২৫ ডিসেম্বর ২০১৬
নিউজ ২৪ ডেস্ক
বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে পালিত হচ্ছে শুভ বড়দিন
পশ্চিমতীরের বেথেলহামে, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, ইরাক, তিউনিশিয়া, পাকিস্তান, তুরস্ক, স্পেন, বেলারুশ, শ্রীলংকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে নানা আয়োজনে পালিত হচ্ছে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব-শুভ বড়দিন। খ্রিস্ট ধর্মীয় বিশ্বাস মতে, মানবজাতিকে পাপ-পঙ্কিলতা থেকে মুক্তির পথ দেখাতে বেথেলহেম নগরীর এক আস্তাবলে মাতা মেরির গর্ভে এই দিনে জন্মগ্রহণ করেন যিশুখ্রিস্ট। প্রার্থনা, ভোজ, শুভেচ্ছা আর উপহার বিনিময়ের মাধ্যমে বিশ্বের নানা দেশে পালিত হচ্ছে দিবসটি। খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সকল মানুষকে, নিপীড়িত অভুক্ত শিশু-অভিবাসীদের কল্যান কামনাসহ শান্তির চিন্তার মাধ্যমে যীশু খ্রিস্টের জন্মদিন পালন করতে বলেছেন পোপ ফ্রান্সিস। রোমের সেন্ট পিটার্স বাসিলিকাতে বড়দিন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে বিপুল জনসাধারণের উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে এ আহবান জিানান তিনি। পোপ ফ্রান্সিস বলেনঃ “যাবপাত্রের শিশু আমাদেরকে চ্যালেঞ্জ নেয়ার অনুমতি দিন। যেসব শিশু আজ সুন্দর শান্তিপূর্ণভাবে ঘুমাতে পারে না, স্নেহ বঞ্চিত জীবন যাপন করে, বোমাহামলা আর নিগ্রহের মধ্যে বেঁচে থাকতে হয় যাদেরকে তাদের জন্য কিছু করার অনুমতি দিন ঈশ্বর। যেসব অভিবাসী অভূক্ত অবস্থায়ই ঝুঁকি নিয়ে নৌকোতে এক স্থান থেকে লুকিয়ে অন্যত্র পাড়ি জমায় তাদের জন্য কিছু করার সুযোগ চাই ঈশ্বর। ঈশ্বরের আলোয় আলোকিত হোক সকল প্রানী।” বাইবেল মতে, যীশুর জন্মস্থান পশ্চিমতীরের বেথেলহেমে স্থানীয় অধিবাসী ও হাজার হাজার পযটকের উপস্থিতিতে শান্তির বার্তাবাহী শোভাযাত্রা, প্রার্থনার মধ্য দিয়ে পালিত হয় ক্রিসমাস ইভ। আইএসের দখলমুক্ত হওয়ার পর এই প্রথমবারের মতো ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় মসুল নগরীর বারটেল্লাতে পালিত হলো মেরি ক্রিসমাস। অস্ট্রেলিয়াতেও কমতি ছিলো উৎসব আয়োজনের। সুইমিং, সানবাথ, সার্ফ বোর্ডিং সবই ছিলো এর অংশ হিসেবে। পাকিস্তানেও উদযাপিত হয়েছে ক্রিসমাস ইভ। শনিবার মাঝরাতে করাচীর সবচেয়ে বড় গির্জার যাজক ফাদার মেরিও রদ্রিগ উপস্থিত ১০ হাজারেরও বেশি খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের উদ্দে্শে রাখা বক্তব্যে শান্তির বার্তা পৌঁছে দেন। ফাদার মেরিও রদ্রিগ বলেনঃ “যদি আপনারা বিশ্বের দিকে তাকান তাহলে দেখবেন, শান্তির খুব প্রয়োজন। এমনকি অস্থির পাকিস্তানের জন্যও একই বার্তা প্রযোজ্য।” তুরস্কের ইস্তান্বুলে স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় বৃহত্তম ক্যাথলিক চার্চে বিপুল জনসমাগম ঘটে বড়দিন উদযাপন উপলক্ষে। স্পেনের রাজা ষষ্ঠ ফিলিপ বড়দিন উপলক্ষে টেলিভিশনে রাখা বক্তব্যে সকল খ্রীস্ট ধর্মাবলম্বীকে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি অসহিষ্ণুতা এবং হীন স্বার্থ ত্যাগ করে আত্মত্যাগী এবং ধৈয্যশীল হওয়ার আহবান জানান। ষষ্ঠ ফিলিপ বলেনঃ “যেসব আচরণ বা কাযকলাপ সকল স্পেনিয়ানদের অধিকারকে ক্ষুন্ন করে তা গ্রহণযোগ্য নয়। রাষ্ট্রে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য সবাই ধৈয্যশীল হবেন এবং সমভাবে সহবস্থান করবেন এটাই প্রত্যাশা।” বেলারুশের রাজধানী মিনসক, শ্রীলংকার কলম্বো, পেরুর লিমাসহ বিশ্বের প্রায় সব দেশেই শোভাযাত্রা, প্রার্থনা, সুসজ্জিত সুউচ্চ ক্রিসমাস ট্রি উন্মোচনসহ নানা ধরণের আয়োজন ছিলো বড়দিনকে ঘিরে। রাশিয়ার মস্কোতে স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় ৮ দিন ব্যাপী বড়দিন উৎসব হান্নুকাহর উদ্বোধন ছিলো আরো আকর্ষণীয়। সব আয়োজনের একটাই উদ্দেশ্য আর তা হলো অটুট থাকুক বিশ্বব্যাপী সকল মানুষের শান্তি আর সম্প্রীতির মেলবন্ধন।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
২৯ মে ২০১৭
নিউজ ২৪ ডেস্ক
রমজানে বিবাহ বিচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা
পবিত্র রমজান মাসে মুসলমানদের কোন বিবাহ বিচ্ছেদ করা যাবে না বলে নির্দেশনা দিয়েছেন ফিলিস্তিনের ইসলামিক আদালতের প্রধান। বিগত বছরগুলোর অভিজ্ঞতার আলোকে বিস্তারিত
২৯ মে ২০১৭
নিউজ ২৪ ডেস্ক
ভারতে প্রকাশ্যে গরু জবাই করায় মামলা
ভারতের কেরালা রাজ্যে প্রকাশ্যে গরু জবাই করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন যুব কংগ্রেসের কিছু নেতা। বিষয়টিকে ভালভাবে নেয়নি রাজনৈতিক দল থেকে শুরু করে বিস্তারিত
২৮ মে ২০১৭
নিউজ ২৪ ডেস্ক
বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১শ ২৬ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।
শ্রীলংকায় প্রবল বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১শ ২৬ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। শ্রীলংকা সরকারের পক্ষ থেকে বিস্তারিত

Copyright 2016, news24.tv
All right Reserved