রাজস্থানে উত্তেজনা প্রশমনে কারফিউ ও ইন্টারনেট বন্ধ
রাজস্থানে উত্তেজনা প্রশমনে কারফিউ ও ইন্টারনেট বন্ধ

সংগৃহীত ছবি

রাজস্থানে উত্তেজনা প্রশমনে কারফিউ ও ইন্টারনেট বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের রাজস্থান রাজ্যের উদয়পুর জেলায় এক হিন্দু দর্জি খুন হওয়ার পর ওই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের পর সেখানে সৃষ্ট উত্তেজনা প্রশমনে স্থানীয় প্রশাসন কারফিউ জারি এবং ইন্টারনেট পরিসেবা বন্ধ করে দিয়েছে। খবর রয়টার্স।

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে বিজেপির সাবেক মুখপাত্র নূপুর শর্মার সমর্থনে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ায় গতকাল মঙ্গলবার ওই দর্জিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ ওঠেছে দুই যুবকের বিরুদ্ধে।

নিহত দর্জি ফেসবুকে নূপুর শর্মার সমর্থনে পোস্ট দেওয়ার পর থেকে হুমকি পেয়ে আসছিলেন বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী। এ জন্য কয়েকদিন দোকান বন্ধ রাখার পর মঙ্গলবার সেটি পুনরায় খুলেছিলেন তিনি।

গোস মোহাম্মদ ও রিয়াজ আখতারি নামের দুই যুবক দর্জির দোকানে গ্রাহকের বেশে যান। সেখানে পৌঁছানোর পর কানহাইয়া লাল নামের ওই দর্জি এক যুবকের শরীরের মাপ নেওয়ার সময় ধারাল ছুরি দিয়ে তার ওপর হামলা করা হয়। এ সময় অপর যুবক এই দৃশ্য মোবাইল ফোনে ভিডিও করেন।

পরে দোকান থেকে পালিয়ে গিয়ে তারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কানহাইয়াকে হত্যার ভিডিও পোস্ট করে দায় স্বীকার করে। এ সময় তাদের উল্লাস প্রকাশের পাশাপাশি পরবর্তী টার্গেট হিসেবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও হুমকি দিতে দেখা যায়। পুলিশ অভিযুক্ত দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।   দর্জি কানহাইয়া লাল হত্যাকাণ্ডের পর উদয়পুরে প্রচণ্ড উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাজ্য সরকার উদয়পুরে ইন্টারনেট পরিসেবা স্থগিত এবং বড় ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করে কারফিউ জারি করেছে।

news24bd.tv/আলী