‘গরীবের টিকে থাকা মুশকিল হয়ে পড়ছে’
‘গরীবের টিকে থাকা মুশকিল হয়ে পড়ছে’

‘গরীবের টিকে থাকা মুশকিল হয়ে পড়ছে’

ফেরদৌস আরেফিন

মুদ্রাস্ফীতি বদলাতে পারে বিশ্বকে। পৃথিবীব্যাপী যে বিপর্যয় চলছে তাতে বেড়ে গেছে পণ্য ও সেবা মূল্য। নিত্য প্রয়োজনীয় সবকিছু চলে যাচ্ছে হাতের নাগালের বাইরে। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, মুদ্রাস্ফীতি সবচেয়ে বড় আঘাত হানে দরিদ্র মানুষের জীবিকার ওপর।

সঞ্চয় হারিয়ে তৈরি হয় নতুন গরীব। মানুষ অসহিষ্ণু হয়ে তৈরি করতে পারে সামাজিক অস্থিতিশীলতা।  

বিশ্লেষকের মতে, এসবের প্রতিকার না করতে পারলে পরিবর্তন হতে পারে ইতিহাসের দিক।

মুদ্রাস্ফীতির প্রভাবে কমেছে মুদ্রার মান। জ্বালানী ও নিত্যপণ্যের চড়া দামে কঠিন হয়ে পড়েছে জীবন ও জীববিকা।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল-আইএমএফ বলছে, চলতি বছরেও চাপ থাকবে মুদ্রাস্ফীতির। এর প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে উন্নয়নশীল দেশগুলো। ওয়ার্ল্ড ইজ ওয়ান নিউজের বিশ্লেষক পালকি শর্মার মতে, মাত্রাতিরিক্ত মুদ্রাস্ফীতি জন্ম দিতে পারে হিটলারের মতো স্বৈরশাসক। বিচ্ছিন্ন হতে পারে কোন দেশ। উদাহরণ হিসেবে তিনি সামনে আনেন, ১৯৩৩ সালে জার্মানির অর্থনৈতিক বিপর্যয়কে।

অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন বলছেন, শুধু বাংলাদেশই নয় সব উন্নয়শীল দেশকেই নাড়া দিয়েছে মূল্যস্ফীতি। গরীব মানুষের টিকে থাকা দিনকেদিন মুশকিল হয়ে পড়ছে। নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষকে চলতে হচ্ছে সঞ্চয় ভেঙ্গে, যার প্রভাব পড়েছে ব্যাংক ডিপোজিটে।

অর্থনীতিবিদ মনসুর বলেন, দেশে দেশে মুদ্রাস্ফীতির আগুন মানুষকে বিক্ষোভের দিকে ধাবিত করছে। পাকিস্তান, শ্রীলংকা, ল্যাটিন আমেরিকায় সরকার পতনের ঘটনাও ঘটেছে, আফ্রিকার অনেক দেশে চলছে আন্দোলন।

বিশ্লেষকদের মতে, সামাজিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও ব্যক্তি পর্যায়ে বহুমুখী হুমকিতে ফেলেছে মুদ্রাস্ফীতি। এক্ষেত্রে সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্চ আয়ের সীমাবদ্ধতা দূর করা।

news24bd.tv তৌহিদ