১৯ এপ্রিল ,বৃহস্পতিবার, ২০১৮

শিরোনাম

> প্রবাস

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

১৯ নভেম্বর ,রবিবার, ২০১৭ ১২:৪৯:২৬

মধ্যপ্রাচ্যে যেমন আছেন প্রবাসী নারী শ্রমিকরা

গোসল করিয়ে আমাকে পাতলা ফিনফিনে কাপড় পরতে দেয়


গোসল করিয়ে আমাকে পাতলা ফিনফিনে কাপড় পরতে দেয়

প্রতীকী ছবি


''রাতে গোসল করিয়ে আমারে পাতলা ফিনফিনে কাপড় পরতে দেয়। আমি পাতলা কাপড় পরতে না চাইলে মারধর শুরু করে। এরপর আমার ঘরে প্রথমে আসে ছেলে, পরে আসে বাপ। তারপর আমারে...।'' এভাবেই সৌদি আরবে থাকাকালীন নির্যাতনের ঘটনাগুলো বর্ণনা করছিলেন সেখান থেকে ফেরত আসা নারী শ্রমিক ময়না বেগম।

একটু ভালো থাকায় আসায়, পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে বাংলাদেশ থেকে পরিবার-পরিজন ছেড়ে বিদেশে পাড়ি জমায় লাখো মানুষ। এর মধ্যে একটি বড় সংখ্যক মানুষই নারী। আর মধ্যপ্রাচ্যেই এসব নারী শ্রমিকের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। কিন্তু কেন সেখানে এত নারী শ্রমিকের চাহিদা? কেমন আছেন সেখানে আমাদের মা-বোনেরা? এর জবাব দিয়েছেন সেখান থেকে ফিরে আসা বেশ কয়েকজন নারী। শুনে হতভম্ব হয়ে গেছেন উপস্থিত সকলে।

তাদের বর্ণনায় উঠে এসেছে নারী শ্রমিকদের ওপর ভয়াবহ যৌন ও শারীরিক নির্যাতনের চিত্র। আর সেই নির্যাতনে শামিল হন একই পরিবারের একাধিক সদস্য। কখনো দুই ভাই, কখনো বাবা-ছেলে। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন হাসপাতাল, শপিং মল, রেস্ট্যুরেন্টে চাকরি দেওয়ার কথা বলে নারীদের  মধ্যপ্রাচ্যে পাঠানো হলেও অধিকাংশ নারীর জায়গা হয় বিভিন্ন পরিবারে গৃহপরিচারিকার কাজে। আর সেখানে অনেকটা যৌনদাসী হয়ে পার করতে হয় দিন। প্রতিবাদ করলে নেমে আসে অকথ্য নির্যাতন। দেশে ফিরতে চাইলেও অনেক সময় সে সুযোগ মেলে না।

সৌদি আরব, জর্ডান, লেবানন বা মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশ থেকে কাজের জন্য যাওয়া নারীরা কেমন আছেন— এই বিষয়ে গতকাল ঢাকায় আয়োজিত এক গণশুনানিতে ফিরে আসা নারী শ্রমিকরা যৌন নির্যাতনসহ বিভিন্ন নির্যাতনের ভয়াবহ বর্ণনা দেন। গণশুনানিতে নারী শ্রমিকদের কথা শোনেন বাংলাদেশের কয়েকজন সাবেক বিচারপতি, মানবাধিকার কর্মী, অভিবাসন বিশেষজ্ঞ ও শ্রমিকনেতারা।

বাংলাদেশে একটি হাসপাতালে ১২০০ টাকা বেতনে কাজ করতেন ময়না বেগম। হাসপাতালে চাকরির কথা বলে সৌদি আরবে ভালো বেতনে কাজের জন্য পাঠানো হয় তাকে।

