সপ্তাহ ধরে পানিবন্দী কুড়িগ্রামের ৮০ হাজার মানুষ
সপ্তাহ ধরে পানিবন্দী কুড়িগ্রামের ৮০ হাজার মানুষ

সপ্তাহ ধরে পানিবন্দী কুড়িগ্রামের ৮০ হাজার মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক

এক সপ্তাহ ধরে পানিবন্দী কুড়িগ্রামের ৬টি উপজেলার শতাধিক গ্রামের ৮০ হাজার মানুষ। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও অতিবৃষ্টির কারণে কুড়িগ্রামে ১৬টি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে ব্রহ্মপূত্র ও ধরলা নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

প্রতিদিনিই নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।

ঘরবাড়ি, ফসলি জমি তলিয়ে যাওয়ায় গবদিপশু পাখি নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন দুর্গতরা।

তিস্তা ও ধরলাসহ বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বাড়ায় লালমনিরহাটেও বন্যা দেখা দিয়েছে। এতে  ৫টি  উপজেলার ২০টি গ্রামের ১৫হাজার মানুষ পানিবন্দী।

ভারি বর্ষণ আর পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার ৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে রংপুরে গঙ্গাচড়া উপজেলায় পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন অন্তত ৫ হাজার পরিবার।

দ্রুত গতিতে যমুনার পানিও বাড়ছে। এরই মধ্যে সিরাজগঞ্জ  ও কাজিপুরের বিভিন্ন পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বেড়ে বিপৎসীমার কাছাকাছি চলে গেছে। প্লাবিত হয়ে পড়ছে নীচু এলাকা।

এদিকে, টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে মহারশি নদীর পানি বেড়ে শেরপুরের ঝিনাইগাতী ও নালিতাবাড়ী উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

news24bd.tv/তৌহিদ