২৬ সেপ্টেম্বর , বুধবার, ২০১৮

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> অপরাধ

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

১২ সেপ্টেম্বর , বুধবার, ২০১৮ ২০:৪০:০৬

শপিং করতে গিয়ে মাদক কারবারীর সাথে পরিচয়, অতঃপর...


শপিং করতে গিয়ে মাদক কারবারীর সাথে পরিচয়, অতঃপর...

এক নারী মাদকসেবী


বছর দুয়েক আগে ঢাকা নিউ মার্কেটে কেনাকাটা করতে যান গৃহবধূ সাদিয়া ইসলাম মায়া। সেখানে দুই নারীর সাথে পরিচয় হয় তার। ফোন নম্বরও আদান-প্রদান হয়। কিন্তু এই পরিচয় যে সাদিয়ার জীবনকে অন্ধকারে ঠেলে দিবে তখন তা ঘুনাক্ষরেও বুঝতে পারেননি সাদিয়া। গৃহবধূ সাদিয়া এখন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক। তিনি এখন ঢাকা শহরের শীর্ষ মাদক সম্রাজ্ঞী।

কীভাবে সাদিয়া এই অন্ধকার জগতে পা বাড়ালেন? সেই ঘটনা অনেকটা সিনেমার মতো। অর্থ-বিত্তের আকাঙ্ক্ষা সবারই থাকে। ছিল সাদিয়ারও। কেউ সৎ পথে দীর্ঘদিন পরিশ্রম করে সম্পদ গড়েন, কেউ অসৎ সঙ্গে পড়ে সহজে টাকা বানাতে খুঁজে নেন বিপজ্জনক অবৈধ পথ। সাদিয়াও তেমন 'শর্টকাট' বিপজ্জনক পথ খুঁজে পেয়েছিলেন নিউ মার্কেট এলাকায় পরিচয় হওয়া দুই নারীর সঙ্গে পরিচয়ের পর। ওই দুই নারীই জড়িত ছিল মাদক ব্যবসার সঙ্গে। তারা পরিচয়ের পর থেকেই সাদিয়ার সঙ্গে নিয়মিত ফোনে যোগাযোগ করতে শুরু করেন। মাদক ব্যবসায় নগদ টাকা, অল্প সময়ে বিত্তবান হওয়ার গল্প দুই মাদক কারবারীর কাছ থেকে প্রায়ই শুনতো সাদিয়া। একটা সময় ওই দুই মাদক কারবারী সাদিয়া ওরফে মায়াকে মাদক ব্যবসায় যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দেয় এবং মাদকের চালান পেতে সহযোগিতারও আশ্বাস দেয়। কাচা টাকার লোভ সামলাতে পারেননি সাদিয়া। একপর্যায়ে মাদক কারবারীর খাতায় নাম লেখান। সেই থেকে শুরু সাদিয়ার অন্ধকার জগতে পথচলা।

এক সময় পুলিশের খাতায় নাম ওঠে সাদিয়ার। মাদক ব্যবসা করতে গিয়ে মাঝে মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরাও পড়তে হয়েছে তাকে। জেলও খাটতে হয়েছে। তবে অধিকাংশ সময়ই আইনের ফাঁক গলে বেরিয়ে আসে সে। ফের একই কাজে নেমে পড়ে। দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় থেকে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকের অন্যতম নেটওয়ার্ক হিসেবে কাজ করছিলেন সাদিয়া। সর্বশেষ আজ (১২ সেপ্টেম্বর, বুধবার) দুপুরে সহযোগীসহ ফের ধরা পড়েছে বাড্ডা এলাকার শীর্ষ এই মাদক সম্রাজ্ঞী।

র‌্যাব-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট আশিকুর রহমান বলেন, ‘বুধবার বাড্ডা এলাকার ১৩ নম্বর রোডের ‘সি’ ব্লকের একটি বাসা থেকে সাদিয়া ও তার সহযোগী মুহাম্মদ কাইয়ুম খানকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।’ 

‘গোপন সূত্রে র‌্যাব জানতে পারে, সাদিয়ার বাড্ডার বাসায় ইয়াবার বড় একটি চালান এসেছে। সেই সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। সাদিয়া দীর্ঘ দিন ধরে চট্টগ্রাম থেকে ইয়াবা এনে ব্যবসা করতো। বাড্ডা ও ভাটারা থানায় তার নামে মামলা রয়েছে। এর আগে জেলও খেটেছে সে। জেল থেকে বের হয়ে ফের একই পেশায় যুক্ত হয়েছে সে’- জানান র‌্যাব কর্মকর্তা আশিকুর রহমান।

