বিএসএমএমইউতে ডিজিটাল হাজিরা পদ্ধতি চালু
বিএসএমএমইউতে ডিজিটাল হাজিরা পদ্ধতি চালু

বিএসএমএমইউতে ডিজিটাল হাজিরা পদ্ধতি চালু

বিএসএমএমইউতে ডিজিটাল হাজিরা পদ্ধতি চালু

অনলাইন ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) অটোমেশন ব্যবস্থার অংশ হিসেবে উপস্থিতি বা হাজিরার ডিজিটাল পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। বুধবার (১ জুন) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সি’ ও ‘ডি’ ব্লকে অটোমেশনের জন্য স্থাপিত মেশিনে নিজের হাজিরা দিয়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ।

এর আগে সকাল সাড়ে ৮টায় শহীদ ডা. মিল্টন হলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সকল বিভাগের চেয়ারম্যানদের সাথে বৈঠক করে। বৈঠকের শুরুতে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদের কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অটোমেশনের কার্ড হস্তান্তর করেন ইনফরমেশন টেকনোলজি (আইটি) সেলের ইনচার্জ অধ্যাপক ডা. মোঃ সায়েদুর রহমান।

বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সকলকে নিজ নিজ দায়িত্ব কর্তব্য অবশ্যই নিষ্ঠার সাথে সঠিকভাবে পালন করতে হবে। কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকা ও দায়িত্ব অবহেলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রয়োজনে চাকুরীচ্যুত করা হবে।

বাংলার মানুষের স্বপ্নের পদ্মাসেতু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক উদ্বোধনী দিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়েও বিশেষ উৎসব পালন করা হবে বলে জানান উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ।

বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত দুমাসের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের উপর আলোচনা করা হয়। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রমের গতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, চিকিৎসা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা  আরও বৃদ্ধির জন্য নানান বিষয় তুলে ধরা হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ণাঙ্গভাবে ইভিনিং শিফট চালুর জন্য চিকিৎসকদের রোস্টার, প্রতিটি বিভাগে বিগত দিনের ১০টি সেরা থিসিস বাছাইকরণ, দুর্ঘটনা এড়াতে বিভিন্ন ওয়ার্ডে রোগীর স্বজনদের হিটারে রান্না বন্ধকরণ, টিচার এ্যাসিট্যান্স হিসেবে (টিএ) এমএমসি নার্সিং শিক্ষার্থীদের জন্য ফেস বি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সেরা রেসিডেন্টদের বাছাইকরণ, সরকারের কাছে বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজে শিক্ষক সংকট দূর করার জন্য এখানকার কনসালট্যান্টদের ডেপুটেশনের প্রস্তবনা তুলে ধরা, পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের মান আরও উন্নয়ন করা, সাধারণ জরুরিবিভাগসহ সকল ইমার্জেন্সি বিভাগের জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের অন কলে ডাকার প্রস্তাবনাও করা হয়।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমদ, উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মোঃ জাহিদ হোসেন, উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. হাবিবুর রহমান, রেজিস্ট্রার ডা. স্বপন কুমার তদাপার,সকল ডিন ও বিভাগীয় চেয়ারম্যানবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/রিমু