বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ০৩ ঘন্টা ১৬ মিনিট আগে

‘রাত ১টায় রুমে নিয়ে ধর্ষণ করে ডাক্তার মাহী’

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

‘রাত ১টায় রুমে নিয়ে ধর্ষণ করে ডাক্তার মাহী’

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নানিকে চিকিৎসা করাতে এসে চিকিৎসকের হাতে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ধর্ষিত ওই কিশোরী নবম শ্রেণির ছাত্রী। ওই কিশোরীকে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। রোববার রাতে হাসপাতালের তৃতীয়তলায় ওই চিকিৎসকের রুমে এ ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন: শিশু-বৃদ্ধ কেউ রেহাই পায় না তার হাতে

অভিযুক্ত ওই চিকিৎসককে আটক করা হয়েছে। অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের নাম মাকামে মাহমুদ (২৫)। তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায়। বাবার নাম মোখলেসুর রহমান।

আরও পড়ুন: ৮জন মিলে কিশোরীকে ধর্ষণ!

কোতোয়ালি থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানান, এমবিবিএস ৫১ ব্যাচের শিক্ষার্থী মাহমুদ হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগের ইন্টার্ন চিকিৎসক।

হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই ফারুক আহমদ জানান, রোববার রাতে নগরীর বনকলাপাড়া থেকে ওই কিশোরী তার নানিকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ওষুধ লিখে আনতে ওই চিকিৎসকের রুমে যায় মেয়েটি। এ সময় দরজা আটকে তাকে ধর্ষণ করেন ওই ডাক্তার।

আরও পড়ুন: পঞ্চম শ্রেণির মেয়েকে প্রতিরাতে ধর্ষণ করে বাবা

স্কুলছাত্রীর বাবা বলেন, আমার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে তার নানির চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্রের ফাইল দেখার কথা বলে রাত একটার দিকে নিজের রুমে ডেকে নেয় ইন্টার্ন চিকিৎসক মাক্কাম আহমদ মাহী (৩০)। এ সময় সে আমার মেয়েকে তার রুমে জোর করে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। চিৎকার করলেও কেউ তাকে রক্ষা করার জন্য এগিয়ে আসেনি। এমনকি আমার মেয়ে যখন কান্নাকাটি করছিল তখন ওই চিকিৎসক এ বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য হুমকি-ধমকি দেয়। এরপর থেকেই মেয়েটি ভয়ে জড়োসড়ো হয়ে পড়ে। তার চেহারায় আতঙ্কের ছাপ দেখে কারণ জানতে চাইলে সে আমাদের ঘটনা খুলে বলে।

আরও পড়ুন: ভিডিওর ভয় দেখিয়ে স্কুলছাত্রীকে ১ বছর ধরে ধর্ষণ!

তিনি আরও বলেন, প্রায় এক সপ্তাহ আগে আমি আমার বৃদ্ধা শাশুড়িকে হাসপাতালের নাক, কান ও গলা বিভাগের তৃতীয় তলার ৮নং ওয়ার্ডের ১৭নং বেডে ভর্তি করি। এরপর শনিবার রাতে তার শরীরে অস্ত্রপচার করেন চিকিৎসকরা। শাশুড়িকে দেখভাল করার জন্য আর কেউ না থাকায় আমার মেয়েকে সেখানে পাঠাই। এরপর রোববার রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন: নার্সকে ধর্ষণ করে ভিডিও, হাসপাতাল মালিক গ্রেপ্তার

ওসি মোশাররফ হোসেন বলেন, ওই চিকিৎসককে আটক করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: বিয়ে না দেওয়ায় নববধূকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ

আরও পড়ুন: ৬ নারীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ছড়ালেন ছাত্রলীগ নেতা!

 

মন্তব্য