অবিশ্বাস্য দামে আইপিএলের সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি
অবিশ্বাস্য দামে আইপিএলের সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি

সংগৃহীত ছবি

অবিশ্বাস্য দামে আইপিএলের সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি

অনলাইন ডেস্ক

ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আকর্ষণীয় লিগ আইপিএল। অর্থ ও দর্শক জনপ্রিয়তা সব দিক থেকে এর ধারেকাছে নেই অন্য কোনো ক্রিকেট ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ। আর সেই কথাই যেন আরও একবার প্রমাণিত হয়ে গেল। কারণ আজ সোমবার ৪৩ হাজার ৫০ কোটি রুপিতে আইপিএলের সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি হয়েছে।

নিলামে অংশ নিয়েছিল অনেকেই। ভিয়াকম-রিলায়েন্স, জি, ফান এশিয়া, সুপার স্পোর্ট, টাইমস ইন্টারনেট। কিন্তু মূল লড়াইটা ছিল ডিসনি স্টার ও সনির মধ্যে। তবে শেষ পর্যন্ত লড়াইয়ে বিজয়ীর নাম সনি।  

তবে এই অর্থের অঙ্কটা আরও বাড়তে পারে। এবারের আইপিএলের সম্প্রচার স্বত্বকে চারটি প্যাকেজের আওতায় এনেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। প্যাকেজ ‘এ’-তে আছে ভারতীয় উপমহাদেশের টেলিভিশন স্বত্ব, প্যাকেজ ‘বি’-তে ডিজিটাল (স্ট্রিমিং) স্বত্ব, প্যাকেজ ‘সি’-তে থাকছে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের বাড়তি সংযোজন এবং প্যাকেজ ‘ডি’-তে থাকবে উপমহাদেশের বাইরের স্বত্ব। প্যাকেজ-‘সি’ তে শনি ও রবিবারের ম্যাচ, প্লে-অফ ও ফাইনালের ম্যাচ থাকবে। ভারতীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে যে সংখ্যাটি বলা হয়েছে, সেটা প্যাকেজ ‘এ’ ও ‘বি’-র যোগফল।  

২০২৩ থেকে ২০২৭ সালের জন্য পাঁচ বছরের সম্প্রচার স্বত্বের নিলাম শুরু হয়েছে রবিবার। গতকাল রাতে যখন প্রথম দিনের নিলাম স্থগিত হয়েছিল, তখনই ম্যাচপ্রতি আয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগকে টপকে যায় আইপিএল। গতকাল প্যাকেজ ‘এ’ এর দর উঠেছিল ২১ হাজার ৯০ কোটি এবং প্যাকেজ ‘বি’ এর দর উঠেছিল ১৭ হাজার ৭৬০ কোটি। আইপিএলে বছরে ৭৪টি ম্যাচ হয়, সে হিসেবে গতকালই ম্যাচপ্রতি ১০৫ কোটি রুপি বা ১ কোটি ৩৪ লাখ ডলার আয় নিশ্চিত হয়েছিল বিসিসিআইয়'র, যা ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের চেয়েও বেশি।
এ বিষয়ে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি বলেন, আইপিএল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের চেয়েও বেশি আয় করছে। আমি খুশি ও গর্বিত যে, আমার পছন্দের খেলা খুব শক্তভাবে বিস্তৃতি লাভ করছে। আমি আইপিএলকে বিকশিত হতে দেখছি, যেখানে খেলোয়াড়রা লাখ থেকে শুরু করে কোটি টাকা আয় করছে। এই লিগটি সমর্থকদের, দেশের মানুষের ও বোর্ডের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। আইপিএল ভবিষ্যতে আরো দৃঢ় ও প্রসারিত হবে।

আজ দ্বিতীয় দিনের নিলাম শুরু হওয়ার অঙ্কটা স্বাভাবিকভাবে বেড়েছে। আজ শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্যাকেজ ‘এ’, অর্থাৎ টিভি স্বত্ব বিক্রি হয়েছে ২৩ হাজার ৫৭৫ কোটি রুপিতে। ওদিকে প্যাকেজ ‘বি’, অর্থাৎ স্ট্রিমিং স্বত্ব বিক্রি হয়েছে ১৯ হাজার ৬৮০ কোটি রুপিতে। নাটক অবশ্য নিলামের পরও শেষ হয়নি। প্যাকেজ ‘এ’ সনি জিতলেও প্যাকেজ ‘বি’ নাকি জিতে নিয়েছিল স্টার। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, সনি প্যাকেজ ‘বি’ জেতার জন্য স্টারকে চ্যালেঞ্জ করেছে। প্যাকেজ ‘সি’ ও প্যাকেজ ‘ডি’র ক্ষেত্রে নিলামের বিজয়ীর নাম অবশ্য এখনো জানা যায়নি।

news24bd.tv/আলী 

;