২০ জানুয়ারী ,রবিবার, ২০১৯

শিরোনাম

> সোশ্যাল মিডিয়া

 

মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি

৬ সেপ্টেম্বর ,বৃহস্পতিবার, ২০১৮ ১২:২৩:৪৩

ব্রা এবং তার একটি ফিতা


ব্রা এবং তার একটি ফিতা

মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি


মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি নিজ গুণে বিশ্বের বুকে নিজেকে চিনিয়েছেন। সেই সঙ্গে সুনাম বয়ে এনেছেন দেশের জন্য। আয়ারল্যান্ডে বসবাসরত বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত প্রিয়তি একাধারে পাইলট, অভিনেত্রী, মডেল, পোল ড্যান্সার, স্ক্রিন রাইটার, সাবেক মিস আর্থ ইন্টারন্যাশনাল, মিস আয়ারল্যান্ড, ইন্টারন্যাশনাল বিউটি কুইন ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিচারক। এখনো নিয়মিত একের পর এক আন্তর্জাতিক অ্যাওয়ার্ড যুক্ত হচ্ছে তার ঝুলিতে। প্রচণ্ড স্পষ্টবাদী একজন মানুষ। মনে যা আসে, যেটা বিশ্বাস করেন, তাই অকপটে বলে ফেলেন, তাতে কে কী মনে করলো সেটা নিয়ে ভাবেন না। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাকে মাঝেমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হতে দেখা যায়। সমাজের যেসব বিষয় অসামঞ্জস্যপূর্ণ ও ঠিক নয় বলে তিনি মনে করেন, তা নিয়ে প্রতিবাদ জানান। প্রশ্ন তোলেন। অনেকে তার প্রশ্ন ও যুক্তিকে স্বাগত জানান, কেউ আবার পাল্টা যুক্তি দেখান। আজও একটি বিষয় নিয়ে ফেসবুকে প্রশ্ন তুলেছেন প্রিয়তি। এবারকার বিষয় 'অন্তর্বাস নিয়ে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি'। অনেকেই তার যুক্তিকে অকাট্য বলে মন্তব্য করেছেন। কেউ কেউ পাল্টা যুক্তি দেখিয়েছেন। প্রিয়তির স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

''নারীরা শরীরের কোন অঙ্গ গোপন করার জন্য ব্রা বা ব্রেসিয়ার পরিধান করে না, একইভাবে পুরুষেরাও আন্ডারওয়্যার পরিধান করে না তাদের গোপন অঙ্গ ঢাকার জন্য। যেই পোশাকটি আমি, আপনি সবাই প্রতিদিন পরিধান করি,তা দিয়েই তো শরীরের গোপনাঙ্গ-সহ বেশিরভাগ অঙ্গ ঢাকা পড়ে। তার পরেও আমরা বাড়তি একটা কাপড় কেন পরি? আমার ছোট্ট মাথায় উত্তরটা সিম্পল। পুরুষেরা আন্ডারওয়্যার পরেন যেন কোন কারণে প্রসাবের ফোঁটা পড়ে তিনি যেই প্যান্টটি পরিধান করে আছেন তা নষ্ট না হয়, তাতে তিনি যেন মানুষের সামনে বিব্রত না হন, চামড়ায় কোনভাবে যেন ব্যাথা না পান এবং সাথে বাইরে থেকে বডি সেইপ যেন প্রেজেন্ট্যাবল থাকে। ঠিক-ঠাক সুশীল ও পরিছন্ন লাগে, যাতে বিব্রত বোধ না করেন।

একইভাবে নারীরা যে ব্রা পরিধান করছেন, তিনি যেই পোশাকটি পরে আছেন, তাতে সাপোর্ট দেয়ার জন্য, যাতে তিনি যেই পোশাকটি গায়ে পরিধান করেছেন, তা বাইরে থেকে দেখতে ভালো লাগে, বডি সেইপ যেন দেখতে কটু বা অশালীন না লাগে। আফটার অল, আমরা সবাই তো যে কোনো পোশাকই পরিধান করি না কেন, প্রথমত লজ্জা নিবারনের জন্য, দ্বিতীয়ত দেখতে ভালো লাগার জন্য।

