২৬ সেপ্টেম্বর , বুধবার, ২০১৮

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> অপরাধ

 

নিজস্ব প্রতিবেদক

৮ সেপ্টেম্বর ,শনিবার, ২০১৮ ১১:১০:৫৪

আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়ায় ‘এনপিএস’


আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়ায় ‘এনপিএস’

এনপিএস দেখতে অনেকটা চা পাতার মতো। ‘গ্রিন টি’র আড়ালে বাংলাদেশে আমদানি করা হচ্ছে এই মাদক


এক সময় গাঁজাই ছিল দেশিয় মাদকসেবীদের ‘প্রধান খাদ্য’। প্রচলিত ওই মাদকের বাইরে আসা শুরু হয় হেরোইন। এরপর ভারত সীমান্ত দিয়ে আসে ফেন্সিডিল। হেরোইন, ফেন্সিডিল বন্ধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যখন ব্যস্ত, তখন মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে আসা শুরু হয় ইয়াবা।

আর ইয়াবার থাবা বন্ধে যখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ অভিযান চলছে, ঠিক সেই মুহূর্তে সন্ধান মিলেছে নতুন মাদকের। নাম এনপিএস (নিউ সাইকোট্রফিক সাবসটেনসেস)।গ্রিন টি (সবুজ চা) প্যাকেটের আড়ালে আকাশ পথে বাংলাদেশে আসছে এ মাদক।

বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকরা বলছেন, এনপিএস ইয়াবার চেয়েও বেশি আগ্রাসী ও ক্ষতিকারক। এটি সেবনকারীর মৃত্যু ঘটাতে পারে।এই মাদক বাড়িয়ে দেয় আত্মহত্যার প্রবণতাও।

বাংলাদেশে এনপিএস নতুন মনে হলেও বিশ্বের ৮০টির বেশি দেশে এটি পরিচিত। জাতিসংঘ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ইউনাইটেড নেশনস অফিস অন ড্রাগস অ্যান্ড ক্রাইম (ইউএনওডিসি) কর্তৃক প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে মাদক সেবনপ্রবণ ৮০টি দেশ এবং অঞ্চলে জরিপ করে ৭০টিতেই এনপিএস’র উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

জাতিসংঘের এ প্রতিষ্ঠানটিও তাদের প্রতিবেদনে বলছে, এনপিএস সেবনকারী একসময় আত্মহননের পথই বেছে নেন।

ইউএনওডিসি’র কাছে ১০৩টি রাষ্ট্র তাদের দেশে এনপিএস’র অপব্যবহার ও সহজলভ্যতার কথা জানিয়েছে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ইউএনওডিসি ১৯৬১ সালের কনভেনশনের মাধ্যমে ১১৯টি এবং ১৯৭১ সালের কনভেনশনের মাধ্যমে ১১৫টি দেশসহ ২৩৪টি দেশে এনপিএস নিয়ন্ত্রণ করা হয়। তবে বিশ্ব বাজারে লাগামহীনভাবে ছড়িয়ে পড়ছে এনপিএস।

ইউএনওডিসি’র সংজ্ঞা অনুযায়ী, এনপিএস একটি ডিজাইনার বা পরিকল্পক মাদক। রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় এটি বিভিন্ন মাত্রায় পরিবর্তন করে উচ্চমাত্রার মাদকে রূপ দেয়া যায়। সংশ্লেষণ, সমন্বয় ও সিনথেটিকের মাধ্যমে এটিকে মাদকে রূপ দেয়া হয়।


অরিন▐ NEWS24


ভিন্নধর্মে প্রেম করায়...
এবার যৌন হেনস্থা নিয়ে মুখ খুললেন তনুশ্রী
ভারতকে থামাল আফগানরা
জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে যা বললেন রাষ্ট্রপতি
ড্রয়িং রুম ছেড়ে রাজপথে আসুন
৪ দিন পর সচল বেনাপোল বন্দর 
পাকিস্তানকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের হুমকি ভারতের
‘রুশ বিমানের আড়ালে লুকিয়েছিল ইসরাইলি বিমান’
পাঁচ হাজার ইয়াবাসহ আটক ২
রেল যাত্রীদের মাঝে হিজড়া আতঙ্ক!
বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, ট্রাক চালকের মৃত্যু
সাংবাদিকের বাড়িতে কারখানা মালিকের হামলা
যথা সময়ে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে: সিইসি 
সাতক্ষীরায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার
সিঙ্গাপুর গেলেন এরশাদ
ছেলের চুরির অপরাধে মা-বোনকে পিটিয়ে জখম
গৃহবধূ হত্যার দায়ে ৩ জনের ফাঁসি
ডাকাত দেখে চিৎকার দিল গৃহবধূ, অতঃপর
এবার ৪ দিনের রিমান্ডে সোহেল
এনার্জি ড্রিংক নিষিদ্ধ করলো বিএসটিআই
ভিন্নধর্মে প্রেম করায়...
এবার যৌন হেনস্থা নিয়ে মুখ খুললেন তনুশ্রী
ভারতকে থামাল আফগানরা
জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে যা বললেন রাষ্ট্রপতি
ড্রয়িং রুম ছেড়ে রাজপথে আসুন
৪ দিন পর সচল বেনাপোল বন্দর 
গুরুদাসপুরে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন 
পাকিস্তানকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের হুমকি ভারতের
‘রুশ বিমানের আড়ালে লুকিয়েছিল ইসরাইলি বিমান’
পাঁচ হাজার ইয়াবাসহ আটক ২
রেল যাত্রীদের মাঝে হিজড়া আতঙ্ক!
বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, ট্রাক চালকের মৃত্যু
সাংবাদিকের বাড়িতে কারখানা মালিকের হামলা
যথা সময়ে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে: সিইসি 
সাতক্ষীরায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার
সিঙ্গাপুর গেলেন এরশাদ
ছেলের চুরির অপরাধে মা-বোনকে পিটিয়ে জখম
গৃহবধূ হত্যার দায়ে ৩ জনের ফাঁসি
ডাকাত দেখে চিৎকার দিল গৃহবধূ, অতঃপর
এবার ৪ দিনের রিমান্ডে সোহেল
এনার্জি ড্রিংক নিষিদ্ধ করলো বিএসটিআই
‘দলের শৃঙ্খলা ভাঙলে বরদাশত করা হবে না’
কাবা শরীফের ভেতরে ঢুকলেন ইমরান খান(ভিডিও)
আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ
শিক্ষক হলেন হাছান মাহমুদ, পড়াবেন জাহাঙ্গীরনগরে
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার
ইসরাইলকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি
প্রধান শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী অজ্ঞান!
ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি
সুন্দরী তরুণীদের ধর্ষণ ও হত্যা করাই তার কাজ
এক অবিশ্বাস্য জয় এনে দিলেন মোস্তাফিজ
রোববার চালু হচ্ছে সিম্ফোনির কারখানা 
সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে প্রবাসীর স্ত্রী
নগ্ন হয়ে ঘর পরিষ্কার করেন ইনি!
ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় নিহত বেড়ে ২৪
মোস্তাফিজকে নিয়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের টুইট
‘নারীর লজ্জাস্থানে মাদকের কারবার’
নওগাঁয় প্রতারক চক্রের ৪ যুবতী ও তাদের সহযোগী আটক
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন এরশাদ
‘প্রিন্সিপাল আমাকে পর্ন ভিডিও দেখাতেন’

সব খবর