ঘাটতি পূরণে স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে যুক্তরাষ্ট্র
ঘাটতি পূরণে স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে যুক্তরাষ্ট্র

ঘাটতি পূরণে স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

রুশ বাহিনীকে রুখতে মোক্ষম অস্ত্র স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র হাতে পেয়েছিলেন ইউক্রেনের সেনারা। এই ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার জন্য বিশেষ কোনো ব্যবস্থা করতে হয় না। যেকোনো জায়গায় কাঁধ থেকেই ছোড়া যায় বিমানবিধ্বংসী এই ক্ষেপণাস্ত্র। ইউক্রেনের সেনাদের যুদ্ধে রাশিয়ার অগ্রযাত্রা রুখতে এই অস্ত্র বড় ভূমিকা রেখেছে।

বিশ্লেষকেরা এমন দাবি করেছেন। ইউক্রেনকে এই স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্রের অন্যতম জোগানদাতা যুক্তরাষ্ট্র।

ইউক্রেনকে অকাতরে অত্যাধুনিক এই ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ভান্ডারে এর ঘাটতি দেখা দিয়েছে। সেই ঘাটতি পূরণে এখন যুক্তরাষ্ট্রই স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে। এ জন্য যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি অস্ত্র উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ৬৮ কোটি ৭০ লাখ ডলারের চুক্তি সই করেছে মার্কিন প্রশাসন। খবর রয়টার্স ও আল–জাজিরার।

রয়টার্সের হাতে আসা মার্কিন সরকারের এ–সংক্রান্ত নথি পর্যালোচনা করে বলা হয়েছে, সব মিলিয়ে ১ হাজার ৪৬৮টি বিমানবিধ্বংসী স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে ওয়াশিংটন। উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রেথিওন টেকনোলজিসের সঙ্গে গত বুধবার সই হওয়া চুক্তিতে এসব ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়নি।

স্টিংগার ক্ষেপণাস্ত্র আকারে তুলনামূলক ছোট, ওজনে হালকা, সহজে বহনযোগ্য। সাধারণত এই অস্ত্র কাঁধে বহন করা যায়। হেলিকপ্টার, যুদ্ধবিমান, মনুষ্যবিহীন বিমান বা ড্রোন, এমনকি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র সহজে ধ্বংস করতে এটি বেশ কার্যকর।
অস্ত্র কেনার এই চুক্তির বিষয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন ও রেথিওন টেকনোলজিস আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। রয়টার্সের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলেও তারা কিছু বলেনি।

news24bd.tv তৌহিদ