সিলেটে ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া
সিলেটে ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া

সংগৃহীত ছবি

সিলেটে ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া

অনলাইন ডেস্ক

সিলেট নগরীর চৌহাট্টা এলাকায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ছাত্রলীগের ধাওয়া খেয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। এই ঘটনার লাইভ করতে গিয়ে হামলার শিকার হন যুক্তরাজ্যভিত্তিক বাংলা চ্যানেল এস’র প্রতিনিধি মঈন উদ্দিন মঞ্জু।

তিনি সিলেটে কর্মরত টেলিভিশন সাংবাদিকদের সংগঠন ইলেট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (ইমজা) সভাপতি।

আহত অবস্থায় তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দুপুর ২টায় মহানগর ও বিকেল ৪টায় জেলা ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেব নগরীতে পৃথক বিক্ষোভ মিছিল করে। নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে মিছিল-পরবর্তী সমাবেশে জেলা ছাত্রদল সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন বক্তৃতা করেন। এই সমাবেশ শেষে ছাত্রদলের কিছু নেতাকর্মী চৌহাট্টা পয়েন্ট-সংলগ্ন সরকারি আলিয়া মাদ্রাসার সামনে অবস্থান নেন।

এদিকে বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদকের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে একই স্থানে ফিরে আসে জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ছাত্রলীগের মিছিলটি চৌহাট্টা পয়েন্টে আসার পর জেলা ছাত্রদলের কর্মসূচি শেষে পাশে অবস্থানরত ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু করে। এ সময় উভয়পক্ষে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে চৌহাট্টা এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

একপর্যায়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ধাওয়া খেয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা আলিয়া মাদ্রাসা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোঁটা হাতে সেখানেও তাদের ধাওয়া দেয়। এই ঘটনার ভিডিও করার সময় আলিয়া মাদ্রাসা ক্যাম্পাসের ভেতরে মারধরের শিকার হন সাংবাদিক মঈন উদ্দিন।

মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানান, বিকেলে পৃথক বিক্ষোভ মিছিল বের করে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল। এ সময় দুইপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া চলার সময় কে বা কারা সাংবাদিক মঈন উদ্দিন মঞ্জুর ওপর হামলা চালিয়ে আহত করে।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সমন্বয়ক ডা. কায়সার খোকন জানান, সাংবাদিক মঞ্জু হাতে ও পিঠে আঘাত পেয়েছেন। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই হামলার নিন্দা ও দায়ীদের গ্রেপ্তার দাবি করেছেন বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা।

news24bd.tv/কামরুল