‘বি-বাড়িয়া’ নয়, লিখতে হবে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া’
‘বি-বাড়িয়া’ নয়, লিখতে হবে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া’

সংগৃহীত ছবি

‘বি-বাড়িয়া’ নয়, লিখতে হবে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া’

অনলাইন ডেস্ক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাম ‘বি–বাড়িয়া’ না লিখে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ লেখার নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।  ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে গত মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠপ্রশাসন সংযোগ অধিশাখার উপসচিব মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ভূইয়া স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এই চিঠি সব সিনিয়র সচিব, সচিব, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠানো হয়েছে। এর একটি অনুলিপি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিবের কাছেও পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, সব দাপ্তরিক কাজে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাকে বি–বাড়িয়ার পরিবর্তে ব্রাহ্মণবাড়িয়া লেখার জন্য এবং আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থাকে এ বিষয়ে নির্দেশনা প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হলো।  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের চিঠি সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৪ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি এক স্মারকে এ জেলার নাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামে গেজেট প্রকাশিত হয়। কিন্তু বিগত সময়গুলোয় কিছু স্বার্থান্বেষী মহল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাকে বি-বাড়িয়া জেলা নামে প্রচার শুরু করে। ফলে বিভিন্ন দাপ্তরিক যোগাযোগ, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ড, মহাসড়কে স্থাপতি ওভারহেড ডিরেকশনাল সাইনবোর্ড, কিলোমিটার পোস্ট ও বিলবোর্ডগুলোয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামের পরিবর্তে বি-বাড়িয়া নামের প্রচলন শুরু হয়, যা এখনো বিদ্যমান।  

তাই সব মন্ত্রণালয়, বিভাগসহ আওতাধীন দপ্তরগুলোকে দাপ্তরিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাকে বি-বাড়িয়া না লেখার নির্দেশনা প্রদানের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবের কাছে অনুরোধ করা হয়।

এবিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক মো. শাহ্গীর আলম সাংবাদিকদের জানান, সূচনালগ্ন থেকেই এই জেলার নাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া। কিন্তু একটি মহল এটাকে বি-বাড়িয়া হিসেবে প্রচার করছে। এমনকি রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সরকারি সফরসূচিতেও অনেক সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাম বি-বাড়িয়া লেখা হয়।  

মহাসড়কে স্থাপিত ওভারহেড ডিরেকশনাল সাইনবোর্ড ও কিলোমিটার পোস্টে বি-বাড়িয়া লেখা হয়। তাই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব বরাবর এ বিষয়ে নির্দেশনা জারির জন্য অনুরোধ জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছিল।

news24bd.tv/আলী