১৯ এপ্রিল ,শুক্রবার, ২০১৯

শিরোনাম

> প্রবাস

 

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক

৬ সেপ্টেম্বর ,বৃহস্পতিবার, ২০১৮ ১২:৩১:৪৮

জাতিসংঘে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম

'রোহিঙ্গা সমস্যায় বিশ্বে মানবিক সঙ্কট ব্যবস্থাপনা ব্যয় বেড়েছে'


 'রোহিঙ্গা সমস্যায় বিশ্বে মানবিক সঙ্কট ব্যবস্থাপনা ব্যয় বেড়েছে'

'রোহিঙ্গা সমস্যার কারণে বিশ্বে মানবিক সঙ্কট ব্যবস্থাপনা ব্যয় বেড়েছে'



'বৈশ্বিক মানবিক চাহিদা অনুযায়ী ২০১৭ সালে বৈশ্বিক সঙ্কট ব্যবস্থাপনায় মানবিক ও অর্থনৈতিক ব্যয় ২৩.৫ বিলিয়নে পৌঁছেছে, যা ছিল সর্বোচ্চ। আর মিয়ানমারের সাথে আমাদের সীমান্ত এলাকায় এ যাবতকালের মধ্যে সংঘটিত সর্বাপেক্ষা বড় মানবিক বিপর্যয় অর্থাৎ প্রায় এক মিলিয়ন রোহিঙ্গার বাংলাদেশে মানবিক আশ্রয়দানের কারণে মানবিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পরিবেশগত ক্ষেত্রে ভয়াবাহ বিপর্যয়ের পাশাপাশি এই ব্যয় আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে।'

জাতিসংঘ সদরদপ্তরে গতকাল বুধবার ‘শান্তির সংস্কৃতি’ বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের ফোরামের সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলম এমপি।

সাধারণ পরিষদে ১৯৭৪ সালে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রদত্ত ভাষণের বৈশ্বিক শান্তি বিষয়ক উদ্বৃতি দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, মানবজাতির অস্তিত্ব রক্ষার জন্য শান্তি একান্ত দরকার। এই শান্তির মধ্যে সারাবিশ্বের সকল নর-নারীর গভীর আশা-আকাঙ্খার মূর্ত হয়ে রয়েছে। তিনি বলেন, সকলের সাথে বন্ধুত্ব, কারও সাথে বৈরিতা নয়- আমাদের পররাষ্ট্র নীতির এই মূলমন্ত্র থেকে উদ্বুদ্ধ হয়ে বাংলাদেশ জন্মলগ্ন থেকেই শান্তির সংস্কৃতির প্রবক্তা।

‘শান্তির সংস্কৃতি’ প্রস্তাবটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রথম মেয়াদের সরকারের সময় জাতিসংঘে উত্থাপন করা হয় মর্মে জানান প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। তিনি বলেন, “বাংলাদেশের এই প্রস্তাব ১৯৯৭ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের এজেন্ডাভুক্ত হয়, যা ১৯৯৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ‘ডিকারেশন অ্যান্ড প্রোগ্রাম অব অ্যাকশান অন কালচার অব পিস’ শিরোনামে ৫৩/২৪৩ নম্বর রেজুলেশন হিসাবে সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়”। আসন্ন ৭৩তম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যখন রেজ্যুলেশনটির ফলোআপ করা হবে তখন সকল সদস্য রাষ্ট্র ১৯৯৯ সালে গৃহীত এই ডিকারেশনের ২০ বছর পূর্ণ করবে মর্মে প্রত্যাশার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী। এ বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়ার জন্য তিনি সদস্য রাষ্ট্রসমূহের প্রতি আহ্বান জানান।


 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশ সবময়ই জাতিসংঘের ‘শান্তির সংস্কৃতি’ ও ‘টেকসই শান্তি’ বিষয়ক পদক্ষেপে নিবেদিত রয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে অর্থাৎ এবছর এপ্রিলে আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘শান্তি বিনির্মাণ ও টেকসই শান্তি’ বিষয়ক জাতিসংঘের উচ্চ পর্যায়ের সভায় বাংলাদেশ ডেলিগেশনের নেতৃত্ব দেন। এর আগে মার্চে লিথুনিয়াকে সাথে নিয়ে আমরা একই বিষয়ে সাধারণ পরিষদের রেজুলেশন কো-ফ্যাসিলেটেট করেছি”। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শান্তির সংস্কৃতির অত্যুৎসাহী একজন প্রবক্তা হিসেবে সদ্য প্রয়াত জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের অবদান গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন।

এতে আরও বক্তব্য রাখেন নবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী ইউনেস্কোর শুভেচ্ছা দূত ড. রিগোবার্তা মেনচু তুম। স্বাগত ভাষণ দেন জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি মিরোস্লাভ লাইচ্যাক। জাতিসংঘ মহাসচিবের পক্ষে বক্তব্য রাখেন তাঁর শেফ দ্যা কেবিনেট মারিয়া লুইজা রিবেইরো ভিয়োট্টি।

শান্তির সংস্কৃতি বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের এই ফোরামের দিনব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিকালে ‘শান্তির সংস্কৃতি: টেকসই শান্তির নিশ্চিত পথ’ শিরোনামে একটি প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

এ আলোচনায় অংশ নেন জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল রোজম্যারি এ ডিকারলো, মেক্সিকোর স্থায়ী প্রতিনিধি জুয়ান জোসে গোমেজ ক্যামাচো, কেনিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি লাজারুস ওমবাই অ্যামায়ও, প্রখ্যাত শান্তি বিষয়ক শিক্ষাবিদ মারিয়ে পাওলি রোওডিল এবং অধ্যাপক র‌্যাচেল অ্যালেন। প্যানেল আলোচনাটিতে সিভিল সোসাইটির ব্যাপক উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। প্যানেল আলোচনা অংশের মডারেটর ছিলেন জাতিসংঘের সাবেক আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত আনোয়ারুল করিম চৌধুরী।

