২৫ সেপ্টেম্বর ,মঙ্গলবার, ২০১৮

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> বিবিধ

 

নাটোর প্রতিনিধি

৯ আগস্ট ,বৃহস্পতিবার, ২০১৮ ১৬:৩৩:৫৬

নাটোরে কোরবানির পশু বিক্রির জন্য প্রস্তুত খামারিরা


নাটোরে কোরবানির পশু বিক্রির জন্য প্রস্তুত খামারিরা

বিক্রির জন্য প্রস্তুত করা গরু।


কোরবানি ঈদ সামনে রেখে নাটোরে চাহিদার তুলনায় বেশি গরু মোটা তাজা করে প্রস্তুত করা হয়েছে। স্থানীয় প্রয়োজন মিটিয়ে অবশিষ্ট গরু দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা হচ্ছে। খামারি ও ব্যক্তিগতভাবে এসব গরু মোটা তাজা করা হয়েছে। দেশি ও সাধারণ খাবার খাওয়ানো এসব গরু বেশ জনপ্রিয়ও হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যে বেচাকেনাও শুরু হয়েছে। বেপারী বা গরু ব্যবসায়ীরা বাড়ি বাড়ি বা খামার থেকেই গরু কিনে নিয়ে যাচ্ছে।

জেলা প্রাণি সম্পদ অফিস সূত্রে জানা যায়, নাটোরে এবার কোরবানির জন্য ১ লাখ ৩২ হাজার পশুর প্রয়োজন হবে। তবে গরু মোটা তাজা করে প্রস্তুত করা হয়েছে ৩ লাখ ৫ হাজার ৫১২টি। এ বছর জেলায় ৫৪৪টি বাণিজ্যিক খামারসহ বাড়ি বাড়ি ব্যক্তি উদ্যোগে এসব দেশি ও বিদেশি জাতের গরু লালন পালন করা হয়েছে। বর্তমানে এসব খামারসহ বিভিন্ন বাড়িতে বিক্রির উপযোগী মজুদ পশুর সংখ্যার মধ্যে ষাঁড় ৫১ হাজার ৫৩৭টি, বলদ ১০ হাজার ৮২৪টি, গাভী (বকনা) ১৫ হাজার ৭৭৩টি, ছাগল ১ লাখ ৯৫ হাজার ৪১৩টি, ভেড়া ২৯ হাজার ৪৮৯টি ও মহিষ রয়েছে এক হাজার ৪৭৫টি।

গত বছর ২ লাখ ৩৭ হাজার ২৯৭টি পশু কোরবানির জন্য লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও সেখানে ১ লাখ ৩২ হাজার কোরবানির পশু জবাই করা হয়েছিল। তবে এবার গত বছরের তুলনায় ৬৮ হাজার ২১৫ টি বেশি পশু লালন-পালন করা হয়েছে। এছাড়া এবারে চাহিদার তুলায় প্রায় ১ লাখ ৩৪ হাজার পশু চাহিদার তুলনায় বেশি লালন-পালন করা হয়েছে।

সদর উপজেলার ডালসড়ক এলাকার রেকাত আলী বলেন, তিনি গত মৌসুমে ৩০ হাজার গরু লালন পালন করে মোটা তাজা করেছিলেন। এবার এক লাখ দুইটি গরু লালন পালন করেছেন। গরুগুলো বিভিন্ন গ্রাম গঞ্জ ও হাটে ঘুরে ঘুরে কিনেছেন। এসব গরুর অধিকাংশই বিদেশি জাতের। তিনি প্রায় এক বছর ধরে দেশীয় সাধারণ খাবার যেমন খোল, ভূসি, কাঁচা ঘাস খাইয়ে মোটা করেছেন। গরু পালনের জন্য ২০ বিঘা জমিতে ঘাস আবাদ করেছেন।

তিনি দাবি করেন কোনো ওষুধ, স্টেরওয়েড, ফিড বা রাসায়নিক খাদ্য ব্যবহার না করে দেশি খাবার খাইয়ে দেশি বিদেশি সব জাতের গরুকে মোটা তাজা করা সম্ভব।