এখন, আমার প্রশ্ন হচ্ছে, এই ব্রা যেখানে পোশাকের শুধুই একটি অংশ, সেখানে কোন নারী পরিধান করা অবস্থায় ব্রা এর ফিতা বা ব্রা এর কোন অংশ কোন কারণে দেখা গেলে বা বের হয়ে গেলে বা কেউ বের করে রাখলে এতো কানাঘুষা, হাসাহাসি, মন্দ কথা, টিটকারি করার মানে কি? আর এটি শুধুমাত্র এই সাউথ এশিয়া উপমহাদেশের দেশগুলোতেই হয়, পৃথিবীর অন্য কোন দেশে ব্রা এর ফিতা বের হয়ে থাকলে এতো বাজে কথা বা সমালোচনা শুনতে হয় না যে, '' দেখ দেখ ওই মেয়েটার না ব্রা এর ফিতাটা বের হয়ে আছে, বাজে মেয়ে (বাজে মেয়ের লেবেল লাগিয়ে দিলাম)। অথবা ভাবী, আপনার না ব্লাউজ এর ভিতর দিয়ে ব্রা বের হয়ে আছে। আমি অশিক্ষিত মানুষগুলোর দোষ দিবো না কারণ তারা জানেই না পৃথিবী কোন গতিতে চলছে , নাই কোন ধরনের জ্ঞান, কিন্তু শিক্ষিত সমাজের শিক্ষিত মানুষগুলো ??  উনাদের মস্তিষ্ক কেন এক জায়গায় আটকানো? ভাবতে পারেন, আমাদের Thought Process (ধ্যান-ধারণা) আমরা কোন দিকে Divert (নিয়ে যাচ্ছি) করছি? আমাদের কি নিজেদের ওই ক্ষমতা নেই যে আমাদের মস্তিষ্ককে ট্রেইন করবো, যে ব্রা বা আন্ডারওয়্যার শুধুই আমাদের নিত্যদিনের পোশাকের একটি অংশ, অন্যান্য প্যান্ট, শার্ট, ওড়না, শাড়ির মতো? ফিতা বের না হয়ে থাকলে কি আপনি আমি জানতাম না যে নারীটি ব্রা পরে আছে কি নেই? বা আন্ডার গার্মেন্টস পরে আছে কি নেই?

বি. দ্র. খোলামেলা পোশাক পরা আর ব্রা, এই দুইটি ভিন্ন টপিক, দু'টিকে মিলিয়ে আমার লেখার বিষয়বস্তুকে গুলিয়ে ফেলবেন না আশা করি।''

(লেখাটি মাকসুদা আক্তার প্রিয়তির ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে সংগৃহীত।)


