রাশিয়ার গ্যাস নিয়ে ইউরোপকে সতর্ক করলেন আইইএ
রাশিয়ার গ্যাস নিয়ে ইউরোপকে সতর্ক করলেন আইইএ

রাশিয়ার গ্যাস নিয়ে ইউরোপকে সতর্ক করলেন আইইএ

অনলাইন ডেস্ক

সামনের শীতেই ইউরোপে গ্যাস সরবারহ বন্ধ করতে পারে রাশিয়া। এ জন্য তাদের প্রস্তুত থাকতে বলছে প্যারিস ভিত্তিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সি (আইইএ)। এ বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেতে চাহিদা কমাতে ও দ্রুত পানমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো চালু করতে বলছে তারা।

আইইএ প্রধান ফাতিহ বিরল বলেছেন, সবশেষ কয়েক সপ্তাহে ইউরোপে গ্যাস রফতানি কমিয়ে দেওয়ার জন্য রক্ষণাবেক্ষণের অযুহাত দেখাচ্ছে ক্রেমলিন।

প্রকৃতপক্ষে ব্যাপক আকারে গ্যাস রফতানি কমিয়ে দেওয়ার লক্ষণ এটি। মূলত রাশিয়ার গ্যাস ছাড়া ইউরোপ অচল ও অঞ্চলটিতে তাদের নিজেদের কর্তৃর্ত দেখাতে চায়।

লন্ডনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ফিনান্সিয়াল টেইমকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, ‘রাশিয়ার গ্যাস চলার জন্য ইউরোপের সরাকারগুলোকে প্রস্তুতি নেওয়া উচিত। শীত যত ঘনিয়ে আসছে আমরা রাশিয়ার উদ্দেশ্যে তত বুঝতে পারছি। আমি বিশ্বাস করি, রক্ষণাবেক্ষণের অযুহাতে ইউরোপের গ্যাস সংরক্ষণ কমাতে ও রাশিয়ার ওপর তাদের নির্ভরতা বাড়াতে এটা করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যে ইউরোপের দেশগুলোর সংরক্ষণাগারে জ্বালানি গ্যাসের পরিমাণ কমছে। সেগুলো পরিপূর্ণ করতে ওঠেপড়ে লেগেছে। বর্তমানে জার্মানির সংরক্ষণাগারের মাত্র ৫০ শতাংশ জ্বালানী রয়েছে। দেশটির সরকার আশা করছে আসন্ন নভেম্বরের মধ্যে তাদের সংরক্ষণাগারের ৯০ শতাংশ পূর্ণ করে ফেলবে।

ইইউভুক্ত দেশগুলো রাশিয়ান জীবাশ্ম জ্বালানীর ওপর তাদের নির্ভরতা কমাতে কাজ করছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য দেশ থেকে গ্যাস সংগ্রহ ও নবায়নযোগ্য জ্বালানী উৎপাদনে গতি বাড়িয়েছে তারা।

ইউক্রেন আক্রমণের পর থেকে ক্রেমলিনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আসছে ইইউ। তাদের এমন  সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে মস্কো ইইউর বেশ কয়েকটি দেশে গ্যাস সরবরাহ কমিয়ে দিয়েছে। এমনকি সিজেদের মুদ্রায় গ্যাস বিক্রি করছে ক্রেমলিন।

জার্মানির বেল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে নর্ড স্ট্রিম-১ পাইপলাইনের মাধ্যমে ইউরোপে বেশিরভাগ গ্যাস সরবারহ করে আসছিল রাশিয়। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ওই পাইপলাইনে সমস্যা হয়েছে বলে জানিয়েছে মস্কো। আর গত সপ্তাহে পাইপলাইনের মাধ্যমে পরিবহন করা গ্যাস সরবারহের ৪০ শতাংশ কমানোর ঘোষণা দেয় রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় জ্বালানি কোম্পানি গাজপ্রোম।  

news24bd.tv/মামুন