স্বামীকে তালাক দিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধুর অবস্থান
স্বামীকে তালাক দিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধুর অবস্থান

সংগৃহীত ছবি

স্বামীকে তালাক দিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধুর অবস্থান

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরের দিঘাপাতিয়ায় স্বামীকে তালাক দিয়ে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে প্রেমিকা  রাজিয়া সুলতানা মুক্তি(২১)।   শুক্রবার দুপুর থেকে তিনি দিঘাপতিয়া মাঝপাড়ার মোহাম্মদ আলীর ছেলে আল আমিনের বাড়িতে বিয়ে দাবীতে অবস্থান নেন। নাটোর শহরের ঝাউতলা মহল্লার রেজাউল হক রেজুর বড় মেয়ে।  দাবী পুরণ না হলে আত্মহত্যার জন্য গ্যাসের ট্যাবলেট সাথে নিয়ে আসছেন বলে তিনি জানান।

 

মুক্তি বলেন, আপন ফুফাত ভাইয়ের সাথে কুষ্টিয়ায় তার বিয়ে হয়েছিল। তিন বছর থেকে আল আমিনের (২১) সাথে সর্ম্পকের কারনে প্রেমিক আল আমিনের পরামর্শেই সে তার স্বামীকে তালাক দিয়েছে। এখন আল আমিন তাকে বিয়ে না করে গড়িমসি করছে। আল আমিন তার সাথে অনেক বার শারীরিক সর্ম্পক করেছে।  

শুধু তাই নয়, ভিডিও কলে আল আমিন নিয়মিত তাকে দেখতো। এসব ভিডিও তাদের দুজনের কাছেই রয়েছে। এসব কারণে আল আমিন তাকে বিয়ে না করলে তার কোন উপায় নেই, অবশ্যই বিয়ে করতে হবে। নইলে সে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করবে।  

স্থানীয় একটি কোম্পানীতে চাকুরীরত আত্মগোপনে থাকা আল আমিন এই প্রতিবেদককে বলেছেন, মুক্তি তার আগের বিয়ের বিষয়টি প্রেমের সর্ম্পকের শুরুতে গোপন করায় তিনি প্রেমিকা মুক্তিকে বিয়ে করতে রাজি নয়।  

তার পিতা মোহাম্মদ আলী বলেছেন, ছেলে রাজি না থাকায় তিনিও এই বিয়েতে রাজি নয়।  

এদিকে শুক্রবার বিকেলে খবর পেয়ে প্রেমিকা রাজিয়া সুলতানা মুক্তির পিতাসহ অন্য অভিভাবকরা মেয়েকে ফিরিয়ে নিতে আসলেও মুক্তি ফিরে যেতে অস্বীকার করে প্রেমিকের বাড়িতেই অবস্থান করছেন।  

স্থানীয় দিঘাপাতিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম বিদ্যুৎ বলেছেন, বিষয়টি তিনি শুনেছেন, উভয় পরিবার সমঝোতায় যেকোন সিন্ধান্ত নিলে তাদের কারো কোন আপত্তি নেই। সিধান্তে না পৌছলে তিনি থানা পুলিশের সাথে পরামর্শ করে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহন করবেন।

নাটোর থানার ওসি নাছিম আহমেদ বলেছেন, বিষয়টি তিনি বিস্তারিত জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।  
news24bd.tv/আলী