ভারতের হারের দিনে পাকিস্তানের বিশাল জয়
ভারতের হারের দিনে পাকিস্তানের বিশাল জয়

ভারতের হারের দিনে পাকিস্তানের বিশাল জয়

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের কাছে ৫৩ রানে হেরে (ডার্ক লুইস পদ্ধতি) হোয়াইটওয়াশের স্বাদ পেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে সাদাব খানের ৮৬ রানে ভর করে বড় স্কোর গড়ে পাকিস্তান। বল হাতেও ক্যারিবীয় শিবিরে ধস নামান তিনি। লুফে নেন মূল্যবান চারটি উইকেট।

সিরিজ আগেই জিতে নেওয়ায় পাকিস্তানের জন্য নিয়ম রক্ষার ম্যাচ হলেও উইন্ডিজের জন্য ম্যাচটি ছিল মান রক্ষার। মুলতানে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ হয় দুই ওপেনারের ব্যাটে।

১৬ ওভার পর্যন্ত ফখর জামান ও ইমাম উল হক মিলে কাটিয়ে দেন অনায়াসে। কিন্তু হুট করেই বল হাতে তুলে নিয়ে স্বাগতিকদের বিপাকে ফেলে দেন নিকোলাস পুরান।

ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বার বোলিং করতে এসে তুলে নেন ৩৫ (৪৮) রান করা ফখর জামানকে। ফেরান বোল্ড করে। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা বাবর আজম বুঝতে ব্যর্থ হন হেইডেন ওয়ালশের বল। মাত্র ১ রান করে এলবিডব্লু হয়ে ফেরেন সাজঘরে।

ইমাম উল হক অর্ধশতক পূর্ণ করে ছুটছিলেন ইনিংস লম্বা করার দিকে। তাকেও থামিয়ে দেন নিকোলাস পুরান। মোহাম্মদ হারিস তো বুঝতেই পারেননি পুরানের অফস্পিন। একটা বল খেলে পরের বলেই ক্যাচ দেন আকিল হোসেনের হাতে। মোহাম্মদ রিজওয়ানও ১১ রান করে কাটা পড়েন পুরানের বলে হোপের হাতে ক্যাচ দিয়ে।

একে একে চার ব্যাটারকে ফিরিয়ে দুর্ধর্ষ হয়ে ওঠা পুরান আজকের আগে ৯৯ ম্যাচে মাত্র তিনটি বল করেছিলেন। ২০২১ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিতে ৩ বলে দিয়েছিলেন ৬ রান। ১০ ওভার বোলিং করে মাত্র ৪৮ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে নিজেকে চেনান নতুন করে।

মাত্র ১১৭ রানে ৪৫ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া দলকে ঘুরে দাঁড়ান খুশদিল শাহ ও শাদাব খান। খুশদিল ৩৪ (৪৩) রানে বোল্ড হন আকিলের বলে। তবে একপাশ আগলে রেখে অর্ধশতক তুলে ৭৮ বলে ৮৬ রানের ইনিংস খেলে হেইডেন সিলসের বলে থামেন শাদাব। বাকি চার ব্যাটার পার করতে পারেননি দশ রানের কোঠা।

এদিন খারাপ আবহাওয়ার কারণে খেলা কিছুক্ষণ বন্ধ থাকায় ম্যাচ নেমে আসে ৪৮ ওভারে। শেষ পর্যন্ত নির্দিষ্ট ওভারে ৯ উইকেটে ২৬৯ রান তুলেছে পাকিস্তান।

উইন্ডিজের পক্ষে ৪ উইকেট নেন নিকোলাস পুরান। ২ উইকেট নেন কেমো পল ও ১টি করে উইকেট নেন সিলস, ওয়ালশ ও আকিল।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২১৬ রানে অলআউট হয় ক্যারিবীয়রা। আকেল হোসেনের ৬০ রান ছাড়া আর তেমন কেউ উল্লেখযোগ্য রান করতে পারেনি।

এদিকে একই দিনে সফরকারী দক্ষিণ আফিকার কাছে টানা দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে সিরিজ খোয়ানোর সঙ্কায় পড়েছে স্বাগতিক ভারত।
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দিল্লিতে রেকর্ড ২১১ রান করেও হার এড়াতে পারেনি স্বাগতিক ভারত।  


দিল্লিতে ৭ উইকেটে হেরে যাওয়া ভারত রোববার সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও হার এড়াতে পারেনি। এদিন কটকের বারাবতী স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৮ রান করে ভারত।  

টার্গেট তাড়া করতে নেমে ২৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। চতুর্থ উইকেটে হেনরিক্লেসেনকে সঙ্গে নিয়ে ৪১ বলে ৬৪ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক টিম্বা বাভুমা। দলীয় ৯৩ রানে ৩০ বলে ৩৫ রান করে ফেরেন বাভুমা।  

এরপর ডেভিড মিলারকে সঙ্গে নিয়ে ৫১ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যান হেনরিক্লেসেন। জয়ের জন্য শেষ দিকে ১৮ বলে প্রয়োজন ছিল মাত্র ৫ রান। খেলার এমন অবস্থায় ৪৬ বলে ৭টি চার আর ৫টি ছক্কায় ৮১ রান করে ফেরেন এই তারকা ব্যাটসম্যান।

এরপর কাগিসো রাবাদাকে সঙ্গে নিয়ে ১০ বল হাতে রেখেই ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন ডেভিড মিলার।

news24bd.tv তৌহিদ