দিঘাপতিয়া গ্রামের সানোয়ার হোসেন জানান, কোরবানির জন্য দেশি গরুর চাহিদা বেশি হলেও কোনো কোনো ক্রেতা বিদেশি জাতের গরু পছন্দ করে। দেশি গরুর পাশাপাশি তিনি প্রায় দুই মাস ঘুরে বিদেশি জাতের গরু যেমন- উলু বারের ষাঁড়, নেপালী ও পাকিস্তানি শাহী গরু কিনে লালন-পালন করে মোটা করেছেন। কেবল দেশি খাবার খাইয়ে এসব গরু মোটা করেছেন। স্থানীয় প্রাণি সম্পদ বিভাগের পরামর্শে তারা এসব গরুকে দেশি খাবার খাইয়েছেন।

সিংড়া উপজেলার বড়বাড়ি গ্রামের মাজদার হোসেন জানান, তিনি বাড়িতেই চারটি গরু লালন-পালন করে বড় করেছেন কোরবানির হাটে বিক্রির জন্য। খোল ভূসি ঘাসসহ দেশি খাবার খাইয়ে এসব গরু পালন করেছেন। দেশি খাবার খাইয়েই মোটা করেছেন। কোনো ওষুধ বা রাসায়নিক কিছুই খাওয়াননি। দেশি খাবার খাইয়ে মোটা তাজা করার কারণে নাটোরের পশুর কদর বেশি। ঢাকা, চট্টগ্রাম ও কুষ্টিয়া, যশোরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মৌসুম শুরুর অনেক আগে বেপারীরা এসে নাটোর থেকে গরু কিনে নিয়ে যায়।

কুষ্টিয়া থেকে আসা বেপারি রিয়াকত মন্ডল জানান, কুষ্টিয়ার ক্রেতাদের কাছে এখানকার লালন-পালন করা গরুর কদর রয়েছে। এছাড়া ঢাকা ও চট্টগ্রামের ক্রেতারাও পছন্দ করেন। শুধু দেশি খাবর খাইয়ে লালন-পালন করে গরু এমন নজর কাড়া হয় বলেই এখানকার গরুর যেমন কদর রয়েছে, তেমনি সুনামও আছে। তবে গরুর ন্যায্য দাম নিশ্চিতে ভারত থেকে গরু আমদানির উপর নজরদারির দাবি করেন তিনি।

নাটোর জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. বেলাল হোসেন জানান, নাটোরে এবার চাহিদার বেশি পশু কোরবানির জন্য তৈরি করা হয়েছে। পাঁচ শতাধিক খামারিসহ ব্যক্তিগতভাবে এসব পশু লালন-পালন করা হয়েছে শুধু কোরবানি ঈদ সামনে রেখে। এসব গরুকে দেশি খাবার ও কাঁচা ঘাস খাইয়ে মোটা তাজা করা হয়েছে বলেও তিনি দাবি করেন তিনি। তবে অবৈধ পন্থায় কেউ যাতে গরু মোটাতাজা করতে না পারে সে জন্য প্রতিটি খামারে নজরদারি রয়েছে বলেও জানান তিনি। গত বছরের মতো এবারও চাহিদার তুলনায় বেশি পশু লালন-পালন করা হয়েছে। উদ্বৃত্ত গরু ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্রির জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে বেপারিরা নাটোরে এসে খামার থেকে কিনে নিয়ে যাচ্ছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/নাসিম/তৌহিদ)


