লাহোর রণক্ষেত্র
লাহোর রণক্ষেত্র

লাহোর রণক্ষেত্র

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের সদ্যক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে লাহোর।

পিটিআইয়ের ‘আজাদি মার্চ’ ঠেকাতে দেশটির সরকার সম্ভাব্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। রাজধানীতে আইন প্রয়োগকারী বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন ও তাদের উচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে।

লাহোরের বাট্টি চক এলাকায় পিটিআইয়ের কর্মীরা সড়কের প্রতিবন্ধকতা সরিয়ে ফেলার সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে।

এ সময় পিটিআই কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। পিটিআইয়ের লাহোর শাখা দলের নেতা-কর্মীদের বাট্টি চকে জড়ো হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। সেখান থেকে তারা ইসলামাবাদের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

দলটির কর্মীরা বাট্টি চকের মোড়ে জড়ো হয়ে সড়কের প্রতিবন্ধকতা অপসারণের চেষ্টা চালিয়েছে। পরে পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় তাদের। ওই এলাকা থেকে পুলিশ ইতোমধ্যে পিটিআইয়ের ১০ জনের বেশি কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে বলে দেশটির গণমাধ্যম খবর দিয়েছে। এছাড়াও শ্রীনগর মহাসড়ক থেকে পিটিআইয়ের কিছু কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে, দেশটির সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়াসমিন রশিদের গাড়িতে হামলা চালিয়েছে পুলিশ। আজাদি মার্চে যোগদান ঠেকাতে পিটিআইয়ের এই নেত্রীর গাড়ির সামনের কাঁচ পুলিশ ভেঙে ফেলেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এই ঘটনার ভিডিওতে দেখা যায়, পিটিআইয়ের নেত্রীকে থামাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করছে। কিন্তু তারপরও তার গাড়ি সামনে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে পুলিশের ব্যাপক বাক-বিতণ্ডা হয় সাবেক এই মন্ত্রীর।

অন্যদিকে পিটিআইয়ের চেয়ারম্যান ইমরান খান ওয়ালি মোড় থেকে আজাদি মার্চে নেতৃত্ব দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। হেলিকপ্টারে করে সেখানে অবতরণ করেছেন তিনি। আজাদি মার্চে যোগ দিতে যাওয়ার আগে এক ভিডিও বার্তায় সাবেক এই পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, পাকিস্তানের জন্য এটি একটি চূড়ান্ত মুহূর্ত।

আজাদি মার্চে তার সাথে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে সমর্থকদের আশ্বস্ত করে ইমরান খান বলেছেন, পিটিআই স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনবে।

news24bd.tv তৌহিদ