চায়ের সঙ্গে সিগারেটে স্বাস্থ্যঝুঁকি কতটুকু?
চায়ের সঙ্গে সিগারেটে স্বাস্থ্যঝুঁকি কতটুকু?

চা আর সিগারেটের এই যুগলবন্দি স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে মারাত্বকভাবে

চায়ের সঙ্গে সিগারেটে স্বাস্থ্যঝুঁকি কতটুকু?

অনলাইন ডেস্ক

অফিসে বা কাজের ফাঁকে, সকালে-বিকেলে চায়ের সঙ্গে বা যে কোনও ছুতোয় চায়ের সঙ্গে টা হিসেবে সিগারেট খান অনেকেই। বলা যায়, এটা এখন ধূমপায়ীদের একটা স্টাইল হয়ে গেছে।  অথচ অনেকে জানেনই না এতে মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে শরীরের। চা আর সিগারেটের এই যুগলবন্দি স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে মারাত্বকভাবে।

মূলত কী খাওয়া হচ্ছে?
কিছু লোক মনে করেন যে, চায়ের সঙ্গে ধূমপান করলে তারা আরও স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। অনেকে আবার বলেন, এতে তারা নাকি ক্যাফেইনের মাত্রা কম পান। অথচ এর ফলে কার্বন মনোক্সাইডে (আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত রঙ, গন্ধ ও স্বাদহীন বিষাক্ত গ্যাস) শ্বাস নেয়া হচ্ছে। এতে আপাত কারোর মাথাকে কিছুটা হালকা অনুভূতি দিতে পারে। কিন্তু স্থায়ীভাবে ব্যাপক ক্ষতি করছে।

বাড়ায় ক্যান্সার ও টিউমারের ঝুঁকি
গবেষণা বলছে, চা এবং সিগারেট একসঙ্গে খেলে বাড়তে পারে ক্যান্সারের ঝুঁকি। 'অ্যানালস অফ ইন্টারনাল মেডিসিন' নামে চিকিৎসা সংক্রান্ত পত্রিকায় এমন কথাই বলা হয়েছে। গবেষণায় জানা গেছে, যারা দিনে অন্তত এক গ্লাস অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় পান করেন এবং পাশাপাশি দিনে অতিরিক্ত গরম চা পান করেন তাদের খাদ্যনালীতে ক্যান্সার হবার ঝুঁকি বেশি থাকে।  

করণীয়
তামাক ও অ্যালকোহল দুটো থেকেই দূরে থাকুন। যে কোন ক্যান্সার প্রতিরোধে এটা সবচেয়ে ভালো উপায়। ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস না থাকলে শুধু চা পান করতে পারেন। এতে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। তবে চায়ের সঙ্গে সিগারেট অবশ্যই নয়।

news24bd.tv/arkabul