কিন্তু সেখানে গিয়ে তাকে একটি বাড়িতে কাজের জন্য নেওয়া হয় এবং শিকার হতে হয় যৌন নির্যাতনের। ‘প্রথমে আমাকে বিমানবন্দর থেকে গাড়িতে নিতে আসেন দুই পুরুষ। দেখে ভয় পাই। পরে ওই বাড়িতে ঢুকে যখন এক মহিলা দেখি তখন মনে সাহস আসে। কিন্তু রাতে গোসল করিয়ে আমারে পাতলা ফিনফিনে কাপড় পরতে দেয়। আমি পাতলা কাপড় পরতে না চাইলে মারধর শুরু করে। এরপর আমার ঘরে প্রথমে আসে ছেলে, পরে আসে বাপ। তারপর আমারে জড়ায়ে ধরে নির্যাতন করে। বাধা দিতে গেলে আমারে মাইরা-ধইরা, কামড়াইয়া-ছিমড়াইয়া কিছু রাখে নাই। ’ গতকাল ঢাকায় ওই গণশুনানিতে নিজের ওপর সৌদি আরবে ঘটে যাওয়া নির্যাতনের কথাগুলো এভাবেই বলছিলেন ময়না বেগম।

লাল কাপড় দিয়ে নিজের মুখ ঢেকে মঞ্চে দাঁড়িয়ে কাঁদতে কাঁদতে বলছিলেন তিনি, ‘নয় মাস এমন নির্যাতনের ফলে আমার প্রজনন অঙ্গে যে ক্ষত তৈরি হয়েছে তাতে এখনো চিকিৎসার মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে। আমার স্বামী নাই। স্বামী থাকলে আমারে ঘরে উঠাইত না। অনেক কষ্টে ছেলেরে নিয়া আছি।’ 

এ অনুষ্ঠানে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি ছাড়া নারী শ্রমিক পাঠানোর বিষয়ে বিরোধিতা জানিয়েছেন শ্রমিকনেতা, মানবাধিকার কর্মী ও অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা। সেখানে অভিবাসী নারী শ্রমিকদের ওপর বিদেশে নির্যাতনের বিষয়ে সরকারের আরও জোরালো পদক্ষেপের দাবি উঠে আসে।

অভিবাসী বা পাচার হয়ে যাওয়া নারীদের আইনি সহায়তা প্রদানকারী সংগঠন বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির প্রধান সালমা আলী বলেন, ‘মধ্যপ্রাচ্যে অভিবাসী নারী শ্রমিকদের মধ্যে ৯৯ শতাংশই শারীরিক-মানসিক সব ধরনের নির্যাতনের শিকার। অনেক শ্রমিক সেখানে নির্যাতনের মুখে মৃত্যুবরণ করতে বাধ্য হচ্ছেন। ’

গণশুনানিতে প্রদান করা তথ্যানুসারে, ১৯৯১ সাল থেকে চলতি বছরের অক্টোবর পর্যন্ত ৬ লাখ ৭৪ হাজার নারী শ্রমিক বিভিন্ন দেশে গেছেন।


