২৩ সেপ্টেম্বর ,রবিবার, ২০১৮

> অন্যান্য >>

>> বিদেশি মিডিয়া

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

৪ এপ্রিল , বুধবার, ২০১৮ ২০:৩১:১০

খবর পার্সটুডের

শরণার্থী ফেরত নয়, রাখাইনে বৌদ্ধ স্থানান্তরের পরিকল্পনা মিয়ানমারের!


শরণার্থী ফেরত নয়, রাখাইনে বৌদ্ধ স্থানান্তরের পরিকল্পনা মিয়ানমারের!

নির্যাতনের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা


বাংলাদেশে অবস্থানরত বৌদ্ধ সম্প্রদায়কে রোহিঙ্গা অঞ্চলে স্থানান্তরের অনুমতি দিয়েছেন মিয়ানমারের কর্মকর্তারা। রাখাইন প্রদেশের স্থানীয় সরকার ওই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য রোহিঙ্গা মুসলমানদের জায়গা জমি অধিগ্রহণ করেছে। 

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এ থেকে বোঝা যায়, বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মুসলমানদের ফিরিয়ে নেয়ার কোনো ইচ্ছাই মিয়ানমার সরকারের নেই। তাদের মতে, বাংলাদেশের বৌদ্ধদেরকে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বসতবাড়িতে স্থানান্তরের পরিকল্পনা মিয়ানমারের নতুন ষড়যন্ত্র যা কিনা রোহিঙ্গাদের নিজ মাতৃভূমিতে ফিরিয়ে নেওয়া সংক্রান্ত চুক্তির লঙ্ঘন। বর্তমানে কক্সবাজারের বিভিন্ন আশ্রয় শিবিরে প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান অবস্থান করছে।

প্রায় চার মাস আগে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে শরণার্থী প্রত্যাবাসন বিষয়ে চুক্তি হয়। ওই চুক্তিতে মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেশে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিলেও আজ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন করেনি। সূত্রমতে, বাংলাদেশের বৌদ্ধদেরকে মিয়ানমারে নিয়ে যাওয়ার ষড়যন্ত্র করছে মিয়ানমার। আর এ থেকে বোঝা যায় রোহিঙ্গা মুসলমানদেরকে ফিরিয়ে নেওয়ার কোনো ইচ্ছা তাদের নেই। তারা চায় ওই অঞ্চলের জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনতে। 

২০১৬ সালের শেষের দিকে জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনার কর্মসূচি হাতে নিয়েছিল মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। সেসময় দেশটির কর্মকর্তারা ঘোষণা করেছিলেন, রাখাইন রাজ্যে বৌদ্ধদের জন্য নতুন সাতটি গ্রাম নির্মাণ করে দেওয়া হবে। ওই ঘোষণার দেড় বছর পর রাখাইন অঞ্চলে মুসলমানদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। হত্যা, নির্যাতনের মাধ্যমে তাড়িয়ে দেওয়া হয় প্রায় সব রোহিঙ্গা মুসলিমকে। এ থেকেই মিয়ানমারের সেনা ও উগ্র বৌদ্ধদের মুসলিম বিতাড়নের উদ্দেশ্য স্পষ্ট হয়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনার যে কর্মসূচি হাতে নিয়েছিল মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ, সেটা বাস্তবায়ন করতেই ওই হামলা চালানো হয়। আর দুই দেশের মধ্যে চুক্তির কয়েক মাস পার হয়ে গেলেও প্রত্যাবাসন শুরু না করায় সেটাই এখন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

২০১৪ সালের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে মংডু এলাকায় মোট জনগোষ্ঠীর মাত্র দুই শতাংশ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের এবং অবশিষ্ট সবাই মুসলমান। এ কারণে গত দুই বছর ধরে উগ্র বৌদ্ধরা এমনভাবে মুসলমানদের ওপর নৃশংস গণহত্যা চালিয়েছে যাতে পালিয়ে যাওয়া মুসলমানরা দেশে ফিরে আসার কথা চিন্তাও করতে না পারে।

মানবাধিকার সংগঠনসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো মিয়ানমারের সেনা ও উগ্র বৌদ্ধদের অপরাধযজ্ঞকে জাতিগত শুদ্ধি অভিযান হিসেবে উল্লেখ করেছে। ভূ-রাজনৈতিক বিষয়ক গবেষক অ্যন্থেনিও কারতালুচি বলেছেন, "জাতিগত শুদ্ধি অভিযান বলতে যা বোঝায় তা মিয়ানমারের রাখাইনে ঘটছে।" 

মিয়ানমারে বৌদ্ধদের পক্ষে জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনার জন্য এমন সময় চেষ্টা চলছে যখন মানবাধিকারের দাবিদার পাশ্চাত্যের দেশগুলো রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার বিষয়ে সম্পূর্ণ নীরব রয়েছে। এই নীরবতা মুসলিম গণহত্যা চালাতে মিয়ানমার সরকারকে আরো উৎসাহিত করেছে।


সুযোগ কী হারালেন আশরাফুল!
'দেশের মানুষ বিএনপিকে বর্জন করেছে'
অস্কারে যাচ্ছে ‘ডুব’
নাইজেরিয়ায় কলেরায় ৯৭ জনের মৃত্যু
চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটায় নিহত ২
তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহত বেড়ে ২০৯
ধর্ষণ করে মাথা কেটে নিল ধর্ষণকারীরা!
বেনাপোল দিয়ে আমদানি রপ্তানি বন্ধ
আফগানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
'বাংলাদেশি অভিবাসীরা উইপোকা'
চার কোটি টাকার ইয়াবাসহ মডেল আটক
আফগান স্পিনজাদু কাটাতে পারবে বাংলাদেশ!
মাদক ব্যসায়ীদের মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন ২৯ সেপ্টেম্বর
প্রবাসীর স্ত্রীর হাত-পা বাঁধা দেহ খাটে, পা মাটিতে 
সাড়ে ৩ কোটি টাকার ইয়াবাসহ মডেল সুমাইয়া আটক
বাংলাদেশিরা ‘উইপোকা’: অমিত শাহ
ফরিদপুরে কলেজছাত্রীর অন্তরঙ্গের দৃশ্য ধারণ করায়...
'আমি আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করব'
কামাল হোসেন অবশেষে নতুন মক্কেল পেল: ইনু
নিউইয়র্কে এস কে সিনহার বিচার দাবি শোভাযাত্রা
সুযোগ কী হারালেন আশরাফুল!
'দেশের মানুষ বিএনপিকে বর্জন করেছে'
অস্কারে যাচ্ছে ‘ডুব’
ট্রাক-অটোরিক্সা মুখোমুখি সংর্ঘষে আহত ৫
কালকিনিতে চাল আত্মসাতে মহিলা মেম্বার আটক
নাইজেরিয়ায় কলেরায় ৯৭ জনের মৃত্যু
মহেশপুরে ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্রের মৃত্যু
চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটায় নিহত ২
তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহত বেড়ে ২০৯
ধর্ষণ করে মাথা কেটে নিল ধর্ষণকারীরা!
বিভাগীয় শহরে জনসভা করবে যুক্তফ্রন্ট
বেনাপোল দিয়ে আমদানি রপ্তানি বন্ধ
আফগানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
'বাংলাদেশি অভিবাসীরা উইপোকা'
চার কোটি টাকার ইয়াবাসহ মডেল আটক
আফগান স্পিনজাদু কাটাতে পারবে বাংলাদেশ!
মাদক ব্যসায়ীদের মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন ২৯ সেপ্টেম্বর
প্রবাসীর স্ত্রীর হাত-পা বাঁধা দেহ খাটে, পা মাটিতে 
কাবা শরীফের ভেতরে ঢুকলেন ইমরান খান(ভিডিও)
আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ
আ.লীগ-বিএনপির ৪০০ নেতার শপথ
শিক্ষক হলেন হাছান মাহমুদ, পড়াবেন জাহাঙ্গীরনগরে
‘মন্ত্রীর পা ধরেও সড়কের কাজ শুরু করা যায় নি’
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার
ইসরাইলকে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি
ওমরাহ ভিসায় সৌদি ভ্রমণে বিশেষ ছাড়
প্রধান শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী অজ্ঞান!
ট্রাম্পের গোপন বিষয়ে ‘বোমা’ ফাটালেন স্টর্মি
সুন্দরী তরুণীদের ধর্ষণ ও হত্যা করাই তার কাজ
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল থেকে ৯ দালাল আটক
ময়মনসিংহ মেডিকেলের শিক্ষার্থী ভুটানের প্রধানমন্ত্রী!
নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন সেই খুনি শম্ভুলাল(ভিডিও)
রোববার চালু হচ্ছে সিম্ফোনির কারখানা 
যেসব নারীকে বিবাহ করা হারাম
সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে প্রবাসীর স্ত্রী
মেয়ে অসুস্থ দেশে ফিরছেন শাকিব
প্রেমের টানে ভারতীয় তরুণী বাংলাদেশে!
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন এরশাদ

সব খবর