বিশ বছর আগের গান প্রকাশের মাধ্যমে লাকীর জন্মদিন উদযাপন
বিশ বছর আগের গান প্রকাশের মাধ্যমে লাকীর জন্মদিন উদযাপন

সংগৃহীত ছবি

বিশ বছর আগের গান প্রকাশের মাধ্যমে লাকীর জন্মদিন উদযাপন

অনলাইন ডেস্ক

বিশ বছর ধরে অপ্রকাশিত গানের রিলিজ, স্মৃতিচারণ ও সংগীতায়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলা সংগীতের দিকপাল লাকী আখান্দের ৬৬তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন হলো। দেশের শীর্ষ সংগীতশিল্পীরা এ উৎসবে একইসাথে প্রথমবারের মতো অডিও-ভিডিও রিলিজ করলেন। লাকী আখান্দের সুরারোপিত গোলাম মোরশেদের কথায় মেহরিনের জাদুকরী কন্ঠে গাওয়া ‘সে গানেরই পাখি’ প্রকাশ হলো আজ।

লাকী আখান্দের জন্মদিন ও তার সুর করা গান প্রকাশ উপলক্ষে আজ ৭ জুন হোটেল সোনারগাঁওয়ে উপস্থিত ছিলেন দেশের শীর্ষ সংগীত তারকারা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ‘লাকী আখান্দের সৃষ্টিসম্ভার বাংলা গানের ভুবনে বৃহত্তর শ্রোতা সমাজের’ কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

অসুস্থতাজনিত কারণে শিল্পীর জন্মজয়ন্তী আয়োজনে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব উওমেনের ভাইস চ্যান্সেলর এবং আনিসুল হক ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন ড. রুবানা হক সশরীরে হাজির হতে না পারলেও তিনি লিখিত বার্তা পাঠিয়ে শুভেচ্ছা জানান। সে স্থলে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বঙ্গবিডিডটকম-এর কো-ফাউন্ডার ও ডিরেক্টর, আনিসুল হক ফাউন্ডেশনের অন্যতম ট্রাস্টি এবং মোহাম্মাদী গ্রুপের ডিরেক্টর নাভিদুল হক।

অনুষ্ঠানে শীর্ষ শিল্পী মেহরিনের নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে ‘সে গানেরই পাখি’ গানটির অডিও এবং ভিডিও রিলিজ করেন মাননীয় অতিথিবৃন্দ। এ সময় আবহজুড়ে মোহন সুরের জাল ছড়িয়ে বেজে ওঠে ‘সে গানেরই পাখি’; উপস্থিত শিল্পীরা সবাই উঠে আসেন মঞ্চে।

সবাই মিলে কেক কাটার মধ্য দিয়ে শুরু হয় সুরের বরপুত্র শিল্পী লাকী আখান্দের ৬৬তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন আয়োজন। এরপর লাকী আখান্দের সৃষ্টিশীল জীবন নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন শিল্পীর আজীবন বন্ধু ও সঙ্গীতভুবনের সতীর্থ গোলাম মোরশেদ, মেহরিন, ফোয়াদ নাসের বাবু, বংশীবাদক ওস্তাদ আজিজুল ইসলাম, মাকসুদুল হক এবং ডা. রুবাইয়াত রহমান।

‘সে গানেরই পাখি’ এর সংগীত আয়োজন করেছেন দেশের তরুণ সংগীত প্রতিভা রূপক। এছাড়া লাইমলাইট স্টুডিওর প্রযোজনায় গানটির অনবদ্য ভিডিওটির নির্মাতা তাজওয়ার ইয়াকিন এবং এসকে নাঈম। চমৎকার ভিডিওটির কালার গ্রেডিং করেছেন তৌহিদুর রহমান রুবেল। ভিডিওতে মা ও মেয়ের চরিত্রে মডেল হিসেবে অংশ নেন নাজিফা আয়াত ও তাসনুভা, ঘটনাচক্রে ব্যক্তিগত জীবনেও যারা সম্পর্কে মা ও মেয়ে।

অনুষ্ঠানে গানটির ভিডিও চিত্র নির্মাণের নেপথ্য ফুটেজ প্রদর্শনের পাশাপাশি লাকী আখান্দের স্মৃতিবিজড়িত ভিডিও ফুটেজ প্রদর্শন হয়। এ সময় মেয়র আনিসুল হক ও শিল্পীর বিভিন্ন ফুটেজ দেখে উপস্থিত দর্শক শ্রোতাদের আবেগাপ্লুত হয়ে পড়তে দেখা যায়। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে লাকী আখান্দের ডজনখানেক গান দিয়ে সাজানো প্রায় ৪০ মিনিটের একটি মনোমুগ্ধকর জ্যামিং সেশন উপহার দেন সমবেত শিল্পী ও তারকারা।

news24bd.tv/আলী