চাঁদপুরে আগুন
চাঁদপুরে আগুন

চাঁদপুরে আগুন

অনলাইন ডেস্ক

চাঁদপুরে রেলওয়ের পরিত্যক্ত গুদামে আগুন লেগেছে। এ ঘটনায় অল্পের জন্য বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পেয়েছে রেলওয়ের কোটি-কোটি টাকার সম্পদ, রেলস্টেশন, স্টিমার অফিস, ঘাট ও মাছঘাটের শত-শত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

বুধবার (৮ জুন) সকালে শহরের বড় স্টেশন মাছঘাটের পাশে রকেট ঘাট (স্টিমার ঘাট) সংলগ্ন এলাকায় এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

খবর পেয়ে এলাকাবাসী ও চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন উত্তরের সদস্যরা দীর্ঘ চেষ্টায় আগুন নেভান।  

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, রকেট ঘাটের পাশে রেলের পরিত্যক্ত একটি ঘরকে গুদাম বানিয়ে অবৈধভাবে ইলিশ সরবরাহের ককসিট রেখে ব্যবসা করেন স্থানীয় আলি হোসেন গাজী নামে এক ব্যক্তি। ওই গুদামে মাদকসেবীদের মাদকের আগুন থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করছেন তারা।  

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ব্যবসায়ী বলেন, আলী হোসেন রেলের পরিত্যক্ত ঘরটি দখল করে অবৈধভাবে ককসিট রেখে ব্যবসা করছেন। তার এ ব্যবসার জন্য এখানে আগে আরও তিন বার আগুন লাগে।

চাঁদপুর মৎস্য বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী শবেবত বলেন, রেলের পরিত্যক্ত ঘরে ককসিট রেখে ব্যবসা করতে আমরা তাকে বহুবার নিষেধ করেছি। তার এ ককসিটের গুদামে আগেও দুর্ঘটনা ঘটেছে।

চাঁদপুর স্টেশনের মাস্টার শোহেবুল শিকদার বলেন, আমাদের ওই পরিত্যক্ত ঘরে কেউ থাকেন না। তবে সেখানে মাছ ঘাটের ব্যবসায়ীরা ইলিশ ও অন্যান্য মাছ সংরক্ষণে ব্যবহৃত ককসিট রাখেন। পুড়ে যাওয়া ককসিটগুলো কার বা কীভাবে আগুন  লেগেছে, তা আমার জানা নেই।

চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক সাহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পেয়ে  দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাই। কিন্তু এর আগেই স্থানীয়রা ডাকাতিয়া নদী থেকে পানি তুলে আগুন নিভিয়ে ফেলেন। এ কারণে বড় ধরনের ক্ষতি থেকে রক্ষা  পেয়েছে মাছঘাট, স্টিমার ঘাট, রেলস্টেশন ও রেলের কোটি কোটি টাকার সম্পদ। তবে কীভাবে আগুন লেগেছে, সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আমরা তদন্ত করে দেখছি।

news24bd.tv তৌহিদ