ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ : মৃত্যুদণ্ডের মুখে ব্রিটিশ ভাড়াটে যোদ্ধা
ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ : মৃত্যুদণ্ডের মুখে ব্রিটিশ ভাড়াটে যোদ্ধা

সংগৃহীত ছবি

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ : মৃত্যুদণ্ডের মুখে ব্রিটিশ ভাড়াটে যোদ্ধা

অনলাইন ডেস্ক

ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পরাশক্তি রাশিয়া। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোর থেকে শুরু হয় এই অভিযান তিন মাসেরও বেশি সময় অতিক্রম করছে। রাশিয়ার ছোঁড়া বোমা আর রকেটে কেঁপে উঠছে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহর। এরইমধ্যে ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি নগরী দখলে নিয়েছে রুশ বাহিনী।

ইউক্রেনে প্রতিদিনই বাড়ছে নিহতের সংখ্যা। শরণার্থী হয়েছেন লাখ লাখ মানুষ। এদিকে, ইউক্রেনে যুদ্ধ করতে গিয়ে মৃত্যুদণ্ডের মুখে পড়েছে ব্রিটেন ও মরক্কোর সন্দেহভাজন তিন ভাড়াটে যোদ্ধা।

এ তিন ভাড়াটে যোদ্ধা ইউক্রেনের সেনাদের পক্ষে লড়াইয়ে যোগ দেয় এবং পরবর্তীতে দোনেস্ক পিপলস রিপাবলিকের বাহিনীর হাতে ধরা পড়ে। সেখানকার সরকারি কৌঁসুলির কার্যালয় থেকে গতকাল শুক্রবার এসব তথ্য  বলা হয়েছে। এ তিনজনের মৃত্যুদণ্ড দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।  

দোনেস্ক প্রজাতন্ত্রের বিচার বিভাগের মুখপাত্র ভিক্টর গ্যাব্রিলভ বলেন, “একদল বিদেশী ভাড়াটে যোদ্ধা যারা দোনেস্ক প্রজাতন্ত্রে শত্রুতামূলক তৎপরতায় অংশ নিয়েছিল তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষে পূর্ণাঙ্গ মামলা করা হয়েছে। মামলার নথিপত্র দোনেস্কের একটি আদালতে পাঠানো হয়েছে। যুদ্ধকালীন এই ধরনের অপরাধের জন্য তাদের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের মতো বড় রকমের শাস্তি হতে পারে।   

সরকারি কৌঁসুলির কার্যালয় বলেছে, তদন্তে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, ব্রিটিশ নাগরিক শন পিনার ও অ্যান্ড্রু হিল এবং মরক্কোর নাগরিক ইবরাহিম সাদুন দোনেস্ক অঞ্চলে বিদেশী ভাড়াটে যোদ্ধা হিসেবে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিল।

এর আগে রাশিয়ার সেনা মুখপাত্র মেজর জেনারেল ইগোর কোনাশেনকভ বলেন, বিদেশী ভাড়াটে যোদ্ধাদেরকে দীর্ঘমেয়াদে কারাগারে রাখা হতে পারে।

news24bd.tv/রিমু