বগুড়ায় অস্ত্রের মুখে গৃহবধূকে ধর্ষণ
বগুড়ায় অস্ত্রের মুখে গৃহবধূকে ধর্ষণ

বগুড়ায় অস্ত্রের মুখে গৃহবধূকে ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (৩১ মে) দুপুরে ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে শেরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পরে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রনি হোসেনকে (২১) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

রনি হোসেন উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের শুভগাছা মধ্যপাড়া গ্রামের বাবলু মিয়ার ছেলে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২৮ মে (শনিবার) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার শুভগাছা মধ্যপাড়া গ্রামের প্রতিবন্ধী কাওছার প্রামাণিকের স্ত্রী ঘরের দরজা খুলে বাড়ির পাশের টিউবওয়েলে পানি আনতে যান। এই সুযোগে প্রতিবেশী রনি প্রাচীর টপকে বাড়ির ভেতর গিয়ে গৃহবধূর ঘরে ঢুকে পড়েন।  

পরে ওই গৃহবধূ ঘরে এলে তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করেন রনি। এ সময় ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন রনি।

পরে গৃহবধূর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এলে রনি দ্রুত পালিয়ে যান।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয়ভাবে আপোষ-রফার কথা বলে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন গ্রামের কিছু ব্যক্তি। আইনের আশ্রয় নিতেও বাধা দেন তারা । মামলা করলে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতিও দেখানো হয় আমাকে। এরপরও উপযুক্ত বিচার পাওয়ার আশায় থানায় মামলা করেছি।

শেরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা নেওয়া হয়েছে। মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিকেলে তাকে বগুড়ায় আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে থানা হাজতে আটক রনির বক্তব্য জানতে চাইলে ভুলবশত এই কাজটি করেছেন বলে স্বীকার করেছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

এই রকম আরও টপিক