গণমাধ্যমকর্মীদের স্বার্থ বিরোধী কোনো আইন পাস হবে না : স্পিকার
গণমাধ্যমকর্মীদের স্বার্থ বিরোধী কোনো আইন পাস হবে না : স্পিকার

সংগৃহীত ছবি

অনুষ্ঠিত হলো বিজেসি সম্মেলন

গণমাধ্যমকর্মীদের স্বার্থ বিরোধী কোনো আইন পাস হবে না : স্পিকার

অনলাইন ডেস্ক

দুই বছর পর অনুষ্ঠিত হলো ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের (বিজেসি) তৃতীয় সম্মেলন। শনিবার (২ জুলাই) বাংলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত বিজেসির তৃতীয় সম্মেলন ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, গ্লোবাল টেলিভিশনের সিইও ইশতিয়াক রেজা।

 

রাষ্ট্র ও সমাজ গঠনে সম্প্রচার গণমাধ্যমের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী বলেন, জাতীয় সংসদে এমন কোনো আইন পাস হবে না যা গণমাধ্যমকর্মীদের স্বার্থ বিরোধী হয়। ব্রডকাস্ট সংবাদকর্মীদের স্বার্থ রক্ষা করেই পাস হবে গণমাধ্যমকর্মী আইন।

তিনি আরো বলেন, তথ্য প্রবাহের অবাধ এই সময়ে গণমাধ্যমের প্রসার বাংলাদেশে ব্যাপক। গণমাধ্যমের বিভিন্ন ক্ষেত্র রয়েছে। ইলেকট্রনিক মিডিয়া, সোশ্যাল মিডিয়া ইত্যাদি। সম্প্রচারের মাধ্যমে আমরা প্রতি মুহূর্তে সংবাদ দেখতে পারি। সংবাদের ছবি আমাদের সামনে তুলে ধরছে সম্প্রচার মাধ্যম। সেজন্য এই মাধ্যমের গুরুত্ব অপরিসীম।

তিনি বলেন, এ পেশা যেমন ঝুঁকির তেমনি চাকরির বিষয়টাও চলে এসেছে। আমি মনে করি এই সম্মেলনে আপনারা নিজেদের অধিকার, সমস্যা এবং সমাধানের পথটিও চিহ্নিত করতে পারবেন। পাশপাশি ১৮০০ সদস্যের পরিবার কোন আইনি কাঠামোতে চলবে সেক্ষেত্রে অন্য যে আইনগুলো রয়েছে তা কতটা সহায়ক হবে তা এই আলোচনায় বেরিয়ে আসবে বলে মনে করি। তবে জাতীয় সংসদে এমন কোনো উদ্যোগ নেওয়া হবে না যা সংবাদকর্মীদের স্বার্থ ক্ষুন্ন করে।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বলেন, যারা সাংবাদিকতা করছেন তারা অত্যন্ত মেধাবী। তারা চাইলে অন্য পেশা বেছে নিতে পারতেন। ভালবেসে সাংবাদিকতা বেছে নিয়েছেন।

তিনি বলেন, করোনার দিন গুলোতে সংবাদকর্মীরা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছেন। পদ্মা সেতু নিয়ে জাতির আবেগকে তুলে ধরেছেন গণমাধ্যমকর্মীরাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার সাংবাদিক বান্ধব সরকার। এ সরকার সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট গঠনসহ নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এর মাধ্যমে বছরে কোটি টাকা সাহায্য দেওয়া হচ্ছে। যা অন্য কোনো দেশে দেওয়া হয় না।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, প্রেস ক্লাবে ভবন নির্মাণের উদ্যোগ চলছে। এসবের বাইরেও প্রধানমন্ত্রীর কাছে যিনি গেছেন তিনিই সহযোগিতা পেয়েছেন।

উল্লেখ্য, সম্প্রচার মাধ্যমে কর্মরত সংবাদকর্মীদের পেশাগত সুরক্ষায় কাজ করছে বিজেসি। ২০১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত সংগঠনটি ইতোমধ্যে সংবাদকর্মীদের পেশাগত উন্নয়ন, ঝুঁকিসহ নানা বিষয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। এবার সম্প্রচার মাধ্যমে পাঁচ ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়। বিকালে বিজেসি সদস্যদের মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী সম্মেলনের সমাপ্তি হয়।

news24bd.tv/desk