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, বেশ কয়েক বছর আগে কাইয়ুম ও সাদিয়ার পরিবার একই ভবনে ভাড়া থাকতো। সেই সুবাদে তাদের পরিচয়। তবে মাঝে কাইয়ুম লন্ডনে চলে যায়। বছর দুয়েক আগে সে দেশে ফেরে। দেশে আসার পর সাদিয়া কাইয়ুমকে মাদক ব্যবসায় যুক্ত করে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা করে পুলিশে হস্তান্তর করা হবে।


অরিন▐ NEWS24


আফ্রিদির রেকর্ডে ভাগ বসালেন শাহজাদ!
ওষুধ-ইনজেকশনই ভরসা মাশরাফি-সাকিবের
মুখোমুখি সংঘর্ষের পর দুই ট্রাক ভস্মীভূত
মুন্সীগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
‘ট্রাম্পের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে না’
পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ৫ শতাধিক ট্রাক আটকা
ভিন্নধর্মে প্রেম করায়...
এবার যৌন হেনস্থা নিয়ে মুখ খুললেন তনুশ্রী
ভারতকে থামাল আফগানরা
জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে যা বললেন রাষ্ট্রপতি
ড্রয়িং রুম ছেড়ে রাজপথে আসুন
৪ দিন পর সচল বেনাপোল বন্দর 
পাকিস্তানকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের হুমকি ভারতের
‘রুশ বিমানের আড়ালে লুকিয়েছিল ইসরাইলি বিমান’
পাঁচ হাজার ইয়াবাসহ আটক ২
রেল যাত্রীদের মাঝে হিজড়া আতঙ্ক!
বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, ট্রাক চালকের মৃত্যু
সাংবাদিকের বাড়িতে কারখানা মালিকের হামলা
যথা সময়ে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে: সিইসি 
সাতক্ষীরায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার
আফ্রিদির রেকর্ডে ভাগ বসালেন শাহজাদ!
ওষুধ-ইনজেকশনই ভরসা মাশরাফি-সাকিবের
মুখোমুখি সংঘর্ষের পর দুই ট্রাক ভস্মীভূত
মুন্সীগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
‘ট্রাম্পের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে না’
পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ৫ শতাধিক ট্রাক আটকা
ভিন্নধর্মে প্রেম করায়...
এবার যৌন হেনস্থা নিয়ে মুখ খুললেন তনুশ্রী
ভারতকে থামাল আফগানরা
জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে যা বললেন রাষ্ট্রপতি
ড্রয়িং রুম ছেড়ে রাজপথে আসুন
৪ দিন পর সচল বেনাপোল বন্দর 
গুরুদাসপুরে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন 
পাকিস্তানকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের হুমকি ভারতের
‘রুশ বিমানের আড়ালে লুকিয়েছিল ইসরাইলি বিমান’
পাঁচ হাজার ইয়াবাসহ আটক ২
রেল যাত্রীদের মাঝে হিজড়া আতঙ্ক!
বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, ট্রাক চালকের মৃত্যু
সাংবাদিকের বাড়িতে কারখানা মালিকের হামলা
যথা সময়ে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে: সিইসি 
এনার্জি ড্রিংক নিষিদ্ধ করলো বিএসটিআই
‘দলের শৃঙ্খলা ভাঙলে বরদাশত করা হবে না’
কাবা শরীফের ভেতরে ঢুকলেন ইমরান খান(ভিডিও)
আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ
শিক্ষক হলেন হাছান মাহমুদ, পড়াবেন জাহাঙ্গীরনগরে
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার
ইসরাইলকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি
প্রধান শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী অজ্ঞান!
ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি
সুন্দরী তরুণীদের ধর্ষণ ও হত্যা করাই তার কাজ
এক অবিশ্বাস্য জয় এনে দিলেন মোস্তাফিজ
রোববার চালু হচ্ছে সিম্ফোনির কারখানা 
সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে প্রবাসীর স্ত্রী
নগ্ন হয়ে ঘর পরিষ্কার করেন ইনি!
ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলায় নিহত বেড়ে ২৪
মোস্তাফিজকে নিয়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের টুইট
‘নারীর লজ্জাস্থানে মাদকের কারবার’
নওগাঁয় প্রতারক চক্রের ৪ যুবতী ও তাদের সহযোগী আটক
ডাকাত দেখে চিৎকার দিল গৃহবধূ, অতঃপর
‘প্রিন্সিপাল আমাকে পর্ন ভিডিও দেখাতেন’

সব খবর