কুসিক নির্বাচন : ফল প্রত্যাখ্যান সাক্কুর
কুসিক নির্বাচন : ফল প্রত্যাখ্যান সাক্কুর

মনিরুল হক সাক্কু

কুসিক নির্বাচন : ফল প্রত্যাখ্যান সাক্কুর

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, নৌকার প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর চেয়ে মাত্র ৩৪৩ ভোট বেশি পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এর ফলে প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করেছেন।

গতকাল বুধবার রাতে কুমিল্লা শিল্পকলা একাডেমিতে রিটার্নিং অফিসার ফল ঘোষণা করেন। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন মনিরুল।

পরে ফল বর্জন করে শিল্পকলা একাডেমি এলাকা ছেড়ে যান তিনি।

এর আগে একাডেমিতে মনিরুল হক সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, সব কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত ফলাফলে ৯৮০ ভোটে এগিয়ে ছিলেন তিনি। নিশ্চিত বিজয় জেনে বিজয়ের মালা পরতে তিনি শিল্পকলা একাডেমিতে আসেন।

তিনি অভিযোগ করেন, ‘রিটার্নিং অফিসার ফলাফল ঘোষণা না করে এদিক-সেদিক গেছেন। ফোনে কথা বলেছেন। এরপর ইঞ্জিনিয়ারিং করে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করেছেন। আমি এই ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি। আমি এ ঘটনায় আইনের আশ্রয় নেব। ’

অভিযোগের ব্যাপারে রিটার্নিং অফিসার শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন, ‘নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। এ জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। সঠিক তথ্য দিয়ে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। যাঁরা হারবেন তাঁরা অভিযোগ করতেই পারেন। তবে এর ভিত্তি নেই। ’

ফলাফল ঘোষণার পর নিজের নির্বাচনী কার্যালয়ে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় বিজয়ী প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত বলেন, ‘আমার প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়নের চেষ্টা করব। এক বছরের মধ্যে তা বাস্তবায়ন করব। জলাবদ্ধতা ও যানজটের ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেব। আমার দরজা সবার জন্য সব সময় খোলা থাকবে। ’

তিনি আরো বলেন, যারা দুর্নীতি করেছে তাদের সে কাজের শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে।

সাবেক মেয়র সাক্কুর সহায়তা নেবেন কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘তিনি সহায়তা করতে চাইলে অবশ্যই নেব। তিনি সাবেক মেয়র। ’

রাতে সংসদ সদস্য বাহাউদ্দিন বাহার নগরের ঈদগাহ মোড়ে সাংবাদিকদের বলেন, সবাই ভোট দিয়ে নৌকার প্রার্থী রিফাতকে বিজয়ী করেছেন। এই বিজয় কুমিল্লাবাসীর বিজয়। এই বিজয় ১৬ বছরের দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিজয়। এই বিজয় শতকোটি টাকা দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিজয়। মানুষ নৌকার ওপর আস্থা রেখে ভোট দিয়েছে।

news24bd.tv রিমু