আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছেছে  
আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছেছে  

ফাইল ছবি

আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছেছে  

অনলাইন ডেস্ক

বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ ঢাকায় এ‌সে পৌঁছেছে। আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে মরদেহবাহী বিমান লন্ডনের হিথ্রো এয়াপোর্ট থেকে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।

বিমানবন্দরে আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ গ্রহণ করেছেন মু‌ক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, সংস্কৃ‌তি প্র‌তিমন্ত্রী কে এম খা‌লিদ, কৃ‌ষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, রেলমন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।

আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ বিমানে তোলার সময় যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশন সাইদা মুনা তাসনিম হিথ্রো এয়াপোর্টে উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তাকে নিয়ে যাওয়া হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে দুপুর ১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জানাযার নামাজ হবে। এরপর তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে জাতীয় প্রেসক্লাবে। পরে আবদুল গাফফার চৌধুরীর ইচ্ছা অনুযায়ী মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে স্ত্রীর কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ হাইকমিশন, লন্ডন, মরহুম আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ সম্পূর্ণ রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশে পাঠানোর সার্বিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে।

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর জন্ম ১২ ডিসেম্বর ১৯৩৪। একজন সুপরিচিত বাংলাদেশি গ্রন্থকার, কলাম লেখক। তিনি ভাষা আন্দোলনের স্মরণীয় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানের রচয়িতা। স্বাধীনতাযুদ্ধে মুজিবনগর সরকারের মাধ্যমে নিবন্ধিত স্বাধীন বাংলার প্রথম পত্রিকা সাপ্তাহিক ‘জয় বাংলা’র প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক ছিলেন।

বরিশাল জেলার উলানিয়া গ্রামের চৌধুরী বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী। তার বাবা হাজি ওয়াহিদ রেজা চৌধুরী ও মা জহুরা খাতুন।

news24bd.tv/রিমু