২৩ সেপ্টেম্বর ,রবিবার, ২০১৮

শিরোনাম

> সোশ্যাল মিডিয়া

 

নিউজ ২৪ ডেস্ক

৯ আগস্ট , বুধবার, ২০১৭ ১২:১৭:৪৭

শিল্পীকে সরকার বা কেউই তৈরি করেন না

-কনকচাঁপা
শিল্পীকে সরকার বা কেউই তৈরি করেন না


বন্ধুরা আজ আট বছর হল আমি এই ফেসবুকে তোমাদের সাথে আছি, খুব কম সময় আমি শিল্পী হিসেবে কথা বলি কারণ আমি শিল্পী হলেও আসলে তোমাদেরই একজন। যাইহোক আজ একজন শিল্পীর প্ল্যাটফর্ম থেকে কিছু কথা বলি। তোমরা কিছু মনে করো না।

বাংলাদেশে একটি পরিবারে যখন একজন শিল্পী জন্ম নেয় প্রথমত বাবা মা তা আমলেই নেন না। তারা যদি আমলেও নেন দেখা যায় হয়তো তারা অর্থনৈতিকভাবে অক্ষম তার ঘরে জন্মানো শিল্পীকে গড়ে তুলতে। অনেক সময় বাবা মা যদিও সেই সন্তান কে গড়ে তুলতে বদ্ধপরিকর হন দেখা যায় তার সেই বিষয়ক কোন সঠিক শিক্ষা ইন্সটিটিউট নেই। কিছু পরিবার আছে সন্তান গান নাচ অভিনয় শিখতে চাইলে তাকে ত্যাজ্য করেন! শিল্পী তখন নিজের জীবন নিজে গড়ে খেয়ে না খেয়ে।

এক্ষেত্রে অস্বাভাবিক আবেগপ্রবণ না হলে কেউই এই অনিশ্চিত জীবনে পা দেন না। কারণ শিল্পীর যতই প্রতিভা থাক তার উপযুক্ত পারিশ্রমিক কখনোই পান না বিশেষ করে বাংলাদেশে। আর এটাও সত্যি যে একজন শিল্পী কখনো আর দশ টা চাকুরীজীবী মানুষের মত হিসেবি হতে পারেন না। তা পারলে তিনি এই অনিশ্চয়তার জীবন বেছেই নিতেন না। ধরা যাক একজন মানুষ অনেক অনিশ্চয়তার পর শিল্পী হলেন, পায়ের নীচে মাটি আসলো, তখনও কিন্তু তিনি শিল্পীর দায়িত্বে ব্যস্ত। ব্যংকে কয় টাকা জমলো এই হিসেব শিল্পী করেন না বেশির ভাগ। সেই ধাঁচেরই তিনি নন। উপরন্তু তাকে শিল্পীর ঠাটবাট বজায় রাখতে অনেক কিছুতেই, নিজেকে, নিজের বাসস্থান কে সাজাতে হয় যা তার আসল বিত্তে পড়েনা। বাংলাদেশিরা একজন জনপ্রিয় শিল্পীকে কখনোই পাবলিক বাসে দেখা পছন্দ করেন না। তারা শিল্পীদের একটা ফ্যান্টাসি ভাবনায় জড়াতে পছন্দ করেন। শিল্পীরাও সেই ভাবনার জালে পা দিয়ে মিথ্যা স্টারইজম এ ঢুকে পড়েন।

এখানে বলে রাখি বাংলাদেশের শিল্পীরা এখনো রয়ালটি পান না যা তার একান্তই প্রাপ্য। একজন প্লেব্যাক সিংগারের কত গান রেডিও টিভিতে বাজে তার হিসাব জনগণ জানেন কিন্তু সরকার শিল্পীর সাথে সে হিসাব চুকান না। একজন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত শিল্পী যতকিছু পেতে পারেন বাংলাদেশের শিল্পীরা কি সবটা পাচ্ছেন?

শিল্পী যতদিন কাজে ব্যস্ত থাকেন ততদিন ই তার হাতে পয়সা থাকে এবং সেটা সরকারি চাকুরীজীবীর মত লম্বা সময় ধরে না। বেশিরভাগ শিল্পীরই স্থায়ীত্ব কাল বড়জোর পনের বছর। এর পর শুরু হয় তাকে ছুড়ে ফেলার পালা। শিল্পী সিনিয়র হতে না হতেই তাকে ত্যাগ করা বাংলাদেশের শ্রোতা, দর্শক, এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার বদ অভ্যাস। সেক্ষেত্রে শিল্পী খুব শীঘ্রই বেকার হয়ে পড়েন। মধ্য বয়স আসার আগেই তিনি ব্রাত্যজীবন এ চলে যান।  

মন শরীর দুটোই ভেংগে পড়ে। এইবেলা শিল্পী মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েন। হয়তো সবাই না কিন্তু অনেকেই দুরারোগ্য ব্যাধির কবলে পড়েন। ভেজাল খাবার খেয়ে বাংলাদেশের সব মানুষেরই এখন শেষ অধ্যায় দুরারোগ্য ব্যাধি। কিন্তু ওই যে কারণে তিনি যৌবনে খবর হতেন ঠিক সেই একই কারনে এই দুরারোগ্য ও লোকমুখে ছড়াতে সময় লাগেনা।  

শিল্পী তার সহায় সম্বল হারান, জনপ্রিয়তা তো আগেই হারিয়েছেন, এখন তার পাওনা সরকারের সামান্য কিছু সহায়তা এবং অতি আগ্রহী পাবলিকের তিরস্কার। এই হল শিল্পীর ভবিতব্য! যে সময়ে সামান্য কিছু সহানুভূতি পাওয়ার কথা সেই সময়ে পাচ্ছেন দুস্থ শিল্পী উপাধি।

আমার ইচ্ছা করে এই প্রার্থনা করতে যে এই দুনিয়াতে কেউ যেন শিল্পী হয়ে না জন্মায়। পড়ে থাক এই পৃথিবী গানহীন, সুরহীন, বাগানে না ফুটুক ফুল, পাখি চলে যাক অন্য কোনও দেশে। আর সব সন্তানরা চাকুরী করে পয়সা জমিয়ে নিশ্চিত জীবন যাপন করুক। মন্দ কি!

হে পাবলিক! মনে রাখবেন এই শিল্পী নামক বেওকুফ জাতির মানুষ গুলো কখনোই সমাজে বেশী ছিলেন না। তারা অল্প সংখ্যক এবং ক্ষনজন্মা। তাদের জন্য এতো ভাবনা এতো আলোচনার কি দরকার!

আর একটা কথা জেনে রাখবেন হে সম্মানিত পাবলিক ---- শিল্পীকে সরকার বা কেউই তৈরি করেন না, পৃষ্ঠপোষকতাও করেন না কখনোই। সবার সৌভাগ্য যে তাদের আমলে একজন একজন শিল্পী জন্ম নেন আর তার কৃতকর্মের ফল হিসেবে গান কবিতা সাহিত্য এই সমাজকে কল্যাণময় করে গুছিয়ে রাখে।

(কণ্ঠশিল্পীর ফেসবুক পেজ থেকে সংগৃহীত)


ইন্দোনেশিয়ার আকাশে এলিয়েন? (ভিডিও)
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
মেহেদীর রং লাগানো গেল না ফাহিমার হাতে
জিততে আফগানদের টার্গেট ২৫০
ভারতকে ২৩৮ রানের টার্গেট পাকিস্তানের
হাজীদের সেবাতেই আত্মতৃপ্তি তাদের
‘যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সঙ্গে লড়াইয়ে প্রস্তুত ইরান’
কিশোরগঞ্জে বাসচাপায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৩
নওগাঁয় প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের অভিযোগ
শোয়েব-সরফরাজে এগুচ্ছে পাকিস্তান
৫ উইকেট হারিয়ে মহা বিপর্যয়ে বাংলাদেশ
শান্তর পর মিঠুনও আউট
টস জিতে ব্যাটিংয়ে সরফরাজরা
টস জিতে ব্যাটিংয়ে টাইগাররা
বাড্ডায় বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত
তরুণীর গোপনাঙ্গে মরিচের গুঁড়া দিল লম্পটরা
দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ
নেত্রকোনায় মাদক মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন
সাতক্ষীরায় অতিরিক্ত মদপানে প্রাণ গেল যুবকের
‘যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্য ছাড়তে বাধ্য হবে’
ইন্দোনেশিয়ার আকাশে এলিয়েন? (ভিডিও)
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
মেহেদীর রং লাগানো গেল না ফাহিমার হাতে
জিততে আফগানদের টার্গেট ২৫০
ভারতকে ২৩৮ রানের টার্গেট পাকিস্তানের
হাজীদের সেবাতেই আত্মতৃপ্তি তাদের
‘যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সঙ্গে লড়াইয়ে প্রস্তুত ইরান’
কিশোরগঞ্জে বাসচাপায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৩
নওগাঁয় প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের অভিযোগ
শোয়েব-সরফরাজে এগুচ্ছে পাকিস্তান
৫ উইকেট হারিয়ে মহা বিপর্যয়ে বাংলাদেশ
শান্তর পর মিঠুনও আউট
টস জিতে ব্যাটিংয়ে সরফরাজরা
টস জিতে ব্যাটিংয়ে টাইগাররা
বাড্ডায় বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত
তরুণীর গোপনাঙ্গে মরিচের গুঁড়া দিল লম্পটরা
দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ
নেত্রকোনায় মাদক মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন
সাতক্ষীরায় অতিরিক্ত মদপানে প্রাণ গেল যুবকের
‘যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্য ছাড়তে বাধ্য হবে’
কাবা শরীফের ভেতরে ঢুকলেন ইমরান খান(ভিডিও)
আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ
আ.লীগ-বিএনপির ৪০০ নেতার শপথ
শিক্ষক হলেন হাছান মাহমুদ, পড়াবেন জাহাঙ্গীরনগরে
‘মন্ত্রীর পা ধরেও সড়কের কাজ শুরু করা যায় নি’
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার
ইসরাইলকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি
ওমরাহ ভিসায় সৌদি ভ্রমণে বিশেষ ছাড়
প্রধান শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী অজ্ঞান!
ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি
সুন্দরী তরুণীদের ধর্ষণ ও হত্যা করাই তার কাজ
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে ৯ দালাল আটক
রোববার চালু হচ্ছে সিম্ফোনির কারখানা 
ময়মনসিংহ মেডিকেলের শিক্ষার্থী ভুটানের প্রধানমন্ত্রী!
যেসব নারীকে বিবাহ করা হারাম
নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন সেই খুনি শম্ভুলাল(ভিডিও)
সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে প্রবাসীর স্ত্রী
মেয়ে অসুস্থ দেশে ফিরছেন শাকিব
নওগাঁয় প্রতারক চক্রের ৪ যুবতী ও তাদের সহযোগী আটক
প্রেমের টানে ভারতীয় তরুণী বাংলাদেশে!

সব খবর