বাটলারের বিধ্বংসী সেঞ্চুরিতে ফাইনালে রাজস্থান 
বাটলারের বিধ্বংসী সেঞ্চুরিতে ফাইনালে রাজস্থান 

বাটলারের বিধ্বংসী সেঞ্চুরিতে ফাইনালে রাজস্থান 

অনলাইন ডেস্ক

বাটলারের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে উঠল রাজস্থান। শুক্রবার গুজরাটের রাজধানী আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৭ রান সংগ্রহ করে ব্যাঙ্গালুরু।

জবাবে বাটলারের অবিশ্বাস্য শতকে ভর করে ৩ উইকেট হারিয়েই জয় তুলে নেয় রাজস্থান।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দুই উদ্বোধনী ব্যাটার যশস্বী জশওয়াল ও জস বাটলার মিলে রাজস্থানকে ভালো শুরু এনে দেন।

দুজনের জুটিতে আসে ৬১ রান। জশওয়াল ১৩ বলে ২১ রান করে বিদায় নেন। এরপর অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসনের সঙ্গে ৫২ রানের জুটি গড়েন বাটলার। কিন্তু জুটিতে স্যামসনের অবদান ২১ বলে ২৩ রান। দেবদূত পাড়িক্কালও বেশি রান (৯) করেননি। কিন্তু বাটলার ছিলেন খুনে মেজাজে।  

ব্যাট হাতে ব্যাঙ্গালুরুর বোলারদের একাই কচুকাটা করেন বাটলার। ১৮তম ওভারের শেষ বলে এই ইংলিশ ব্যাটার তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেন, তাও মাত্র ৫৯ বলে। চলতি আইপিএল এটা তার চতুর্থ সেঞ্চুরি। আইপিএলের ইতিহাসে এক আসরে চারটি সেঞ্চুরির কীর্তি আছে কেবল বিরাট কোহলির। ২০১৬ সালের আসরে ওই রেকর্ড গড়েছিলেন ব্যাঙ্গালুরুর সাবেক অধিনায়ক। এখন তাতে ভাগ বসালেন বাটলার।

আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির রেকর্ডেও কোহলিকে স্পর্শ করেছেন বাটলার। সবমিলিয়ে আইপিএলে বাটলারের মোট সেঞ্চুরি হলো ৫টি, এর মধ্যে চলতি আসরেই ৪টি! কোহলি ও বাটলারের চেয়ে এগিয়ে শুধু ক্রিস গেইল। 'ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব' আইপিএলে ৬টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। ৪টি করে সেঞ্চুরি আছে শেন ওয়াটসন, ডেভিড ওয়ার্নার ও লোকেশ রাহুলের নামের পাশে।

রাজস্থানের জয়সূচক রানও আসে বাটলারের ব্যাট থেকে। ইনিংসের ১৯তম ওভারে হার্শাল প্যাটেলের করা প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে রাজস্থানের ফাইনালে উঠা নিশ্চিত করে ফেলেন তিনি। দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়ার আগে ৬০ বলে ১০৬ রানে অপরাজিত থাকেন বাটলার। দুর্দান্ত ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছেন ৬টি ছক্কা ও ১০টি চারে।  

বল হাতে ব্যাঙ্গালুরুর জশ হ্যাজেলউড ২টি ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ১টি করে উইকেট পেয়েছেন।  

এর আগে তরুণ ব্যাটার রজত পাতিদারের ফিফটিতে ভর করে মাঝারি সংগ্রহ পায় ব্যাঙ্গালুরু। ওপেনিংয়ে নেমে ফের ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন কোহলি (৮ বলে ৭ রান)। অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি ২৭ বলে করেছেন ২৫ রান। এছাড়া গ্ল্যান মাক্সওয়েল ১৩ বলে ২৪ ও শাহবাজ আহমেদ ৮ বলে ১২ রান করেছেন। বাকিরা কেউই দুই অঙ্কের দেখা পাননি। বরং দলের পঞ্চম সর্বোচ্চ রান (১৫) এসেছে এক্সট্রা থেকে। বল হাতে রাজস্থানের প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা ও ওবেদ ম্যাকয় ৩টি করে এবং ট্রেন্ট বোল্ট ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

news24bd.tv তৌহিদ