পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যেতে হবে যে পথে
পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যেতে হবে যে পথে

সংগৃহীত ছবি

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যেতে হবে যে পথে

অনলাইন ডেস্ক

একটা সেতু। একটা স্বপ্ন; আর সেই স্বপ্নের নাম পদ্মাসেতু। তবে এখন আর সেটি স্বপ্ন নয়, বাস্তব। এ স্বপ্ন দেখা শুরু হয়েছিল প্রায় দুই যুগ আগে।

২০১৪ সালের ৭ ডিসেম্বর এর নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ার পর ৮ বছরের মাথায় স্বপ্ন সত্যি হল। আর কয়েক ঘণ্টা পর সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল শনিবার উদ্বোধন করবেন স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এ উপলক্ষে চলাচলের ওপর কিছু নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। আমন্ত্রিত অতিথিদের যাতায়াতের জন্য নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে গমনাগমন রুট। একইসঙ্গে অনুষ্ঠান স্থলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে পর্যাপ্ত সময় হাতে নিয়ে ঢাকা মহানগরী থেকে যাত্রা শুরু করার অনুরোধ জানিয়েছে পুলিশ।  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও নিউমার্কেট এলাকা থেকে গমনাগমন রুট :
ঢাকা মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন চাঁনখারপুল (নিমতলী) মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বামলেন-ধোলাইপাড় টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস।

জিরো পয়েন্ট থেকে রুট :
জিরো পয়েন্ট-গুলিস্তান আহাদ বক্স সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বামলেন-ধোলাইপাড়-টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং-জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস।

মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর ও ইত্তেফাক থেকে রুট : 
মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর-ইত্তেফাক ক্রসিং-হাটখোলা মোড় সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বাম লেন-ধোলাইপাড়-টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং-জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস।

কমলাপুর, টিটিপাড়া থেকে রুট : 
কমলাপুর, টিটিপাড়া ক্রসিং-গোলাপবাগ মোড় ইনগেট সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বামলেন-ধোলাইপাড়-টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং-জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস।

মাদারীপুরের শিবচরে অনুষ্ঠিত জনসমাবেশে অংশগ্রহণকারী অতিথিদের গমনাগমন নির্দেশনা :
রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, জয়পুরহাট জেলা এবং রংপুর বিভাগের কুড়িগ্রাম, রংপুর, লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, নীলফামারী জেলা সড়কের যানবাহনসমূহ গমনাগমনের জন্য পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরী হয়ে লালনশাহ সেতু অথবা যমুনা সেতু ব্যবহার করবেন। তবে, প্রতিকূল আবহাওয়ায় ফেরি পারাপার ব্যাহত হতে পারে, বিধায় লালনশাহ সেতু ব্যবহার করা সমীচীন।

চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, কক্সবাজার, নোয়াখালি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান জেলা সড়কের যানবাহনসমূহ গমনাগমনের জন্য চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরীঘাট ব্যবহার করবেন।

ময়মনসিংহ বিভাগ, সিলেট বিভাগ এবং ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী জেলা হতে আগত যানবাহনসমূহ ঢাকা মহানগরীতে প্রবেশের পরিবর্তে কালিয়াকৈর-নবীনগর-পাটুরিয়া হয়ে গমনাগমন করবেন।

মুন্সীগঞ্জে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য  অতিথিবৃন্দের গমনাগমন নির্দেশনা :
লাল স্টিকারযুক্ত অতিথিবৃন্দের গাড়ি ড্রপিং পয়েন্ট এ গমনের পূর্বে বামের লেন ব্যবহার করবেন এবং গাড়ি পার্কিং এর জন্য পদ্মা সেতু (উত্তর) থানার পূর্বে অবস্থিত রেল ব্রীজের নিচে মাঠে গমন করবেন।

নীল স্টিকারযুক্ত অতিথিবৃন্দের গাড়ি ড্রপিং পয়েন্ট এ প্রবেশের পূর্বে মাঝের লেন ব্যবহার করবেন এবং গাড়ি পার্কিং এর জন্য চন্দ্রের বাড়ি চৌরাস্তা সংলগ্ন ওয়ারি স্কুলের মাঠে গমন করবেন।

সবুজ স্টিকারযুক্ত অতিথিবৃন্দের গাড়ি ড্রপিং পয়েন্ট এ গমনের পূর্বে ডানের লেন ব্যবহার করবেন এবং গাড়ি পার্কিং এর জন্য মাওয়া শিমুলিয়া ফেরীঘাটে গমন করবেন।

মাওয়া থেকে কাঠালবাড়ী জনসমাবেশে অংশগ্রহণকারী অতিথিবৃন্দের জন্য নির্দেশনা :
ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের সার্ভিস রোড ব্যবহার করে ছনবাড়ি হতে বামের রোড ব্যবহার করে সিরাজদিখানগামী রোডে গমন করবেন। সিরাজদিখানগামী রোডের কুসুমপুর বাজার হতে ডানে প্রবেশ করে নওপাড়া হয়ে লৌহজং থানার সামনে দিয়ে শিমুলিয়া মোড় ও মাওয়া চৌরাস্তা হয়ে পুরাতন মাওয়া ফেরিঘাটে গমন করবেন।

মাদারীপুরের শিবচরে (কাঠালবাড়ী) অনুষ্ঠিত জনসমাবেশে অংশগ্রহণকারী সম্মানিত অতিথিবৃন্দকে সকাল ৮ টার আগেই পুরাতন মাওয়া ফেরিঘাটে প্রবেশ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত লঞ্চে চলাচল করতে পারবেন।

এ ছাড়া বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিধি নিষেধ জারি করা হয়েছে। আগামীকাল পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে আজ শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে ২৬ জুন সকাল ৬টা পর্যন্ত পদ্মা সেতুর সঙ্গে সংযুক্ত মহাসড়কে কাভার্ড ভ্যান এবং ট্রাক চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। এ প্রেক্ষিতে, ঢাকা মহানগরী এলাকা থেকে মুন্সীগঞ্জ জেলার মাওয়াগামী কাভার্ড ভ্যান এবং ট্রাকসমূহকে ২৪ জুন সকাল ৬টা হতে ২৬ জুন সকাল ৬টা পর্যন্ত পাটুরিয়া দৌলতদিয়া এবং চাঁদপুর-শরীয়তপুর রুটে ফেরিতে চলাচলের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী