১৭ নভেম্বর ,শনিবার, ২০১৮

> অন্যান্য >>

>> ধর্ম-জীবন

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

১ মে ,মঙ্গলবার, ২০১৮ ১৮:৩০:৩০

শবে বরাতে হালুয়া-রুটির প্রচলন যেভাবে?


শবে বরাতে হালুয়া-রুটির প্রচলন যেভাবে?


মুসলমানদের জন্য ‌‍‍‘অতি পবিত্র রজনী’ হিসেবে পরিচিত শব-ই-বরাত। বাংলাদেশে শবে বরাতের রাতে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের অনেকেই মসজিদে প্রার্থনা করবেন।

এর সঙ্গে আরেকটি বহুল প্রচলিত এবং গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হচ্ছে, বাড়িতে হালুয়া-রুটি তৈরি। প্রতিবেশীদের সেটি বিতরণ।

বাংলাদেশের সমাজেশবে বরাতের প্রসঙ্গ আসলেই অবধারিতভাবে হালুয়া-রুটি তৈরির বিষয়টি চলে আসে।

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, হালুয়া-রুটি তৈরির এ সংস্কৃতি বাংলাদেশ ভূখণ্ডে কিভাবে চালু হয়েছে? ইসলামের ইতিহাস যারা বিশ্লেষণ করেন, তাদের অনেকেই মনে করেন যে বাংলাদেশের সমাজ বৃহত্তর মুসলিম উম্মাহর অংশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতির অধ্যাপক মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, এয়োদশ শতাব্দীতে ভারতের দিল্লীতে ইসলাম রাজনৈতিকভাবে আসে। সে সময় তৎকালীন বাংলাদেশ ভূখণ্ডেও ইসলাম ধর্মের আবির্ভাব হয়। খবর বিবিসির

অধ্যাপক মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, রসুলউল্লাহ সা. সাহাবাদের যুগেও এ উপমহাদেশে তাঁর ঘনিষ্ঠজনরা সুদূর আরব থেকে ইসলাম যে বিভিন্ন দেশে এসেছে, এগুলোর সঙ্গে কিছু-কিছু দেশজ উপাদান যুক্ত হয়েছে। আমরা জানি, রসুলউল্লাহ সা. মিষ্টি খুব পছন্দ করতেন। তাঁর পছন্দের জিনিসকে উম্মতরা পছন্দ করবে সেটাও তাকে পছন্দ করার একটি ধরন। ফলে মিষ্টির একটা জনপ্রিয়তা মুসলিম সমাজে আছে।

তিনি মনে করেন, শবে বরাতের সময় হালুয়া-রুটি বানানো। বিতরণ করার সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নেবার একটি সম্পর্ক আছে।

আনন্দের ভাগটা অন্যদের দেওয়ার জন্যই বিতরণ করার রেওয়াজটা হয়েছে। এর সঙ্গে ধর্মীয় অনুভূতি এবং সামাজিকতা রক্ষা- দুটো বিষয় জড়িত আছে, বলেছেন অধ্যাপক ইব্রাহিম।

যেহেতু হালুয়া বানানোর উপাদান বাংলাদেশে আছে সেজন্য সেটি এসেছে। মূলত; মিষ্টি অর্থেই হালুয়ার প্রচলন হয়েছিল। বাংলাদেশ ভূখণ্ডে শবে বরাত পালনের ব্যাপক প্রচলন শুরু হয় ১৯শ’ শতকের শেষের দিকে।

তখন ঢাকার নবাবরা বেশ ঘটা করেই শবে বরাত পালন করতেন, বলছেন ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসির মামুন। তিনি বলেন, সে সময়ে ঢাকার নবাবরা শবে বরাতের সময় আলোকসজ্জা করতো । এরপর পাশপাশি মিষ্টি বিতরণ করত।

