ছোট্ট ওয়ালিদের সারা শরীরে খুনিদের নৃশংসতা
ছোট্ট ওয়ালিদের সারা শরীরে খুনিদের নৃশংসতা

সংগৃহীত ছবি

ছোট্ট ওয়ালিদের সারা শরীরে খুনিদের নৃশংসতা

নিজস্ব প্রতিবেদক

ওয়ালিদ। বয়স মাত্র তিন বছর। কথা বলতো আধো আধো স্বরে। হাসি-খুশি আর দুষ্টুমিতে মাতিয়ে রাখতো পুরো বাড়ি।

কিন্তু এখন বাড়িজুড়ে শুধুই নিস্তব্ধতা। মাঝে মাঝে মায়ের কান্নার শব্দে ভারী হয়ে উঠছে পরিবেশ। বুধবার দুপুরে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে নৃশংসভাবে খুন হয় ওয়ালিদ।  

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের পূর্ব শিকারপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওয়ালিদ একই গ্রামের হাঁচি মিয়ার বাড়ির আমিরাত প্রবাসী মোহাম্মদ জাবেদের ছেলে।

জানা গেছে, দুপুর আড়াইটার দিকে ওয়ালিদকে ঘরে রেখে পুকুরে গিয়েছিলেন মা ইসরাত জাহান। ফিরে এসে দেখেন- ঘরের মেঝেতে ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় পড়ে আছে ওয়ালিদের নিথর দেহ। ওই সময় মায়ের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ওয়ালিদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

হাটহাজারীর মদুনাঘাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মুহাম্মদ মাহাবুব আলম বলেন, শিশুটির গলা, পেট ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। ছোট্ট একটি শিশুকে এভাবে খুনের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

শিকারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল খালেক বলেন, ‘ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। আমরা খুনের কারণ জানতে চাই। এই জঘন্য খুনে কারা অংশ নিয়েছে পুলিশ দ্রুত সেটা বের করবে বলে আশা করি। ’

news24bd.tv/আলী