৭২ ঘণ্টা মোটরসাইকেল চলবে না
৭২ ঘণ্টা মোটরসাইকেল চলবে না

সংগৃহীত ছবি

কুসিক,৬ পৌরসভা ও ১৩৫ ইউপি নির্বাচন 

৭২ ঘণ্টা মোটরসাইকেল চলবে না

অনলাইন ডেস্ক

আগামী ১৫ জুন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক), ছয় পৌরসভা ও ১৩৫টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষ্যে এসব এলাকায় ৭২ ঘণ্টার জন্য মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এছাড়া অন্যান্য যন্ত্রচালিত যান চলাচলও ২৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে।

ইসির উপ-সচিব মো. আতিয়ার রহমান নির্দেশনাটি বাস্তবায়নের জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবের কাছে পাঠানো হয়।

এতে বলা হয়- ভোটগ্রহণের জন্য নির্ধারিত দিবসের পূর্ববর্তী মধ্যরাত অর্থাৎ ১৪ জুন দিবাগত মধ্যরাত ১২টা থেকে ১৫ জুন দিবাগত মধ্যরাত ১২ টা পর্যন্ত ট্রাক, পিক আপ চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইসি। এছাড়া ১৩ জুন দিবাগত মধ্যরাত ১২ টা থেকে ১৬ জুন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

এই নিষেধাজ্ঞা রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি সাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী/তাঁদের নির্বাচনি এজেন্ট, দেশি/বিদেশি পর্যবেক্ষকদের (পরিচয়পত্র থাকতে হবে) ক্ষেত্রে শিথিলযোগ্য হবে। তাছাড়া নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত দেশি/বিদেশি সাংবাদিক (পরিচয়পত্র থাকতে হবে), নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শক এবং কতিপয় জরুরি কাজ যেমন-এ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক, টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি কার্যক্রমে ব্যবহারের জন্য উল্লিখিত যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে উক্ত নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।

এছাড়া জাতীয় মহাসড়কে, বন্দর ও জরুরি পণ্য সরবরাহসহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এরূপ নিষেধাজ্ঞা শিথিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।

এই অবস্থায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক/অন্যান্য কর্তৃপক্ষ-কে ক্ষমতা দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।

কুসিক নির্বাচনে মেয়র পদে মেয়র পদে পাঁচজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত আরফানুল হক রিফাত, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. রাশেদুল ইসলাম, স্বতন্ত্র হিসেবে কামরুল আহসান বাবুল, মো. মনিরুল হক সাক্কু ও মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন।

এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রার্থী ১৩৬ থাকলেও দুইজন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন ২৪ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৪ জন ভোটের মাঠে রয়েছেন। সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের ক্ষেত্রে ৫ নম্বর ও ১০ নম্বর ওয়ার্ডে দু'জন প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এই সিটিতে ভোটগ্রহণ হবে সম্পূর্ণ ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে। এছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে ও ভোটকক্ষে সিসি ক্যামেরা ব্যবহার করা হবে। শুধু গোপন ভোটকক্ষ যেখানে ভোটাররা ভোট দেন, সেই অংশটুকু সিসি ক্যামেরার আওতামুক্ত থাকবে।  কুসিকের ২৭টি ওয়ার্ডে ১০৫টি ভোটকেন্দ্রের ৬৪০টি ভোটকক্ষে ভোট দেবেন ২ লাখ ২৯ হাজার ৯২০ জন ভোটার। এদের মধ্যে ১ লাখ ১৭ হাজার ৯২ জন নারী ভোটার এবং ১ লাখ ১২ হাজার ৮২৬ জন পুরুষ ভোটার  এবং দু'জন  'তৃতীয় লিঙ্গের' ভোটার রয়েছেন।

news24bd.tv/আলী