নির্বাচনকে ‘জায়েজ’ করার উৎসব হাস্যকর: রিজভী
‘ইভিএম’ নয়, ‘চোর মেশিন’
মেঘনায় ট্রলারডুবি: সকালের পর ‍দুপুরের মিলল লাশ
মেঘনায় ট্রলারডুবি: একজনের লাশ উদ্ধার
‘মাদকসেবি’ চালকের কারণে নিহত ২৮
মাদকসেবি বহনকারী মাইক্রোবাস খাদে, নিহত ৪
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত
জাকির নায়েকের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত
বরফভেদী জাহাজ বানাল রাশিয়া
সালাহ’র জোড়া গোলে লিভারপুলের জয়
ভূমধ্যসাগরে জাহাজডুবি, ১৭০ অভিবাসীর মৃত্যু
গাজীপুরে গ্রেপ্তার তিন ডাকাতের স্বীকারোক্তি
খাগড়াছড়িতে যুবককে গুলি করে হত্যা
ইসরাইলকে মাহাথিরের ‘চপেটাঘাত’
মেক্সিকোয় নিহত বেড়ে ৬৬
ভারতে সাজা শেষে দেশে ফিরল ২১ বাংলাদেশি
কুড়িয়ে পাওয়া আমড়া খেয়ে শিশুর মৃত্যু
সিরিয়ার আর হামলা করতে দেবে না রাশিয়া
এবার ভারতে গরুর জন্য শ্মশান
ছেলে সন্তানের মা হলেন টিউলিপ
নির্বাচনকে ‘জায়েজ’ করার উৎসব হাস্যকর: রিজভী
‘ইভিএম’ নয়, ‘চোর মেশিন’
মেঘনায় ট্রলারডুবি: সকালের পর ‍দুপুরের মিলল লাশ
মেঘনায় ট্রলারডুবি: একজনের লাশ উদ্ধার
‘মাদকসেবি’ চালকের কারণে নিহত ২৮
মাদকসেবি বহনকারী মাইক্রোবাস খাদে, নিহত ৪
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত
জাকির নায়েকের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত
বরফভেদী জাহাজ বানাল রাশিয়া
সালাহ’র জোড়া গোলে লিভারপুলের জয়
ভূমধ্যসাগরে জাহাজডুবি, ১৭০ অভিবাসীর মৃত্যু
গাজীপুরে গ্রেপ্তার তিন ডাকাতের স্বীকারোক্তি
খাগড়াছড়িতে যুবককে গুলি করে হত্যা
ইসরাইলকে মাহাথিরের ‘চপেটাঘাত’
মেক্সিকোয় নিহত বেড়ে ৬৬
ভারতে সাজা শেষে দেশে ফিরল ২১ বাংলাদেশি
কুড়িয়ে পাওয়া আমড়া খেয়ে শিশুর মৃত্যু
সিরিয়ার আর হামলা করতে দেবে না রাশিয়া
এবার ভারতে গরুর জন্য শ্মশান
হ্যাকারদের হাতে ৭৭ কোটি ইমেইল!
অবতরণের সময় বিমান বিধ্বস্ত!
২৫ এর আগে বিয়ে না করলে শাস্তি!
বিয়ে করলেন সঙ্গীতশিল্পী সালমা
‘গরীবের ডাক্তার’ ডা. রাকিবুল ইসলাম লিটু আর নেই
‘‌সৌদিতে সংস্কার না হলে বিপ্লব ঘটবে’
মায়ের লাশ বাইসাইকেলে বেঁধে একা ছেলে!
প্রতিমন্ত্রী পলকের ঘোষণার ২৪ ঘণ্টায় চাঁদাবাজি বন্ধ
অস্ত্র কারখানার সন্ধান, স্বামী-স্ত্রীসহ আটক ৩
ছেলে সন্তানের মা হলেন টিউলিপ
বাসায় ফিরেছেন অভিনেত্রী অহনা
ইরান-রাশিয়া-চীনকে নিয়ে উদ্বেগে ট্র্রাম্প
বেতন কাঠামো প্রত্যাখ্যান, ফের বিক্ষোভে শ্রমিকরা
ব্রেক্সিট ভোট দিয়েছেন অন্তঃসত্ত্বা টিউলিপ
টিআইবির অভিযোগ লজ্জাকর: নূরুল হুদা
এরশাদের অবর্তমানে কে পাচ্ছেন দলের দায়িত্ব!
‘আমি ধর্ষণ মামলার মূল আসামি’
স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে ধর্ষণ করল ৫ যুবক
ধনী বৃদ্ধির হারে বাংলাদেশ তৃতীয়!
'ওয়ার্নারের সঙ্গে আমার ‘ঝগড়া’ গুরুতর কিছু নয়'
চীনের ‘মহাপ্রাচীর’ ঠেকাবে হাইপারসনিকের হামলা

সব খবর