ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছেন জায়েদ খান
ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছেন জায়েদ খান

সংগৃহীত ছবি

ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছেন জায়েদ খান

অনলাইন ডেস্ক

চড় ও পিস্তলকাণ্ডে বক্তব্য-পাল্টা বক্তব্য আসছে। সানীর অভিযোগ এক প্রকার উড়িয়ে দিলেন তার স্ত্রী মৌসুমী। দুইদিন পর মুখ খুলে সানী-জায়েদ ইস্যুর মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন তিনি। মৌসুমীর বক্তব্যর পর এবার ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছেন জায়েদ খান।

সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন জায়েদ খান।

জায়েদ খান নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন। এ অভিনেতা মনে করছেন, পারিবারিক ও ব্যক্তিগত বিষয় সামনে এনে শিল্পীদের ছোট করছেন ওমর সানী। সংবাদমাধ্যমকে জায়েদ খান বলেন, অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেলাম। কিন্তু কেন ওমর সানী ভাই সিনিয়র মানুষ হিসেবে আমাকে অসম্মানিত করলেন, কেন গণমাধ্যমে মিথ্যা অভিযোগ দিলেন, সেটাই বুঝছি না। সামনে আমাদের শিল্পী সমিতির রায়, সেটা ঘিরে হতে পারে।

সংসার ভাঙার খবরে জায়েদ খান বলেন, কেউ কেউ বলার চেষ্টা করছেন জায়েদ খানের কারণে তাদের সংসার ভাঙবে। অনেকেই এখন ঘটনার মধ্যে কিছু খোঁজার চেষ্টা করবে। মৌসুমী আপুকে সম্মান করি, তিনি অডিও বার্তায় সব ক্লিয়ারও করে দিলেন। তার সম্মান সবার বজায় থাকা উচিত।

এদিকে মৌসুমীর অডিও বার্তার পর মুখ খুলেছেন সানী-মৌসুমীর ছেলে ফারদিন। তিনি জানান, জায়েদ খান তার আম্মুকে (মৌসুমী) ডিস্টার্ব করেন। জায়েদ খানকে রাস্তার ব্যাঙের সঙ্গে তুলনা করে ফারদিন বলেন, শুধু আমার আম্মু না, উনি (জায়েদ) কমবেশি সবাইকে হ্যারাস করে থাকেন। আমরা চাইনি পাবলিকলি বিষয়গুলো সামনে আসুক। আমরা জায়েদকে এত গুরুত্ব দেইনি।

বাবা-মায়ের মধ্যে সম্পর্ক এখন কেমন, জানতে চাইলে ফারদিন বলেন, সব ঠিক আছে। আমি তো আমার আব্বুকে পাচ্ছি, আম্মুকে পাচ্ছি। হ্যাঁ, অনেক বিষয় নিয়ে মনোমালিন্য থাকে। আমিও বিয়ে করেছি। আমাদেরও তো হয়। এটা স্বাভাবিক। তবে আব্বু-আম্মু দুজন চাচ্ছেন যেন বিষয়টা দ্রুত সমাধান হয়ে যায়। ছেলে হিসেবে আমি তো আব্বু-আম্মু দুজনকেই চাইব। দিনশেষে আমার চাওয়ার যেন এটা দ্রুত সমাধান হয়।

ফারদিনের ভাষ্যে, ২০২২ সালে এটা হাইলাইটস করার মতো কোনো বিষয় না। তবে সত্যি কথা হলো উনি (জায়েদ খান) ডিস্টার্ব করেন। আমি চাইলেও এখন প্রমাণ সবার সামনে হাজির করব না। উনি আমার ব্যবসারও ক্ষতি করার চেষ্টা করেছেন। এগুলো হয়তো প্রমাণ দিতে পারব না। আমি জানি বিষয়গুলো, পাবলিকলি সব বলবও না। তবে উনাকে নিয়ে চিন্তায় পড়ে যাব এমন না। উনাকে এত গুরুত্ব দিচ্ছি না। জায়েদ খান আর রাস্তার ব্যাঙ এক কথা। তাই উনাকে নিয়ে ভাবছি না।
news24bd.tv/আলী