'নির্বাচন ঘোষণা না করলে দেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হবে'
'নির্বাচন ঘোষণা না করলে দেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হবে'

সংগৃহীত ছবি

'নির্বাচন ঘোষণা না করলে দেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হবে'

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের সদ্য ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ও পিটিআই সভাপতি ইমরান খান বলেছেন, শিগগিরি নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা না করলে দেশ গৃহযুদ্ধের মুখে পড়বে। গতকাল বুধবার পাকিস্তানের একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতীয় সংসদে ফেরার কোনো প্রশ্ন নেই কারণ সংসদে ফেরার অর্থ হবে যে ষড়যন্ত্র করে তার সরকারকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে তা মেনে নেয়া। তার দলের বিক্ষোভকারীদেরকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টের কাছে যে আবেদন জানিয়েছেন তিনি তার সিদ্ধান্তের অপেক্ষা রয়েছেন।

সম্প্রতি ইমরান খান রাজধানী ইসলাবাদ অভিমুখে দলীয় নেতা-কর্মী নিয়ে মার্চ করেন এবং নির্বাচনের দাবি জানান। শিগগিরি নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা না করলে তিনি আবার রাজধানী অভিমুখে মার্চ করবেন বলে হুমকি দেন। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের পরই তিনি পরবর্তী মার্চের তারিখ ঘোষণা করবেন।

ইমরান খান বলেন করেন, তিনি প্রধানমন্ত্রী হয়েও একচেটিয়া ক্ষমতার অধিকারী ছিলেন না। প্রতিটি ক্ষেত্রে তার সরকার প্রতারণার শিকার হয়েছে কিন্তু তারপরও ক্ষমতার সেই কেন্দ্রের ওপর নির্ভর করতে হয়েছে, এছাড়া কোনো উপায় ছিল না। দেশের সামরিক বাহিনী ন্যাশনাল একাউন্টিবিলিটি ব্যুরো নিয়ন্ত্রণ করে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

পাকিস্তানের ইস্টাবলিশমেন্ট যদি 'সঠিক সিদ্ধান্ত' না নেয় তাহলে দেশটি '৩ টুকরো' হতে পারে বলে হুঁশিয়ার করেন ইমরান খান। বলেন, দেশটি 'আত্মহননের' দ্বারপ্রান্তে। তার মতে, 'সঠিক সিদ্ধান্ত' নেওয়া না হলে পাকিস্তান দেউলিয়ার পথে এগিয়ে যাবে। সূত্র : ডন

news24bd.tv/রিমু