৫% সুদে মিলবে ৭৫ লাখ টাকা ঋণ
শনিবার সমাবেশ করবে বিএনপি: রিজভী
২৫০ উইকেটের মালিক মাশরাফি
জঙ্গি ও পাক সেনাদের সংঘর্ষে নিহত ১৬
দাঁড়িয়ে থাকা অটোরিকশায় ট্রাক ধাক্কা নিহত ৪
ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছে শাহজাদ
ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ হলেন মদ্রিচ
রোহিঙ্গা সংকটে জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর তিন দফা
রাজধানীতে ৩ দিনব্যাপী বিমান ট্যুরিজম ফেস্ট
‘পাকিস্তান পরাশক্তির কাছে মাথানত করে না’
ট্রেনের ছাদ থেকে ছাত্রকে ফেলে দিল দুর্বৃত্তরা
তাপে পাকানো হয় কদবেল, নষ্ট হচ্ছে গুণাগুণ!
‘জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ করার অধিকার নেই’
‘দলের শৃঙ্খলা ভাঙলে বরদাশত করা হবে না’
নেত্রকোনায় মাথাবিহীন শিশুর জন্ম!
ট্রাম্পের কথা রাখল না ওপেক
বাগানে মিলল দু’মাথাওয়ালা সাপ
সাগরে ভেসে ৪৯ দিন বেঁচে ছিল এই তরুণ
মোটরসাইকেলে ওড়না পেঁচিয়ে আ.লীগ নেত্রীর মৃত্যু
‘বাবার মৃত্যু ক্রিকেট ক্যারিয়ার পাল্টে দিয়েছে’
৫% সুদে মিলবে ৭৫ লাখ টাকা ঋণ
ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
শনিবার সমাবেশ করবে বিএনপি: রিজভী
২৫০ উইকেটের মালিক মাশরাফি
মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে দুই কিশোরী ধর্ষণ
ইসরাইলি সেনার গুলিতে ফিলিস্তিনি যুবক নিহত
জঙ্গি ও পাক সেনাদের সংঘর্ষে নিহত ১৬
দাঁড়িয়ে থাকা অটোরিকশায় ট্রাক ধাক্কা নিহত ৪
ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছে শাহজাদ
প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটে কেবিন ক্রুর মদপান
ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ হলেন মদ্রিচ
রোহিঙ্গা সংকটে জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর তিন দফা
রাজধানীতে ৩ দিনব্যাপী বিমান ট্যুরিজম ফেস্ট
‘পাকিস্তান পরাশক্তির কাছে মাথানত করে না’
ট্রেনের ছাদ থেকে ছাত্রকে ফেলে দিল দুর্বৃত্তরা
তাপে পাকানো হয় কদবেল, নষ্ট হচ্ছে গুণাগুণ!
‘জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ করার অধিকার নেই’
‘দলের শৃঙ্খলা ভাঙলে বরদাশত করা হবে না’
নেত্রকোনায় মাথাবিহীন শিশুর জন্ম!
ট্রাম্পের কথা রাখল না ওপেক
কাবা শরীফের ভেতরে ঢুকলেন ইমরান খান(ভিডিও)
আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ
শিক্ষক হলেন হাছান মাহমুদ, পড়াবেন জাহাঙ্গীরনগরে
‘দলের শৃঙ্খলা ভাঙলে বরদাশত করা হবে না’
‘মন্ত্রীর পা ধরেও সড়কের কাজ শুরু করা যায় নি’
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার
ইসরাইলকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি
ওমরাহ ভিসায় সৌদি ভ্রমণে বিশেষ ছাড়
প্রধান শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী অজ্ঞান!
ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি
সুন্দরী তরুণীদের ধর্ষণ ও হত্যা করাই তার কাজ
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে ৯ দালাল আটক
রোববার চালু হচ্ছে সিম্ফোনির কারখানা 
এক অবিশ্বাস্য জয় এনে দিলেন মোস্তাফিজ
যেসব নারীকে বিবাহ করা হারাম
সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে প্রবাসীর স্ত্রী
নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন সেই খুনি শম্ভুলাল(ভিডিও)
ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় নিহত বেড়ে ২৪
‘নারীর লজ্জাস্থানে মাদকের কারবার’
নওগাঁয় প্রতারক চক্রের ৪ যুবতী ও তাদের সহযোগী আটক

সব খবর