ডায়াবেটিস রোগীর ফল খাওয়ার পরিমাণ জেনে নিন
ডায়াবেটিস রোগীর ফল খাওয়ার পরিমাণ জেনে নিন

প্রতীকী ছবি

ডায়াবেটিস রোগীর ফল খাওয়ার পরিমাণ জেনে নিন

অনলাইন ডেস্ক

চলছে ফলের মৌসুম। বাজারে এখন আম, কাঁঠাল, লিচু অনেক রকমের ফল পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু ডায়াবেটিসের রোগীরা কী ফল খাবেন, কী ফল খাবেন না অথবা খেলেও কতটুকু পরিমাণ খাবেন- এসব নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় ভোগেন। নিয়ম ও সময় মেনে ফল খেলে রক্তে শর্করা বাড়বে না, ইনসুলিন বা ট্যাবলেটের মাত্রাও বাড়াতে হবে না।

এছাড়া জুস বা শরবত করে খাওয়ার চেয়ে আস্ত বা গোটা ফল খাওয়া ভালো। কারণ, এতে ফাইবার অটুট থাকে। আসুন জেনে নিই ডায়াবেটিসের রোগী কোন ফল কতটুকু খেতে পারবেন।

আম: সারা দিনে মাঝারি আকারের আম হলে একটি অথবা বড় আকারের হলে অর্ধেক খাওয়া যাবে।

কাঁঠাল: ডায়াবেটিসের রোগী দিনে পাকা কাঁঠালের তিন–চারটি কোষ খেতে পারবেন। মনে রাখতে হবে, ওই দিন অন্য কোনো মিষ্টি ফল যেমন আম, কলা, তরমুজ, পাকা পেঁপে বা খেজুর খাওয়া যাবে না।

লিচু: ডায়াবেটিসের একজন রোগী দিনে ছয়টির বেশি লিচু খেতে পারবেন না। তবে ওই দিন অন্য মিষ্টিজাতীয় ফল খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিতে হবে।

তরমুজ: অনেকের ধারণা, তরমুজে জলীয় অংশ বেশি, তাই সুগার বেশি বাড়বে না। এ ধারণা সঠিক নয়। ডায়াবেটিসের একজন রোগী দিনে এক ফালি তরমুজ খেতে পারবেন।

জাম: রক্তের চিনি ও চর্বি নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে জাম। ডায়াবেটিসের রোগীরা নিশ্চিন্তে যত খুশি জাম খেতে পারেন।

জেনে রাখা ভালো যে মূল খাবারের (মধ্যাহ্নভোজ বা নৈশভোজ) সঙ্গে ফল খাবেন না। কারণ, মূল খাবারে ভাত, রুটিজাতীয় শর্করা এমনিতেই থাকে। যেমন মধ্য সকাল বা বিকেলে নাশতা হিসেবে খেতে পারেন।

news24bd.tv/রিমু