‘দীর্ঘসূত্রিতা অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে’
‘দীর্ঘসূত্রিতা অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে’

‘দীর্ঘসূত্রিতা অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে’

অনলাইন ডেস্ক

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন এমপি বলেছেন, উন্নয়নের মহাসড়কে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলা বাংলাদেশকে নতুন গন্তব্যে নিয়ে যেতে সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঠিক পরিকলন্পনা গ্রহণ ও যথাসময়ে এর বাস্তবায়নে জোর দিতে হবে। দীর্ঘসূত্রিতা উন্নয়নের অন্তরায়; এটি অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, সরকারি কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে পাশাপাশি দেশপ্রেম, সততা ও কর্তব্যনিষ্ঠার সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে হবে; তবেই দেশের জন্য আমাদের পূর্বসূরীদের জীবন বিসর্জন দেয়া স্বার্থক হবে।

তিনি আজ সকালে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণলায়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক কর্মসম্পাদক চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ২০২২-২৩ অর্থ বছরে মন্ত্রণালয়ের সাথে এপিএ চুক্তি স্বাক্ষর করেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মুহিবুর রহমান, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক আতাউর রহমান, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির মহাপরিচালক মো. শাহ আলম ও শিশু কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালক আবুল বাশার।

অনুষ্ঠানে ২০২১-২২ অর্থবছরে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শুদ্ধাচার পুরস্কার বিজয়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়।

news24bd.tv/তৌহিদ