ইতিহাসবিদদের মতে সে সময়ে যেহেতু মিষ্টির দোকান খুব একটা প্রচলিত ছিলনা, সেজন্য মিষ্টি জাতীয় খাদ্য বানানোর উপাদান দিয়ে বাড়িতে হালুয়া তৈরির প্রচলন শুরু হয়।

ধীরে-ধীরে এর বিস্তার ঘটতে থাকে।

ঢাকার ইতিহাস নিয়ে গবেষণা করেছেন অধ্যাপক মামুন। তিনি বলেন, সে সময়ে হিন্দুদের আধিপত্য থাকার কারণে সেটিকে মোকাবেলা জন্য ঢাকার নবাবরা শবে বরাত জন্য অনেক বড় আয়োজন করত।

এতে ঢাকার নবাবদের মুসলমান পরিচয় এবং আধিপত্য - এ দুটো বিষয় একসঙ্গে তুলে ধরার প্রয়াস দেখা যেত।

অধ্যাপক মামুন বলেন, নবাবরা যেহেতু মুসলিম ছিলেন। ঢাকাকে তারা নিয়ন্ত্রণ করতেন, সেজন্য উৎসবগুলোকে তারা গুরুত্ব দিতেন। এর মাধ্যমে নবাবদের আধিপত্য, মুসলমানদের আধিপত্য এবং ধর্ম পালন এই তিনটি বিষয় একসাথে প্রকাশ হতো।

১৯'শ শতকের শেষের দিকে ঢাকায় শবে বরাত পালন মুসলিম পরিচয় প্রকাশের বিষয় হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিল। এমনটাই বলছেন অধ্যাপক মামুন। সেই ধারাবাহিকতায় শবে বরাত একটি বড় ধরনের উৎসবে পরিণত হয়েছে।

পাকিস্তান আমলে এর সঙ্গে সরকারি ছুটি যুক্ত হওয়ায় সেটি পালনের ব্যাপকতা আরো বেড়েছে বলে অধ্যাপক মামুন উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, একটা সময় ছিলো যখন ঢাকায় শবে বরাত পালনের বিষয়টি ছিল সুন্নি মুসলমানদের মধ্যে।

ইতিহাসবিদদের মতে, বর্তমান বাংলাদেশে শবে বরাত পালন ধর্ম এবং সংস্কৃতির অংশ হয়ে গেছে। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের অনেকেই মনে করেন, শবে বরাতের রাতে পরবর্তী এক বছরের ভাগ্য নির্ধারিত হয়। তাঁর মতে শবে বরাত নিয়ে অনেক ধারণা প্রচলিত আছে । এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো খাওয়া-দাওয়া।

বাংলাদেশের সমাজে অনেকেই মনে করেন, শবে বরাতের রাতে হালুয়া এবং রুটি তৈরি বাধ্যতামূলক। এছাড়া খাবারে মাছ কিংবা মাংস পরিবেশন করাকে অনেকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন।

কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ বলেন, ভারতীয় উপমহাদেশে হালুয়া-রুটির সংস্কৃতি চলে আসছে। কিন্তু ইসলামের দৃষ্টিতে এটি খাওয়ার সঙ্গে শবে বরাতের জন্য বাধ্যতামূলক নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)


