নরসিংদী রেল স্টেশনে নারীদের ‘অহিংস অগ্নিযাত্রা’ 
নরসিংদী রেল স্টেশনে নারীদের ‘অহিংস অগ্নিযাত্রা’ 

সংগৃহীত ছবি

নরসিংদী রেল স্টেশনে নারীদের ‘অহিংস অগ্নিযাত্রা’ 

অনলাইন ডেস্ক

নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনে অশালীন পোষাক পরার অজুহাতে এক বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী ও তার ২ বন্ধুকে হেনস্তার প্রতিবাদে রাজধানী ঢাকা থেকে নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশন ভ্রমণ করেছেন একদল নারী। অন্তত ২০ জন নারীর এই দল তাদের এ ভ্রমণের নাম দিয়েছেন ‘অহিংস অগ্নিযাত্রা’। তারা রাজধানীর বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মী বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (২৭ মে) সকালে একটি ট্রেনে করে তারা নরসিংদী স্টেশনে যান বলে নিশ্চিত করেন নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. মুসা।

প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া তরুণ-তরুণীরা হলেন, তৃষিয়া, সুরভী, এ্যানি, আনোয়ার, অর্ণব, নুভা, মম, অপরাজিতা, সামিহা, সানজানা, স্মিতা, লক্ষ্মী, অন্তরা, মিশু, প্রমি, জিসা, নিশা, বিজু, ইফফাত, নীল। তারা একেকজন নারীবাদী, শিল্পী, সংগঠক, নাট্যকর্মী, চলচ্চিত্র নির্মাতা, আলোকচিত্রী, গবেষক, উন্নয়নকর্মী ও প্রকৌশলী।

দলটির সদস্য তৃষিয়া নাশতারান জানান, আমাদের ইচ্ছামতো পোশাক পরে নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশন ভ্রমণ করেছি আমরা। এটা আমাদের নিরব প্রতিবাদ। আমরা স্টেশনে এসে এখানকার মানুষদের সাথে কথা বলেছি, সেদিনের ঘটনা সম্পর্কে জানতে চেয়েছি।

নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. মুসা গণমাধ্যমকে জানান, একদল সংগঠক শুক্রবার সকালে স্টেশনে আসেন এবং বেশ কয়েকটি উপদলে ভাগ হয়ে স্টেশনের বিভিন্ন প্রান্তে ভ্রমণ করেন ও ছবি তোলেন। এ সময় তারা স্থানীয়দের সাথে কথা বলে আমার কক্ষে এসে সেদিনের ঘটনা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৮ মে ভোরে নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশনে এক তরুণী দুই বন্ধুকে নিয়ে ঘুরতে এসে স্থানীয় এক মাঝবয়সী নারী ও কয়েকজন বখাটের হাতে হেনস্তার শিকার হন। এ ঘটনার পরে, পুলিশ বাদী হয়ে ভৈরব রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে মামলা করে এবং পরে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে। তবে, ঘটনার ৭ দিনের বেশি পার হলেও ঘটনার মূল হোতা মাঝবয়সী ওই নারীকে এখনও গ্রেপ্তার করা যায়নি।

news24bd.tv/আলী