বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সেতু মেরামত, ৫ দিন পর ট্রেন চলাচল শুরু
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সেতু মেরামত, ৫ দিন পর ট্রেন চলাচল শুরু

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সেতু মেরামত, ৫ দিন পর ট্রেন চলাচল শুরু

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা-ময়মনসিংহ-মোহনগঞ্জ রেলপথে আন্তঃনগর ও লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। নেত্রকোনার বারহাট্টায় পাহাড়ি ঢলে রেললাইনের একটি সেতু ভেঙে যাওয়ার পাঁচ দিন বন্ধ থকার পর আজ বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হলো ট্রেন চলাচল।

জেলার বারহাট্টা রেলস্টেশনের স্টেশনমাস্টার গোলাম রাব্বানি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ১৮ জুন সকালে জেলার বারহাট্রা উপজেলার অতীতপুর রেলস্টেশনের কাছে ইসলামপুর এলাকায় ২৩ নম্বর রেলব্রিজটি বন্যার পানির স্রোতে ভেঙে যায়।

ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ-মোহনগঞ্জ রেলপথে যাতায়াত বন্ধ হয়ে যায়।  

সেতু ভেঙে যাওয়ায় জেলার মোহনগঞ্জে আটকা পড়ে ঢাকাগামী হাওড় এক্সপ্রেস ট্রেন এবং বারহাট্টায় মোহনগঞ্জগামী একটি লোকাল ট্রেন। ঘটনার পরদিন ১৯ জুন বারহাট্রা স্টেশন থেকেই নেত্রকোনার সঙ্গে ঢাকা ও ময়মনসিংহসহ সারা দেশের সঙ্গে সচল থাকে রেলপথ। তবে নেত্রকোনা থেকে মোহনগঞ্জ পর্যন্ত ২৯ কিলোমিটার পথে ট্রেন চলাচল বন্ধ আছে।

নেত্রকোনা বড়স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, মোহনগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ময়মনসিংহ পর্যন্ত প্রায় ৮৭ কিলোমিটার রেলপথ রয়েছে। ওই পথে যাত্রাবিরতির জন্য ১২টি স্টেশন আছে। এর মধ্যে নেত্রকোনার অংশে নয়টি স্টেশন আছে। জেলায় দুটি আন্তঃনগর, দুটি লোকাল ও একটি কমিউটার ট্রেন চলাচল করে।

গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকার কমলাপুর স্টেশন থেকে ছেড়ে আসা হাওড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি গত শনিবার সকাল সাড়ে ৫টার দিকে মোহনগঞ্জ স্টেশনে পৌঁছায়। এর কিছুক্ষণ পর বারহাট্টার ইসলামপুর এলাকায় একটি বক্স কালভার্ট ভেঙে যায়।  

এ সময় মোহনগঞ্জের উদ্দেশে যাওয়া ২৬২ নম্বর লোকাল ডাউন ট্রেনটি বারহাট্টা স্টেশনে আটকা পড়ে। পরে ওই ট্রেনকে ঘুরিয়ে ময়মনসিংহে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পর থেকে নেত্রকোনায় রেল চলাচল বন্ধ থাকে। তবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রেল চলাচল স্বাভাবিক করা হয়।

বারহাট্টা স্টেশনমাস্টার গোলাম রব্বানী বলেন, রেলব্রিজটি মেরামত করার পর বুধবার পরীক্ষামূলকভাবে একটি রেকার ট্রেন ও ইঞ্জিন চলাচলের পর আজ বৃহস্পতিবার সকালে মোহনগঞ্জে আটকা পড়া ঢাকাগামী হাওড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকালে ছেড়ে আসে। আজ থেকে এ পথে যথারীতি ট্রেন চলাচল করবে।

news24bd.tv তৌহিদ