'নরসিংদীতে সংঘর্ষে হতাহতের দায় নেবে না আ.লীগ'
কুয়েতে প্রবাসি কর্মীদের জন্য হটলাইন চালু
খাসোগির স্ত্রী দাবি করলেন মিসরীর এক নারী!
নরসিংদীতে আ.লীগের দু'পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ৪
সাংবাদিক শাহরিয়ার শহীদ আর নেই
মাঠে ফিরেছেন সাকিব, নেই তামিম
'২০১৪ সালে আ.লীগ ভোটাধিকার বঞ্চিত করেছিল'
'সত্য বলায় সিনহাকে জোর বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে'
হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সিএমএইচে ভর্তি
বগুড়ায় আ.লীগ নেতার গলাকাটা লাশ উদ্ধার
অ্যাপেনডিসাইটিসের কারণ ও লক্ষণ
যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি চিকিৎসক হাফিজের কৃতিত্ব 
মন্দিরে নারীদের ঢোকা নিয়ে রায়ে তোলপাড়
লাল কেল্লা দখলের হুমকি মুহাম্মদ খানের
বাস থেকে বাবাকে ফেলে মেয়েকে হত্যা: গ্রেপ্তার ৩
লবিস্ট নিয়োগ করছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের
দিনাজপুরে ১৮৩ বোতল ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার
‌‌‘মাদককে না বলে’ হেঁটেই টেকনাফ টু তেঁতুলিয়া!
নকল চাঁদের পর নকল সূর্যও বানাল চীন!
চট্টগ্রামের ডিআইজি প্রিজন ও সিনিয়র জেল সুপারকে বদলি
'নরসিংদীতে সংঘর্ষে হতাহতের দায় নেবে না আ.লীগ'
 ফুলবাড়িতে বৃদ্ধার আত্মহত্যা
চাঁপাইনবাবগঞ্জে চার আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার
ওবায়দুল কাদেরের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ
চালু হয়েই ফের বন্ধ নাটারের নর্থবেঙ্গল সুগার মিল
কুয়েতে প্রবাসি কর্মীদের জন্য হটলাইন চালু
খাসোগির স্ত্রী দাবি করলেন মিসরীর এক নারী!
নরসিংদীতে লাশ উদ্ধার
নরসিংদীতে আ.লীগের দু'পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ৪
সাংবাদিক শাহরিয়ার শহীদ আর নেই
মাঠে ফিরেছেন সাকিব, নেই তামিম
'২০১৪ সালে আ.লীগ ভোটাধিকার বঞ্চিত করেছিল'
'সত্য বলায় সিনহাকে জোর বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে'
হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সিএমএইচে ভর্তি
NEWS24 এর লোগো ব্যবহার করে ভুয়া সাইট
বগুড়ায় আ.লীগ নেতার গলাকাটা লাশ উদ্ধার
অ্যাপেনডিসাইটিসের কারণ ও লক্ষণ
চাঁপাইনবাবগঞ্জে উদীচী সুবর্ণজয়ন্তী পালিত
যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি চিকিৎসক হাফিজের কৃতিত্ব 
মন্দিরে নারীদের ঢোকা নিয়ে রায়ে তোলপাড়
নির্বাচন করবেন হিরো আলম!
'পুলিশ রাষ্ট্রের কর্মচারী, প্রতিপক্ষ ভাববেন না'
৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’: রব
বিএনপিকে চাঙ্গা করতে আসছেন জোবাইদা
নাইম হত্যা: ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ৫, বিক্ষোভ
চীন সফরে বিএনপির প্রতিনিধি দল
ইসলাম গ্রহণকারী ভারতীয় সেই নারী খুন
নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়বে যুক্তফ্রন্ট
মাশরাফির নির্বাচন নিয়ে যা বললেন তার বাবা
দ্বিতীয় বিয়েতে দীপিকা-রণবীর
হামাসের ক্ষেপণাস্ত্রে ইসরাইলের সেনাবাস ভস্মীভূত
মনোনয়নপত্র কিনলেন বাবরের স্ত্রী শ্রাবণী
মৃত্যুর আগে যে কথা বলেন খাসোগি
বিএনপির কাছে ১০০ আসন চাচ্ছেন শরিকরা
সংসদ নির্বাচনে যাচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
বয়স বাড়বে কিন্তু শক্তি কমবে না
মির্জা ফখরুলকে ক্ষমা চাইতে আল্টিমেটাম
‘বিনা উসকানিতে’ এটা করল বিএনপি: কাদের
ফকিরাপুল-কাকরাইল বিএনপির দখলে
‘আমাদের নির্বাচনে যাওয়ার দরকার নেই’

সব খবর