পশুরহাট শুরুর আগেই বাজার চড়া
পশুরহাট শুরুর আগেই বাজার চড়া

পশুরহাট শুরুর আগেই বাজার চড়া

অনলাইন ডেস্ক

কোরবানির পশুরহাট শুরুর আগেই বাজার চড়া। খামারীরা জানান, গো খাদ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় পশু পালনে খরচ বেড়েছে কয়েকগুণ। গেল দুবছর করোনার কারণে লাভ করতে পারেননি তারা। এ অবস্থায় হাটে যদি পশুর দাম না পাওয়ার শঙ্কায় খামারিরা।

বগুড়া ও  চাঁদপুর প্রতিনিধির পাঠানো খবরে ডেস্ক রিপোর্ট।

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ধীরে ধীরে জমে উঠছে পশুর হাট। সপ্তাহের সাতদিনই বগুড়ায় কোন না কোনো স্থানে বসে পশুর হাট। তবে কোরবানির ঈদকে ঘিরে, বেচাকেনা বাড়ে কয়েকগুণ। তবে, এবারের চিত্র কিছুটা ভিন্ন। এ বছর কোরবানির আনুষ্ঠানিক হাটের আগেই চড়া গরুর দাম। এ জন্য গো-খাদ্যের মূল্যবৃদ্ধিকেই দায়ী করছেন বিক্রেতারা। হতাশ ক্রেতারাও।

এদিকে, চাঁদপুর ৮ উপজেলায় দেশীয় পদ্ধতিতে কোরবানির পশু মোটাতাজাকরণ করছেন খামারিরা। গেল দু’বছর করোনার কারণে লোকসান গুণতে হয়েছে তাদের। এছাড়া বর্তমানে গো খাদ্যের দাম বৃদ্ধি ও বিদেশ থেকে পশু আমদানির ফলে লোকসান আতঙ্কে রয়েছেন তারা।

তবে, এবারো চাহিদার তুলনায় বেশি কোরবানীর পশু রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তারা। খামারিরা যাতে দেশিয় পদ্ধতিতেই কোরবানির পশু মোটাতাজা করতে পারে , সে বিষয়ে তদারকির কথাও জানিয়েছে প্রাণী সম্পদ বিভাগ।

news24bd.tv/কামরুল