গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছবি ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল 
গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছবি ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল 

প্রতীকী ছবি

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছবি ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল 

অনলাইন ডেস্ক

গৃহবধূকে ধর্ষণ করে ব্ল্যাকমেইল কারার অভিযোগে আবু বক্কর ছিদ্দিক (৩৫) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধর্ষণের পর ছবি ধারণ করে ওই গৃহবধূকে বিভিন্ন সময়ে ব্ল্যাকমেইল করে। নোয়াখালীর চাটখিল পৌরসভায় এ ঘটনা ঘটেছে। এ অভিযোগে চাটখিল থানা পুলিশ রোববার রাতে আবু বক্কর ছিদ্দিক (৩৫) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

চাটখিল থানার ওসি গিয়াস উদ্দিন সোমবার জানান, গ্রেপ্তার আবু বক্কর ছিদ্দিকের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন ও পর্নোগ্রাফি এবং আইসিটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মামলার সূত্রে জানা যায়, আবু বক্কর ছিদ্দিক ২০২০ সালে একই বাড়ির ওই গৃহবধূকে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে ধর্ষণ করে এবং তার মোবাইলে ছবি ধারণ করে রাখে। পরবর্তীতে আবু বক্কর ওই গৃহবধূকে ধর্ষণের ছবি তার স্বামীকে ও আত্মীয়স্বজনকে দেখানোর ভয় দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

এছাড়া আবু বক্কর ধর্ষণের ছবি প্রকাশ করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই গৃহবধূর কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে প্রায় ২০ লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নেয়। গত বৃহস্পতিবার আবু বক্কর ওই গৃহবধূকে আবারো টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দেয় এবং কৌশলে গৃহবধূর স্বামী সাখাওয়াতের কাছ থেকে একটি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়।

সন্ধ্যায় সাখাওয়াত চাটখিল বাজারে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে আবু বক্কর তার ওপর হামলা চালিয়ে তাকে মারধর করে। পরে গৃহবধূ সব ঘটনা তার স্বামীকে খুলে বলেন।

এ ব্যাপারে গৃহবধূ বাদী হয়ে চাটখিল থানায় মামলা করলে পুলিশ আবু বক্করকে গ্রেপ্তার করে।

news24bd.tv/কামরুল