সুন্দরবনে অপহৃত আট জেলে উদ্ধার
ইয়াবা ব্যবসায়ীদের গুলিতে তিন পুলিশ আহত
খালেকের তথ্য গোপনের অভিযোগের শুনানি
সমুদ্রের নিচে ইউরোপের প্রথম রেস্টুরেন্ট 'আন্ডার'
ওজন বাড়াতে যা করবেন
পাকিস্তানি ছেলেকে বিয়ে করলেন আলিয়া ভাট!
খেলার সুযোগ পেয়ে জেলে থাকতেই আগ্রহী কয়েদিরা
অনন্য কীর্তির হাতছানিতে রাতে মাঠে নামছেন সাকিব
আমিরাতে দরজা খুলছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের
কাঠুয়া গণধর্ষণ নিয়ে মোদির বিস্ফোরক বক্তব্য
তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের শঙ্কায় সামরিক শক্তি বাড়াচ্ছে রাশিয়া
ভারতীয় বক্সারকে হারালেন বাংলাদেশের কৃষ্ণ
মার্কিন ড্রোন ভূপাতিত
২০ দলীয় জোটের বৈঠক আজ রাতে
কাস্ত্রো পরিবারের বাইরে কেমন হবে কিউবার নতুন নেতৃত্ব?
জীবিত শিশু রেখে মৃত শিশু ধরিয়ে দেয় হাসপাতাল!
অতিরিক্ত পানি পানে কিডনি নষ্ট!
বাংলাদেশে বিনিয়োগে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর
সৌদিতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু
আমিন জুয়েলার্সের স্বর্ণ লুট: মূলহোতা নিরাপত্তা কর্মী সোবহান
কুকুরের কামড়ে হাসপাতালে অভিনেত্রী
খালেকের মনোনয়ন বৈধ, মঞ্জুর অভিযোগ বাতিল
সাতক্ষীরায় ইয়াবাসহ ছাত্রলীগ নেতা আটক
বটগাছের প্রাণ বাঁচাতে চলছে স্যালাইন!
৫টি বিলে সম্মতি দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি
কোন কলায় গুণ বেশি, কাঁচা না পাকা?
হাওরাঞ্চলে শ্রমিক সঙ্কটে ধান কাটা ব্যহত 
সত্যিই কি শাহরুখ কারো জীবন নষ্ট করলেন?
সুন্দরবনে অপহৃত আট জেলে উদ্ধার
নেত্রকোনায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা, স্বামী আটক
‘আমার জীবন নষ্টের জন্য শাহরুখ খান দায়ী!’ 
ইয়াবা ব্যবসায়ীদের গুলিতে তিন পুলিশ আহত
ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেলো আর্জিনা
খালেকের তথ্য গোপনের অভিযোগের শুনানি
সমুদ্রের নিচে ইউরোপের প্রথম রেস্টুরেন্ট 'আন্ডার'
মহিলা সাংবাদিককে যৌন নিগ্রহে অভিযুক্ত জাপানের উপ অর্থমন্ত্রী
ওজন বাড়াতে যা করবেন
গফরগাঁওয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধে যুবক খুন
টেকনাফে ৫ লাখ ৫০ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার 
ঝিনাইদহে মিলন হত্যা মামলায় দুই জনের যাবজ্জীবন
আমি দুধের শিশু না : হ্যাপি
স্ত্রীর সামনেই কলগার্ল ডেকে ফুর্তি করতেন খুবি শিক্ষক!
মেয়ের পোশাকে রক্ত দেখেই সন্দেহ হয় মায়ের
ফিরবেন এবার ইলিয়াস আলী?
'দিনে ৩০ জনের সঙ্গে বিছানায় যেতে হয়!'
যে মরণব্যাধি কেড়ে নিল আনিসুল হককে
সৌদি যুবরাজকে আবু জাহেলের সঙ্গে তুলনা
ছাত্রী নির্যাতনকারী এশাকে যেভাবে শাস্তি দেয় শিক্ষার্থীরা (ভিডিও)
১ কোটি ৭ লাখই দিতে হবে : অপু
স্কেটিংয়ের সময় খুলে পড়লো পোশাক (ভিডিও)
খালেদার গাড়ি বহরে হাবিব-উন নবী সোহেল
যেভাবে বেরিয়ে এলো 'ভয়ঙ্কর খুনি'
যে কারণে প্রেম নেই জাপানি তরুণীদের জীবনে
থানার ছাদে বিদেশি যুগলের সঙ্গম ভাইরাল
মাথায় ঘিলু না থাকলে পাইলট হওয়া যায় না
কন্ট্রোলরুমের শেষ কথাটি শুনতে পাননি পাইলট?
শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবরের আগেই অমিতাভের টুুইট!
অন্তঃসত্ত্বা শ্রীদেবীকে মারধর করেন অর্জুনের নানি!
ইতালির ফুটবলার ডেভিড আস্তোরি আর নেই
গোসল করিয়ে আমাকে পাতলা ফিনফিনে কাপড় পরতে দেয়