দিনব্যাপী আয়োজিত এই আলোচনা অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্যও দেন জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি মিরোস্লাভ লাইচ্যাক। তাঁর পক্ষ থেকে এই সাধারণ আলোচনার উপর একটি সার-সংক্ষেপও তৈরি করা হবে।

 

কামরুল▐ NEWS24


নুসরাত হত্যা: আ.লীগের সভাপতি রুহুল আমিন আটক
আকারও সমকামী বিয়ে করলেন দুই ক্রিকেটার
যমুনা নদীতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
'আ.লীগকে তৃণমূল থেকে নতুন করে সাজানো হবে'
১০ টাকায় টিকিটে চিকিৎসা নিলেন প্রধানমন্ত্রী
জেক্সকা হেলথ কেয়ার কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
টিভি দেখতে গিয়ে প্রতিবন্ধী তরুণী ধর্ষিত
সেফাত উল্লাহকে ধরিয়ে দিতে পারলে দুই লাখ টাকা পুরস্কার
‘শপথ নেওয়ার তো প্রশ্নই আসে না’
প্রশ্নপত্রে পর্নতারকাদের নামের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী
পৃথিবীর কক্ষপথে মার্কিন কৃত্রিম উপগ্রহ!
স্বামীর বাড়ি বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার মেয়ে
গণধর্ষণ মামলার আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন
খালেদা জিয়া শক্তি ও প্রেরণার উৎস, বললেন ফখরুল
দুই কিশোরীকে দুই রাত ধরে ধর্ষণ, আটক ৪
বরিশালে দলিল লেখককে খুন
গাজীপুরে র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলি, নিহত ১
বগুড়ায় ‘ভাড়াটে খুনি’ স্বর্গ ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
সাড়ে তিন লাখ মানুষের সেবায় তিন চিকিৎসক
ইয়াবাসহ কনস্টেবল আটক
নুসরাত হত্যা: আ.লীগের সভাপতি রুহুল আমিন আটক
আকারও সমকামী বিয়ে করলেন দুই ক্রিকেটার
যমুনা নদীতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
'আ.লীগকে তৃণমূল থেকে নতুন করে সাজানো হবে'
১০ টাকায় টিকিটে চিকিৎসা নিলেন প্রধানমন্ত্রী
জেক্সকা হেলথ কেয়ার কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
টিভি দেখতে গিয়ে প্রতিবন্ধী তরুণী ধর্ষিত
সেফাত উল্লাহকে ধরিয়ে দিতে পারলে দুই লাখ টাকা পুরস্কার
‘শপথ নেওয়ার তো প্রশ্নই আসে না’
প্রশ্নপত্রে পর্নতারকাদের নামের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী
পৃথিবীর কক্ষপথে মার্কিন কৃত্রিম উপগ্রহ!
স্বামীর বাড়ি বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার মেয়ে
গণধর্ষণ মামলার আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন
খালেদা জিয়া শক্তি ও প্রেরণার উৎস, বললেন ফখরুল
দুই কিশোরীকে দুই রাত ধরে ধর্ষণ, আটক ৪
বরিশালে দলিল লেখককে খুন
গাজীপুরে র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলি, নিহত ১
বগুড়ায় ‘ভাড়াটে খুনি’ স্বর্গ ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
সাড়ে তিন লাখ মানুষের সেবায় তিন চিকিৎসক
ইয়াবাসহ কনস্টেবল আটক
নুসরাত হত্যা, মাদ্রাসার ছাত্রলীগের সভাপতি শামীম গ্রেপ্তার
‘নুসরাত ধোয়া তুলসী পাতা না’
স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ৫
৭ সন্তান প্রসব করলেন এক নারী, জীবিত নেই কেউ  
চলন্ত গাড়িতে নগ্ন তিন তরুণীকে ধাওয়া!
কোরআন শরীফকে অবমাননা করায় সেফুদার ফাঁসি দাবি
সিরাজের কক্ষে ঢোকার নিয়ম ছিল একজন শিক্ষার্থীর
‘পুরো পাকিস্তান’ এখন ভারতীয় ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায়
ওই মাদ্রাসায় নুসরাতের নামে হবে রাস্তা ও ভবন
নাইটক্লাব থেকে ১২ নেপালি তরুণী উদ্ধার
গরু ধর্ষণকালে হাতেনাতে ধরা যুবক!
নুসরাতকে পুড়িয়ে পরীক্ষা দেয় ওই দুই ছাত্রী
মুখে গামছা পেঁচিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, ইমাম গ্রেপ্তার
নগ্ন অবস্থায় বাথরুম থেকে বের করে আমাকে নির্যাতন করে: মিলা
‘দুই ছাত্র ও দুই ছাত্রী রাফির গায়ে আগুন দেয়’
কোনাবাড়িতে কলেজছাত্রীকে ছুরি আঘাতে হত্যা
ফেনীর পর লালমনিরহাটেও কেরোসিন ঢেলে হত্যা
সাবেক রেলমন্ত্রীর নববর্ষ উদযাপনের ছবি ভাইরাল
‘পরকীয়ার’ টানে গিয়ে গৃহবধূ ‘গণধর্ষণ’!
ঘুমন্ত নারীকে ‌‘ধর্ষণ করে’ ফেঁসে গেলেন ক্রিকেটার!

সব খবর