ক্রুড ওয়েলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা সৌদি আরবের 
ক্রুড ওয়েলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা সৌদি আরবের 

প্রতীকী ছবি

ক্রুড ওয়েলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা সৌদি আরবের 

আসমা তুলি

ক্রুড ওয়েলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। আসছে জুলাই থেকেই তা কার্যকর হচ্ছে। এ ঘটনায় বিশ্ববাজারে আরো বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম। তবে স্বস্তির বার্তা হলো, আগামী দুই মাসের মধ্যে তেলের উৎপাদন বাড়াতে রাজি হয়েছে ওপেক।

তেল রপ্তানিকারী দেশগুলোর সংগঠনটির এমন সিদ্ধান্তের তারিফ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।  

গত বছরের মাঝামাঝি সময় থেকেই বাড়ছিল তেলের দাম। শঙ্কা ছিল, একসময় তা বেড়ে প্রতি ব্যারেল ১০০ ডলার ছাড়িয়ে যাবে। রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা শুরুর পরই তা ১০০ ডলার ছাড়িয়ে যায়। গেল তিন মাস ধরে তেলের দর ১০০ ডলারের ওপরে।

এমন পরিস্থিতিতে সৌদি আরব ব্রেন্ট ক্রুড ওয়েলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে। আগামী জুলাই থেকে তা কার্যকর হবে। এ ঘটনায় বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম আরেক দফা বেড়েছে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় তেল উৎপাদনকারী কোম্পানি- আরামকো তথ্য অনুয়াযী ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ব্যারেল প্রতি শূন্য দশমিক ৮ শতাংশ বেড়ে ১২০ দশমিক ৬৩ ডলারে দাঁড়িয়েছে। আর  যুক্তরাষ্ট্রের ক্রুড তেলের দাম শূন্য দশমিক ৮ শতাংশ বেড়ে ১১৯ দশমিক ৮০ ডলারে দাঁড়িয়েছে। তবে দেরিতে হলেও সুড়ঙ্গের শেষ মাথায় যেন আলোর সন্ধান মিলেছে।

সম্প্রতি তেল রপ্তানিকারী দেশগুলোর সংগঠন- ওপেক, যা রাশিয়াসহ তাদের সহযোগী দেশগুলো নিয়ে ওপেক প্লাস নামে পরিচিত, তারা তেল উৎপাদন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওপেকের এমন উদ্যোগকে ইতিবাচক বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এমনকি তেল উৎপাদনকারী দেশগুলোর মধ্যে মতৈক্য তৈরি করতে পারায় সৌদি আরবের প্রশংসাও করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

news24bd.tv/রিমু