বিশ্বকাপের ট্রফি দেখে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী
বিশ্বকাপের ট্রফি দেখে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী

সংগৃহীত ছবি

বিশ্বকাপের ট্রফি দেখে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

কাতার বিশ্বকাপ উপলক্ষে বিশ্বকাপ ট্রফি এসেছে বাংলাদেশে। সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে বিশ্বকাপের ট্রফি দেখে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমাদের এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা।

এরআগে সকাল পৌনে ১১টায় একটি চার্টার্ড বিমানে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেছে বিশ্বকাপের সোনালি ট্রফি।

বিশ্বকাপের সোনালি ট্রফিটি ঢাকায় আনার পর বিমানবন্দর থেকে নেয়া হয়েছে হোটেল রেডিসনে। শুধু বিশ্বকাপ ট্রফি একাই আসেনি বাংলাদেশে। ট্রফির সঙ্গে এসেছেন ১৯৯৮ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্য ক্রিশ্চিয়ান কারেম্বু ও অফিসিয়াল পার্টনার কোকা-কোলার কয়েকজন কর্তাব্যক্তি।

ফিফা বিশ্বকাপ মানেই উন্মাদনা। যেই উন্মাদনায় মাততে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ দীর্ঘ ৪ বছর ধরে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে। উন্মাদনার শুরুটা হয় বিশ্বকাপ ট্রফির বিশ্বভ্রমণের মাধ্যমে। এবারো তার ব্যত্যয় ঘটেনি। কাতার বিশ্বকাপের উন্মাদনা ছড়িয়ে দিতে এরই মধ্যে বিশ্বকাপ ট্রফি বেরিয়ে পড়েছে বিশ্বভ্রমণে।

কাতার বিশ্বকাপ সামনে রেখে গত ১২ মে দুবাই থেকে কোকা-কোলার আয়োজনে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফির বিশ্বভ্রমণ শুরু। ৫৬টি দেশ ঘোরার পথে ফিফা বিশ্বকাপের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক কোকা-কোলার উদ্যোগে বাংলাদেশের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহায়তায় বাংলাদেশে আসছে ট্রফিটি।  

এর আগেও বাংলাদেশে বিশ্বকাপ ট্রফির আগমন হয়েছিল। তবে ২০১৩ সালে যে ট্রফিটা এসেছিল সেটি ছিল আসল ট্রফির রেপ্লিকা। এবার এসেছে আসল ট্রফি।  

ঢাকায় ৩৬ ঘণ্টা থাকবে বিশ্বকাপ ট্রফি। ৯ জুন বিকেলে আর্মি স্টেডিয়ামে ট্রফির আগমন নিয়ে হবে কনসার্ট। ঢাকা সফর শেষে বিশ্বকাপ ট্রফির পরবর্তী গন্তব্য পূর্ব তিমুর।  

news24bd.tv/কামরুল