কাকরাইল বিএনপির দখলে
ডেসটিনি চেয়ারম্যানের ৩ বছর কারাদণ্ড
নয়াপল্টনে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ
খালেদার মুক্তি নিয়ে প্রশ্নে জাতিসংঘ নিশ্চুপ
বিকেলে ঢাকায় আসছে উইন্ডিজ দল
‘থ্যাংক ইউ পিএম’ প্রচার আইনের লঙ্ঘন: রিজভী
ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে নিহত বেড়ে ৫০
নাটোরে নৈশকোচের চাপায় বৃদ্ধা নিহত
অতিরিক্ত ফি আদায়, এলাকাবাসীর প্রতিবাদ সভা
ইতালিতে সন্তান হলে জমি পুরস্কার
নির্বাচন করবেন হিরো আলম!
৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’: রব
বিএনপিকে চাঙ্গা করতে আসছেন জোবাইদা
মাশরাফির নির্বাচন নিয়ে যা বললেন তার বাবা
চীন সফরে বিএনপির প্রতিনিধি দল
নির্বাচনের তারিখ চূড়ান্ত করেছে ইসি!
জিম্বাবুয়েতে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৪৭
হামাসের ক্ষেপণাস্ত্রে ইসরাইলের সেনাবাস ভস্মীভূত
বিএনপির কাছে ১০০ আসন চাচ্ছেন শরিকরা
মৃত্যুর আগে যে কথা বলেন খাসোগি
আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কিনবেন মাশরাফি
সংসদ নির্বাচনে যাচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
চাঁদা চাওয়া সেই এসআই বরখাস্ত
খাসোগি হত্যাকাণ্ডে ইসরায়েলি প্রযুক্তি
২০ দল বেড়ে হলো ২৩ দলীয় জোট
একসঙ্গে দুই বোনের আত্মহত্যা!
বয়স বাড়বে কিন্তু শক্তি কমবে না
স্ত্রীর নগ্ন ভিডিও পর্ন সাইটে ছড়িয়ে দিল স্বামী!
'মহাজোট থেকে জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ'

সব খবর