২৪ সেপ্টেম্বর ,সোমবার, ২০১৮

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> সুখবর

 

ফাতেমা জান্নাত মুমু  • রাঙামাটি

৪ সেপ্টেম্বর ,মঙ্গলবার, ২০১৮ ২৩:২৪:৫৭

পাহাড়ে বিলাতি ধনিয়ার বাম্পার ফলন


পাহাড়ে বিলাতি ধনিয়ার বাম্পার ফলন

চলতি বছর রাঙামাটিতে বিলাতি ধনিয়া পাতার বাম্পার ফলন হয়েছে


পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে বিলাতি ধনিয়া পাতার বাম্পার ফলন হয়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে উৎপাদিত এ বিলাতি ধনিয়া পাতার গন্ধ কড়া। পাতা চ্যাপ্টা, সবুজ ও ভারি। দু'পাশে খাঁজকাটা ও দেখতে খুবই আকর্ষণীয়।

সাধারণত এ গাছের পাতা লম্বায় ১৫ থেকে ২০ সেন্টিমিটার ও চ্যাপ্টায় ২ থেকে ৩ সেন্টিমিটার হয়ে থাকে। এক বার বীজ বুনলে বেঁচে থাকে কয়েক বছর। তাই বার বার ফলন সংগ্রহ করা যায়। গাছগুলো পর্যাপ্ত বড় হলে কৃষকরা ছোট ছোট আঁটি বেঁধে রাজারজাত করে। পাহাড়ে বিলাতি ধনিয়া পাতার চাহিদা অনেক। তাই লাভবান হচ্ছেন বিলাতি ধনিয়া পাতার চাষীরা। কম খরচ, অধিক ফলন, বেশি লাভ। ফলে বিলাতি ধনিয়া চাষে আগ্রহ বেড়েছে অন্যান্য কৃষকদেরও। 

রাঙামাটি কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, জেলার প্রত্যন্ত ও দুর্গম উপজেলা সাপছড়ি, কাপ্তাই, ওয়াগ্গা, তঞ্চঙ্গ্যা পাড়া ও শীলছড়ি মারমা পাড়াসহ বিভিন্ন পাহাড়ি এলাকায় বিলাতি ধনিয়ার ব্যাপক চাষ হয়েছে। এ বিলাতি ধনিয়াপাতা চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছে অনেক কৃষক পরিবার। পাহাড়ের আনাচে-কানাচে, ঢালে ও পাদদেশে বিলাতি ধনিয়া পাতা চাষ করেছে চাষীরা। ফলনও হয়েছে বাম্পার। এ পাতা চাষ করে আর্থিকভাবে সচ্ছলতা অর্জন করেছেন অনেক কৃষি পরিবার। স্থানীয় বাজারে পাহাড়ে উৎপাদিত বিলাতি ধনিয়ার চাহিদা অনেক। অধিক ফলনের কারণে ক্রেতাদের জন্য বিলাতি ধনিয়ার দাম যেমন সহনশীল, তেমনি চাষীরাও ভালো দাম পাচ্ছে। উচ্চ বাজারমূল্যে ও অধিক আয়ের কারণে রাঙামাটিতে তাই বাড়ছে বিলাতি ধনিয়া পাতার চাষ। 

জানা যায়, একটা সময় পাহাড়ে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের মধ্যে শুধুমাত্র তঞ্চঙ্গ্যা সম্প্রদায় বিলাতি ধনিয়া পাতার চাষ করতো। কিন্তু কালের বিবর্তনে আগ্রহ বেড়েছে অন্যান্য সম্প্রদায়ের কৃষকের মধ্যেও। তাই রাঙামাটিতে সব মৌসুমে পাওয়া যাচ্ছে বিলাতি ধনিয়া পাতা। 

রাঙামাটির কাপ্তাই সড়কের ওয়াগ্গা এলাকার চাষী কিরণ বালা চাকমা জানান, ‘অল্প পুঁজি, বেশি লাভ। বিভিন্ন সবজির পাশাপাশি চাষ করা যায় এ বিলাতি ধনিয়া পাতা। সহজ পদ্ধতিতে চাষ করা সম্ভব। তাই কৃষকদের মধ্যে এর চাহিদা বাড়ছে।’

তবে তার ভাষ্য, এবার বিলাতি ধনিয়া পাতার ফলন ভালো হলেও উৎপাদন খরচ অনুযায়ী বাজার মূল্য অনেকটাই কম। তাছাড়া ছত্রাকের আক্রমণে অনেক ধনিয়া পাতা নষ্ট হয়ে গেছে।
 
অন্যদিকে, রাঙামাটি কৃষি বিভাগ বলছে, অতিরিক্ত তাপদাহের কারণে বিলাতি ধনিয়া পাতায় যে রোগ দেখা দিয়েছে তা ছত্রাকজনিত। এ সমস্যা সমাধানে ইতোমধ্যে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতার হাত বড়িয়ে দেয়া হয়েছে। পাহাড়ের মাটি ও আবহাওয়া উপযুক্ত থাকায় বিলাতি ধনিয়া চাষে সফলতা এসছে। তাছাড়া ফলনও ভালো হয়েছে। 

রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পবন কুমার চাকমা বলেন, বিলাতি ধনিয়া পাহাড়ি অঞ্চলে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। পাহাড়ের কৃষাণ-কৃষাণীরা যাতে বিলাতি ধনিয়া চাষ করে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হতে পারে, সেজন্য রাঙামাটি জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করছে। 

তাছাড়া এ ধনিয়াতে তেমন কোনো রোগবালাই দেখা যায় না। সম্প্রতি অতিরিক্ত গরম ও তাপ দেহের কারণে বিলাতি ধনিয়া পাতায় ছত্রাকজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এ সমস্যা সমাধানে মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন কৃষি কর্মকর্তারা। 

গেল ৫ বছরের রাঙামাটিতে ২৩০হেক্টর জমিতে বিলাতি ধনিয়া পাতার চাষ হয়েছে। সামনে এ চাষ আরও বাড়তে পারে বলে বিশ্বাস জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের।

 

মুমু▐ অরিন▐ NEWS24


মরণোত্তর স্তন দান করলেন রাখি সাওয়ান্ত (ভিডিও)
ইন্দোনেশিয়ার আকাশে এলিয়েন? (ভিডিও)
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
মেহেদীর রং লাগানো গেল না ফাহিমার হাতে
জিততে আফগানদের টার্গেট ২৫০
ভারতকে ২৩৮ রানের টার্গেট পাকিস্তানের
হাজীদের সেবাতেই আত্মতৃপ্তি তাদের
‘যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সঙ্গে লড়াইয়ে প্রস্তুত ইরান’
কিশোরগঞ্জে বাসচাপায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৩
নওগাঁয় প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের অভিযোগ
শোয়েব-সরফরাজে এগুচ্ছে পাকিস্তান
৫ উইকেট হারিয়ে মহা বিপর্যয়ে বাংলাদেশ
শান্তর পর মিঠুনও আউট
টস জিতে ব্যাটিংয়ে সরফরাজরা
টস জিতে ব্যাটিংয়ে টাইগাররা
বাড্ডায় বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত
তরুণীর গোপনাঙ্গে মরিচের গুঁড়া দিল লম্পটরা
দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ
নেত্রকোনায় মাদক মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন
সাতক্ষীরায় অতিরিক্ত মদপানে প্রাণ গেল যুবকের
মরণোত্তর স্তন দান করলেন রাখি সাওয়ান্ত (ভিডিও)
ইন্দোনেশিয়ার আকাশে এলিয়েন? (ভিডিও)
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
মেহেদীর রং লাগানো গেল না ফাহিমার হাতে
জিততে আফগানদের টার্গেট ২৫০
ভারতকে ২৩৮ রানের টার্গেট পাকিস্তানের
হাজীদের সেবাতেই আত্মতৃপ্তি তাদের
‘যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সঙ্গে লড়াইয়ে প্রস্তুত ইরান’
কিশোরগঞ্জে বাসচাপায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৩
নওগাঁয় প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের অভিযোগ
শোয়েব-সরফরাজে এগুচ্ছে পাকিস্তান
৫ উইকেট হারিয়ে মহা বিপর্যয়ে বাংলাদেশ
শান্তর পর মিঠুনও আউট
টস জিতে ব্যাটিংয়ে সরফরাজরা
টস জিতে ব্যাটিংয়ে টাইগাররা
বাড্ডায় বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত
তরুণীর গোপনাঙ্গে মরিচের গুঁড়া দিল লম্পটরা
দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ
নেত্রকোনায় মাদক মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন
সাতক্ষীরায় অতিরিক্ত মদপানে প্রাণ গেল যুবকের
কাবা শরীফের ভেতরে ঢুকলেন ইমরান খান(ভিডিও)
আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ
আ.লীগ-বিএনপির ৪০০ নেতার শপথ
শিক্ষক হলেন হাছান মাহমুদ, পড়াবেন জাহাঙ্গীরনগরে
‘মন্ত্রীর পা ধরেও সড়কের কাজ শুরু করা যায় নি’
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার
ইসরাইলকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি
ওমরাহ ভিসায় সৌদি ভ্রমণে বিশেষ ছাড়
প্রধান শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী অজ্ঞান!
ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি
সুন্দরী তরুণীদের ধর্ষণ ও হত্যা করাই তার কাজ
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে ৯ দালাল আটক
রোববার চালু হচ্ছে সিম্ফোনির কারখানা 
ময়মনসিংহ মেডিকেলের শিক্ষার্থী ভুটানের প্রধানমন্ত্রী!
যেসব নারীকে বিবাহ করা হারাম
নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন সেই খুনি শম্ভুলাল(ভিডিও)
সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে প্রবাসীর স্ত্রী
মেয়ে অসুস্থ দেশে ফিরছেন শাকিব
ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় নিহত বেড়ে ২৪
নওগাঁয় প্রতারক চক্রের ৪ যুবতী ও তাদের সহযোগী আটক

সব খবর