সুনামগঞ্জের পর এবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন সিলেট
সুনামগঞ্জের পর এবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন সিলেট

সংগৃহীত ছবি

সুনামগঞ্জের পর এবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন সিলেট

অনলাইন ডেস্ক

সিলেট বিভাগে বন্যার বিপদ বরং বাড়ছে। এরই মধ্যে দেশের উত্তরাঞ্চলেও বন্যার তীব্রতা বাড়তে শুরু করেছে। আগামী দুই দিনের মধ্যে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায়ও বন্যা হতে পারে। দেশের তিন এলাকার ওই বন্যা আরও ৭ থেকে ১০ দিন ধরে থাকতে পারে।

সরকারের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের দীর্ঘমেয়াদি বন্যার পূর্বাভাসে এমন সব আশঙ্কার কথা তুলে ধরা হয়েছে।

এদিকে সিলেটের কুমারগাঁও গ্রিড উপকেন্দ্রে বন্যার পানি উঠে যাওয়ায় পুরো সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলার বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শনিবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। সিলেট জেলা বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য কর্মকর্তা মো. মেজবাহ উদ্দিন  এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, শুক্রবার সকাল থেকে কুমারগাঁও বিদ্যুৎকেন্দ্রে পানি প্রবেশ করতে শুরু হয়। খবর পেয়ে ছুটে যান সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (বিউবো) কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীদের সঙ্গে কথা বলে বিদ্যুৎকেন্দ্রের চারদিকে বাঁধ দিয়ে সেচে পানি কমানোর উদ্যোগ নেন। এরপর এই কাজে যুক্ত হন সেনাবাহিনীর সদস্যরাও।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সেনা সদস্যরা প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে বালু, মাটি ও পাথরের বস্তা ফেলে বিদ্যুৎকেন্দ্রের চারদিকে বাঁধ দেন। এছাড়া পাম্প ও সাকার মেশিন দিয়ে সেচে পানি কমিয়ে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নিরাপদ করেন। ফলে বিদ্যুৎ নিয়ে স্বস্তি ফিরে আসে সিলেটের মানুষের মাঝে। কিন্তু শুক্রবার মধ্যরাত থেকে ভারীবর্ষণ শুরুর পর শনিবার সকাল থেকে পানি হু হু করে বাড়তে থাকে। বাঁধ উপচে পানি প্রবেশ করে কুমারগাঁও বিদ্যুৎকেন্দ্রের কার্যক্রম হুমকির মুখে ফেলে দেয়। ফলে বাধ্য হয়ে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে কুমারগাঁও গ্রিড উপকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এর আগে সুনামগঞ্জ জেলা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বানের পানি সড়কের ওপর দিয়ে যাওয়ায় এই দুই উপজেলায় যোগাযোগ ব্যবস্থাও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। টানা কয়েকদিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে সিলেটের ৬০ শতাংশ এবং সুনামগঞ্জের ৯০ শতাংশ এলাকা এখন পানির নিচে। যেদিকে চোখ যায়, শুধুই থৈ থৈ পানি। সড়ক-মহাসড়ক, ঘর-বাড়ি সবই ডুবেছে। বন্যার এমন ভয়াবহ রূপ আগে দেখেনি সিলেটের মানুষজন।

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় সিলেট বিভাগের বেশিরভাগ এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। টেলিফোন নেটওয়ার্ক অকার্যকর হয়ে গেছে। বলা যায় সিলেট বিভাগ কার্যত সারাদেশ থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

news24bd.tv/আলী