এখনো জ্বলছে আগুন, দুইটি কন্টেইনার নিয়ে শঙ্কা
এখনো জ্বলছে আগুন, দুইটি কন্টেইনার নিয়ে শঙ্কা

সংগৃহীত ছবি

এখনো জ্বলছে আগুন, দুইটি কন্টেইনার নিয়ে শঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। ২৫ ঘণ্টার বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও সেখানে জ্বলতে দেখা গেছে আগুন। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। পাশাপাশি আছে সেনাবাহিনী, র‍্যাব, পুলিশসহ বিশেষ টিম।

তবে, আগুন ডিপো এলাকায় সীমাবদ্ধ রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। এর আগে রাত ১০টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসতে পারে বলে আশা করেছিলেন সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল সাইফুল আবেদীন।  

এদিকে, বেশ কয়েকটি কন্টেইনারের মধ্যে আগুন দেখা গেলেও তাতে বড় ধরনের বিষ্ফোরণের শঙ্কা নেই, বলছে ফায়ার সার্ভিস। তবে এর মধ্যে দুটিতে শক্তিশালী কেমিক্যাল থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন তারা। সেটি হলে শঙ্কা এড়াতে পারছেন না বলে জানান দায়িত্বরতরা।

ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, শনিবার রাত ৯টা ২৫ মিনিটে আগুন লাগার খবর পায় তারা। এরপর তাদের আটটি ইউনিট কাজ শুরু করে। কিছু পরে ঘটনাস্থলে যোগ দেয় ফায়ার সার্ভিসের আরও সাতটি ইউনিট। ভোরের দিকে আশপাশের জেলা থেকে পাঁচটিসহ ১০টি ইউনিট যোগ দেয়। এখন পর্যন্ত সেখানে মোট ২৯টি ইউনিট কাজ করছে সেখানে। তবে, বিস্ফোরণ অব্যাহত থাকায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দীর্ঘক্ষণ আশপাশে যেতে পারেননি। এর সঙ্গে যোগ হয় পানির স্বল্পতা। ডিপোতে কোনো পানির উৎস না থাকায় আগুন নেভাতে বেগ পেতে হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত ৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীও আছেন। নিহতের এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সর্বশেষ দশ পুলিশসহ প্রায় কয়েকশতাধিক আহত হয়েছে বলে জানা যায়।  

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের মিডিয়া শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজাহান সিকদার  সন্ধ্যায় ৭টার দিকে  বলেছিলেন, এখনো শঙ্কা কাটেনি। বরং, আগুন বিভিন্ন কনটেইনারে জ্বলছে। রাসায়নিক পদার্থের কারণে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তবে, ভয়াবহতার শঙ্কা নেই।

শাহজাহান বলেন, কেমিক্যাল থাকায় কখন কোন কন্টিনার জ্বলে ওঠে ও বিষ্ফোরণ ঘটে, তা বলা মুশকিল। তবে, সতর্ক থাকায় আগুনের ভয়াবহতা এখন আর নেই।

এর আগে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন বলেন, আমরা চেষ্টা করছি আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য। কিন্তু, বিভিন্ন ধরনের কেমিক্যাল রয়েছে। একেক কেমিক্যাল একেক ধরনের, সেজন্য সময় লাগছে। তা ছাড়া মালিকপক্ষ কেউ না থাকায় কোথায় কোন কেমিক্যাল রয়েছে, তা আমাদের জানা নেই। তবে, আমরা চেষ্টা করছি আগুন যেন সমুদ্র এলাকা পর্যন্ত যেতে না পারে।

বিকেলে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল সাইফুল আবেদীন সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘কনটেইনারগুলো সরানো হচ্ছে, হয়তো কিচ্ছুক্ষণের মধ্যে আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আসবে। ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের যে সক্ষমতা রয়েছে, তা দিয়ে রাত ১০টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হবে বলে আশা করছি। ’

news24bd.tv/আলী